মহাজোটই ক্ষমতায় এসে বাজেট বাস্তবায়ন করবে: সুরঞ্জিত

০৯ জুন,২০১৩

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: তিন সরকার নয়, মহাজোট সরকারই আগামীতে ক্ষমতায় এসে আগামী অর্থবছরের বাজেট বাস্তবায়ন করবে। বাজেট বাস্তবায়ন নিয়ে বিরোধী দলের মাথা ব্যাথার কোনো কারণ নেই।

রবিবার জাতীয় সংসদে সম্পূরক বাজেট আলোচনায় অংশ নিয়ে দপ্তরবিহীন মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত এ সব কথা বলেন।

অন্যদিকে, শেখ হাসিনাকে বিশ্বাস না করার কথা জানিয়ে তার অধীনে নির্বাচন না করে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকার পুর্নবহাল করার আহবান জানিয়েছেন বিরোধী দলের সংসদ সদস্য খন্দকার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন সরকারি দলের সংসদ সদস্য আলী আশরাফ, সৈয়দ আবুল হোসেন, মমতাজ বেগম, গোলাম কিবরিয়া টিপু, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মহীউদ্দিন খান আলমগীর, দপ্তরবিহীন মন্ত্রী সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত।

আর বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্যদের মধ্যে অ্যাডভোকেট মাহবুব উদ্দিন খোকন, রেহেনা আখতহার রানু, জেড আই মোস্তফা আলী মুকুল প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত বলেন, ‘অনেকে বলেন তিন সরকারের বাজেট। তিন সরকার  কিভাবে হলো? আমরা বাজেট  দিলাম। আর সারা বিশ্বের চলমান সরকারই নির্বাচনকালীন অর্ন্তবর্তী সরকার হিসেবে থাকে। আর জনগণ জানে, আগামীতে  মহাজোট সরকারই ক্ষমতায় আসবে। সুতরাং আপনাদের মাথা ব্যাথার কোনো কারণ নেই।’

বিরোধীদলীয় সংসদ সদস্য জেড আই মোস্তাফা আলী মুকুল বলেন, তারেক রহমান দেশের একজন শীর্ষ রাজনীতিক। লন্ডনে তিনি একটি বক্তব্য দেয়ায় সরকারের মধ্যে তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।

তিনি বলেন, গভীর রাতে হেফাজতের ওপর আক্রমন করে ২৫ মার্চের হামলাকে স্মরণ করে দিয়েছে। পুলিশের বুটের তলা ও ছাত্রলীগ-যুবলীগের চাপাতির আঘাতে গণতন্ত্র আজ লণ্ডভণ্ড।

মুকুল বলেন, ‘নৌকা মার্কার ভোটার বিশ্বজিৎ দাশকে কুপিয়ে হত্যা করার পর প্রধানমন্ত্রী তাকে দেখতে গেলেন না। কিন্তু নাস্তিক ব্লগার রাজীবের বাসায় গিয়ে রাজীবের আদর্শের স্বীকৃতি দিয়ে প্রমাণ করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী নাস্তিকদের উস্কানিদাতা।’

সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী আবুল হোসেন অভিযোগ করে বলেছেন, ‘কিছু কিছু পত্রিকার ফরমায়েসী লেখা মন্ত্রণালয়ের উন্নয়ন কজে ব্যাঘাত সৃষ্টি করেছে। অপসাংবাদিকতার কারণে দেশের উন্নয়ন ঘুরপাক খাচ্ছে।’

‘যে সব প্রতিষ্ঠান টেন্ডারের কাজ যখন পায় না, সেইসব প্রতিষ্ঠান তখন মিডিয়ার কাছে হাজির হয়। এতে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করার ক্ষেত্রে ব্যঘাত ঘটছে। অপসাংবাদিকতা কারণে দেশের উন্নয়ন ঘুরপাক খাচ্ছে’ যোগ করেন তিন।

বিরোধী দলের সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, ‘আজ  ঘরে  ঘরে সন্ত্রাস সৃষ্টি করা  হচ্ছে। পদ্মা সেতু কেলেঙ্কারির বিচার হচ্ছে। এটি  জাতির  জন্য  লজ্জাজনক।’

তিনি দাবি করেন, ‘জনগনের আস্থা হারিয়ে প্রধানমন্ত্রী নিজেই ক্ষমতায় থেকে নির্বাচন দিতে চাচ্ছেন। শেখ হাসিনাকে অর্ন্তবর্তীকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে  বিশ্বাস করি না। দেশের জনগণ আগামী নির্বাচন নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন চায়। এটি গণদাবি।’

মাহবুবউদ্দিন খোকন বলেন, ‘তারেক রহমানের বাংলাদেশের বাইরে কোনো সম্পদ নেই। বর্তমান সরকার সাড়ে চার বছরে তারেক রহমানের বিরুদ্ধে কিছুই পায়নি।  প্রতিহিংসামূলক তার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। খালেদা জিয়াকে  ধমক দিয়ে,  টর্চার করে তত্ত্বাবধায়ক সরকার দাবি থেকে ফেরাতে চায়।’

সংসদের বৈঠক সোমবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত মুলতবি করেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী।

রাজনীতি পাতার আরো খবর

দেশ কাঁপানো গুমের জট খুলল না দুই বছরেও

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশের সবচেয়ে আলোচিত গুমের ঘটনা বিএনপি নেতা এম ইলিয়াস আলীর গুম হওয়া দুই বছরে পা রাখল আ . . . বিস্তারিত

রিজওয়ানার স্বামী অপহরণে খালেদার উদ্বেগ

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশ পরিবেশ আইনজীবী সমিতির (বেলা) নির্বাহী পরিচালক সৈয়দা রিজওয়ানা হাসানের স্বামী আবু ব . . . বিস্তারিত

ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: ০১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: [email protected]