ভিয়েতনামে কিম-ট্রাম্পের বৈঠক চূড়ান্ত

১০ ফেব্রুয়ারি,২০১৯

ভিয়েতনামে কিম-ট্রাম্পের বৈঠক চূড়ান্ত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
হ্যানয়: উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম উন জনের সাথে দ্বিতীয় বৈঠকের স্থান চূড়ান্ত করে টুইট করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। স্থানের খসড়া প্রস্তাব থাকলেও কাল চূড়ান্ত করে টুইটে জানালেন ট্রাম্প।

উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে কিমের সাথে ট্রাম্পের ২য় দফা এ বৈঠক আগামী ২৭-২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। এবারের বৈঠকে চূড়ান্ত রুপরেখার আশা করছেন ট্রাম্প। এই বৈঠকের সুফল দিতে এরই মধ্যে কাজ করছেন দুই দেশের দুটি প্রতিনিধি দল। খবর আনান্দ বাজারের

বেশ কয়েকদিন ধনেই আমেরিকায় রয়েছে উত্তর কোরিয়ার প্রতিনিধিদল। আর শেষ সময়ে প্রস্তুতি সারতে গতকাল উত্তর কোরিয়ায় গেছেন আমেরিকার একটি প্রতিনিধিদল।

এসব কিছু আরো বেশি পরিষ্কার করে বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কাল টুইট করে তিনি জানালেন, ২৭-২৮ ফেব্রুয়ারি উত্তর কোরিয়ার শাসক কিম জং উনের সঙ্গে তিনি বৈঠকে বসতে চলেছেন ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ে। উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে কিমের প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আমেরিকার কথাবার্তা বেশ ভাল দিকেই এগোচ্ছে।

বৈঠক যাতে ফলপ্রসূ হয়, সে জন্য আগাম কিছু আলোচনা সারতে মার্কিন প্রতিনিধিদল পিয়ংইয়্যাং রওনা হয়ে গিয়েছে বলে জানিয়েছেন ট্রাম্প। তাঁর কথায়, কিমের মুখোমুখি হওয়ার জন্য মুখিয়ে রয়েছি। কোরীয় উপদ্বীপ তথা বিশ্বে শান্তির জন্য আমাদের এক টেবিলে বসাটা জরুরি।

গত বছর জুনে সিঙ্গাপুরে প্রথম বার বৈঠক হয়েছিল কিম-ট্রাম্পের। যৌথ বিবৃতিতে দুই রাষ্ট্রনেতাই জানিয়েছিলেন, পরমাণু অস্ত্র ছাড়তে রাজি পিয়ংইয়্যাং। কিন্তু বিরোধী ডেমোক্র্যাট শিবিরের দাবি, কিমের দেশ এখনও পরমাণু অস্ত্র পরীক্ষা চালিয়ে যাচ্ছে। বেশ কিছু পরমাণু গবেষণা কেন্দ্রের কথা গোপন করেই সিঙ্গাপুরের বৈঠকে বসেছিলেন কিম। তাই দ্বিতীয় বৈঠকের প্রসঙ্গ উঠতেই বেঁকে বসেছিলেন ডেমোক্র্যাটরা। ট্রাম্প যদিও বুঝিয়ে দিয়েছেন, তিনি বৈঠক করবেনই।

হ্যানয়ের বৈঠক নিয়ে হোয়াইট হাউস প্রস্তুতি নিতে শুরু করে দিয়েছে। উত্তর কোরিয়া বিষয়ক বিশেষ দায়িত্বপ্রাপ্ত মার্কিন প্রতিনিধি স্টিফেন বিগান গত বুধবার থেকে তিন দিন পিয়ংইয়্যাংয়ে থেকে এ নিয়ে কথা বলেছেন কিমের প্রতিনিধি কিং ইয়ং চলের সঙ্গে। বৈঠকের আগে ফের কথা হবে দু’জনের।

শোনা যাচ্ছে, এ বারের বৈঠকে পিয়ংইয়্যাংয়ের উপর থেকে কিছু নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার কথাও ভাবছে ট্রাম্পের প্রশাসন। উত্তর কোরিয়ার তরফে যদিও বৈঠক নিয়েই কোনও বিবৃতি মেলেনি। আমেরিকা চাইছে, পুরোপুরি পরমাণু অস্ত্রমুক্ত হোক উত্তর কোরিয়া। আর এটা যে কঠিন, তা বেশ ভালই বুঝতে পারছেন ট্রাম্প ঘনিষ্ঠেরা। প্রেসিডেন্ট তবু কিমের গুণ গেয়েই চলেছেন।

তিনি টুইটে বলছেন, উনি (কিম) হয়তো অনেককেই চমকে দিতে পারেন। কিন্তু আমাকে পারবেন না। খুব ভাল ভাবে চিনি ওঁকে। আমার বিশ্বাস, কিম দ্রুত তাঁর দেশকে অর্থনৈতিক উন্নতির শিখরে নিয়ে যাবেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

আমেরিকা পাতার আরো খবর

যুক্তরাষ্ট্রে প্রথম মুসলিম নারী মেয়র হয়ে ইতিহাস গড়লেন ড. সাদাফ জাফর, সাক্ষাৎকারে যা বলছেন

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনওয়াশিংটন: যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন অঞ্চলের উত্তরের শহর মন্টগোমেরির প্রথম মুসলিম নারী মেয়র হিসেব . . . বিস্তারিত

যুক্তরাষ্ট্রের মুসলিমদের মধ্যে কৃষ্ণাঙ্গরাই সবচেয়ে বর্ণিল, অর্ধেকই ধর্মান্তরিত

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনওয়াশিংটন: এমনকি বিংশ শতাব্দীতেও যুক্তরাষ্ট্রের বেশিরভাগ অঞ্চলে যখন ইসলামের উপস্থিতি একেবারেই কম . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com