জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিবাদে

নিজের গায়ে আগুন দিয়ে মার্কিন আইনজীবীর আত্মহত্যা

১৬ এপ্রিল,২০১৮

নিজের গায়ে আগুন দিয়ে মার্কিন আইনজীবীর আত্মহত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
নিউইয়র্ক: জলবায়ু পরিবর্তনের প্রতিবাদে নিজের গায়ে আগুন দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রখ্যাত এক আইনজীবী।

নিউইয়র্কের ব্রুকলিন শহরের প্রসপেক্ট পার্ক থেকে ডেভিড বুকেল নামে ওই আইনজীবীর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

রবিবার বিবিসি জানিয়েছে, বুকেলের লাশের পাশে থাকা পাওয়া একটি সুইসাইড নোটে তিনি জীবাশ্ম জ্বালানি ব্যবহার করে নিজেকে জ্বালিয়ে দিয়েছেন বলে লিখে গেছেন। মানুষ পৃথিবীর যে ক্ষতি করে চলেছে এটা তারই প্রতীক বলে দাবি করেছেন তিনি।

বুকেল সুইসাইড নোটে লিখেছেন, বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষ এখন প্রশ্বাসে খারাপ বাতাস নেয় আর অনেকেই অকালে মারা যায়।

আইনজীবী বুকেল সমকামী ও তৃতীয় লিঙ্গের মানুষের অধিকার আদায়ে কাজ করার জন্য পরিচিত ছিলেন। পরবর্তীতে তিনি বেশ কয়েকটি পরিবেশবাদী সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত হন। আত্মহত্যার কিছুক্ষণ আগে তিনি সুইসাইড নোটটি বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমকে ই-মেইলও করেন।

আরও পড়ুন.....
ট্রাম্প আমেরিকার জন্য বিপজ্জনক: সাবেক মার্কিন রাষ্ট্রদূত
ইরাকে নিযুক্ত মার্কিন সাবেক রাষ্ট্রদূত জোসেফ উইলসন বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হচ্ছেন আমেরিকার জন্য বিপজ্জনক এক ব্যক্তি।

তিনি বলেন, এটা এখন একেবারেই পরিষ্কার যে, ইরাক যুদ্ধের বিষয়ে তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডাব্লিউ বুশের বিরুদ্ধে ট্রাম্পের প্রচারণা চালানোর কারণ ছিল শুধুমাত্র আমেরিকার প্রেসিডেন্টের পদ দখল করা।

ট্রাম্পের উপদেষ্টারা তার মন পাল্টে দিতে পারেন কিনা কিংবা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প তার উপদেষ্টাদের মন বদলে দিতে পারেন কিনা- এমন এক প্রশ্নের জবাবে জোসেফ উইলসন বলেন, আমি মনে করি প্রকৃতপক্ষে তার কোনো মন নেই, মূলত তিনি একজন অর্থলোলুপ ব্যক্তি। তিনি প্রতিটি দিন শুধু এই চিন্তার মধ্যদিয়ে পার করেন যে, তিনি কত বেশি ডলার তার ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা করতে পারলেন।

সাবেক এ রাষ্ট্রদূত আরো বলেন, আমি মনে করি এই লোকটা আমেরিকার জন্য খুবই বিপজ্জনক ব্যক্তি।

রাসায়নিক হামলার অভিযোগ তুলে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প শনিবার সিরিয়ার বিভিন্ন সামরিক ও বেসামরিক লক্ষ্যবস্তুতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার নির্দেশ দেন। কিন্তু যে অভিযোগে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা করা হয়েছে সে বিষয়ে সঠিক কোনো তথ্য-প্রমাণ তুলে ধরতে পারেন নি ট্রাম্প।

সিরিয়ায় ক্ষেপণাস্ত্র হামলা সফল, মিশন সম্পন্ন বললেন উৎফুল্ল ট্রাম্প
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প সিরিয়ায় ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র হামলাকে সফল বলে দাবি করেছেন। সেই সঙ্গে হামলায় অংশ নেওয়ার জন্য ফ্রান্স এবং যুক্তরাজ্যকে ধন্যবাদ দিয়েছেন তিনি।

শনিবার এক টুইট বার্তায় ট্রাম্প বলেন, গত রাতে হামলা পুরোপুরি সম্পন্ন হয়েছে। বিচক্ষণতার জন্য ফ্রান্স ও ব্রিটেনকে ধন্যবাদ। তাদের চমৎকার সেনাবাহিনীকেও ধন্যবাদ। সিরিয়ায় হামলায় এর চেয়ে ভালো ফল হতে পারে না। মিশন সম্পন্ন। খবর সিএনএন।

শনিবার সকালে রাসায়নিক অস্ত্রগার লক্ষ্য করে সিরিয়ায় একসঙ্গে বিমান হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও ফ্রান্স। এর আগে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প শুক্রবার সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কে বিস্ফোরণের কথা বলেন। সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের রাসায়নিক অস্ত্র প্রয়োগের বিরুদ্ধে অভিযান চালানো নিয়েই এই হামলা বলে জানানো হয়েছে।

ট্রাম্প জানিয়েছেন, ফ্রান্স ও ব্রিটেনের সঙ্গে অপারেশন চালিয়েছে আমেরিকা। যতদিন না সিরিয়া তার রাসায়নিক অস্ত্রের প্রয়োগ থামাবে, ততদিন হামলা চলবে বলেও হুঁশিয়ারি দিয়েছেন তিনি। গত সপ্তাহে বিষাক্ত গ্যাসের ফলে সিরিয়ায় ৬০ জনের মৃত্যু হয়। তারপরেই এই বিমান হামলার সিদ্ধান্ত নেয় ওই তিনটি দেশ।

হোয়াইট হাউস থেকে একটি টেলিভিশন চ্যানেলে ট্রাম্প জানান, 'কিছুদিন আগেই আমি মার্কিন সেনাকে হামলার কথা বলি। সিরিয়ার রাষ্ট্রপতি বাসার আল-আসাদের রাসায়নিক অস্ত্রের পরিপ্রেক্ষিতেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।'
সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা যায়, বিমান হামলা একাধিক জায়গায় করা হয়েছে বলে মার্কিন প্রশাসন নিশ্চিত করেছে। হামলার জন্য তোমাহক ক্রুজ মিসাইল ব্যবহার করা হয়েছে।

এদিকে, রাশিয়ার সেনাবাহিনীর দাবি, একশ তিনটি ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রের ৭১টিই ভূপাতিত করা হয়েছে এবং হামলায় কোনো সিরীয় বেসামরিক নাগরিকের প্রাণহানি ঘটেনি।

এদিকে সিরিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলছে, এটা বর্বর আগ্রাসন। হামলার তীব্র নিন্দাও জানানো হয়েছে। রাশিয়ার পক্ষ থেকেও বলা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও তার মিত্র দেশগুলোকে এর মোক্ষম জবাব দেওয়া হবে। অন্যদিকে সিরিয়ার বিরোধী গোষ্ঠীর নেতা আবদুল রহমান মুস্তাফা বলেন, হামলার ঘটনাটি রাশিয়া ও ইরানের জন্য কঠিন বার্তা।

হামলার ঘটনায় আলোচনার জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে জরুরি বৈঠক ডেকেছে রাশিয়া। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন বলেছেন, সিরিয়ায় পশ্চিমা মিত্রদের নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের হামলা মানবিক বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে।

মন্তব্য

মতামত দিন

আমেরিকা পাতার আরো খবর

মার্কিন আদালতে রুশ গুপ্তচর মারিয়া বিউটিনার জামিন নাকচ

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনওয়াশিংটন: যুক্তরাষ্ট্রের কলম্বিয়ায় ডিস্ট্রিক্ট আদালতের বিচারক ডিবোরাহ রবিনসন রুশ নাগরিক মারিয়া . . . বিস্তারিত

কানাডায় প্রকাশ্যে রাস্তায় মুসলিম পরিবারের ওপর হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনঅটোয়া: টরেন্টোর মিসিসাগাতে একটি মুসলিম পরিবারের ওপর হামলা চালিয়েছে দুইজন শ্বেতাঙ্গ পুরুষ। হামলা . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com