সর্বশেষ সংবাদ: |
  • বিএনপি নেতা রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর প্রার্থিতা বৈধ করবে বলে জানিয়েছেন আদালত, অ্যাটর্নি জেনারেলের মতামত নেওয়ার পর আদেশ
  • তিন আসনে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে দায়ের করা রিটের শুনানি চলছে
  • সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সংবিধান, ভোটার ও রাজনৈতিক নেতাদের কাছে দায়বদ্ধ নির্বাচন কমিশন : সিইসি

লক্ষ্য সম্পূর্ণ! সিরিয়া নিয়ে ট্রাম্পের টুইট

১৬ এপ্রিল,২০১৮

লক্ষ্য সম্পূর্ণ! সিরিয়া নিয়ে ট্রাম্পের টুইট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
ওয়াশিংটন: এক প্রস্ত হামলা হয়ে গিয়েছে। আপত্তি-ক্ষোভ উগরে দিয়েছে আসাদ সরকার। তবুও সিরিয়া প্রশাসনকে সতর্ক করল মার্কিন সরকার।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের হুঁশিয়ারি, সিরিয়া সরকার যদি ফের রাসায়নিক হামলা চালায় তা হলে তারাও অস্ত্রসম্ভার নিয়ে প্রস্তুত।

শুক্রবার রাত থেকেই সিরিয়ার তিনটি জায়গায় ব্রিটেন ও ফ্রান্সের সঙ্গে মিলে মার্কিন জোট ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে। শনিবার ট্রাম্প টুইটারে লেখেন, ‘নিখুঁত হামলা হয়েছে গত কাল। ফ্রান্স, ব্রিটেনকে ধন্যবাদ তাদের জ্ঞান ও সেনা-ক্ষমতা কাজে লাগাতে দেওয়ার জন্য। এর থেকে ভাল ফল কিছু হত না। লক্ষ্য সম্পূর্ণ!’

শেষ শব্দ দু’টি প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশের কথা মনে করিয়েছে। ২০০৩ সালে ইরাক জয়ের আগেই যিনি বিমান থেকে বলেছিলেন,‘লক্ষ্য সম্পূর্ণ!’

এর মধ্যে জাতিসংঘে এই হামলার নিন্দা করার জন্য সিরিয়ার বন্ধু-দেশ রাশিয়া চেয়েছিল ভোটাভুটি। তা খারিজ হয়ে যায়। সিরিয়ার সাত বছরের গৃহযুদ্ধে মার্কিন জোটের এ বারের হামলা গুরুত্বপূর্ণ কারণ, সরাসরি প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের বিরুদ্ধে এ বারের লড়াই ছিল। যুদ্ধ-পর্বের গোড়ার দিকে পশ্চিমী শক্তিগুলো বিদ্রোহীদের সমর্থন করেছিল। সিরিয়া সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে সরাসরি পদক্ষেপ করতে দেখা যায়নি তাদের।

সপ্তাহখানেক আগে সিরিয়ার দুমা শহরে রাসায়নিক হামলার অভিযোগ ওঠে আসাদ-বাহিনীর বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের নিরপেক্ষ তদন্ত চেয়ে নিরাপত্তা পরিষদে বাকি সদস্য-দেশের সামনে আমেরিকা, ব্রিটেন ও ফ্রান্স নয়া খসড়া প্রস্তাব এনেছে। এই ধরনের তদন্তের দাবি সংক্রান্ত প্রস্তাবে এর আগে ভেটো দিয়েছে রাশিয়া।

সিরিয়ায় তদন্তের জন্য সে দেশে রওনা দিয়েছেন ‘অর্গানাইজেশন ফর দ্য প্রোহিবিশন অব কেমিক্যাল ওয়েপনস’ (ওপিসিডব্লিইউ)-এর সদস্যরা। রাসায়নিক হামলা হয়ে থাকলে তার পিছনে কারা দায়ী তা ওপিসিডব্লিইউ তদন্তে প্রকাশ করবে না। সেই কারণেই আমেরিকা ফ্রান্স, ব্রিটেন এ ব্যাপারে পৃথক তদন্তের দাবি জানিয়েছে।

ফ্রান্সের উদ্বেগ, সিরিয়ার ইদলিব প্রদেশে মানবাধিকার সঙ্কট তৈরি হতে চলেছে। ইদলিবে এখন ২০ লক্ষ মানুষের ভিড়। বিদ্রোহীদের হাতে থাকা শহরগুলি সিরিয়ার সেনা পুনর্দখল করেছে। শহর ছাড়তে বাধ্য হয়েছে মানুষ। ভিড় করেছে ইদলিবে।

এ দিন রুশ সংবাদ সংস্থার দাবি, মার্কিন জোটের হামলার পরে রুশ আধিকারিকদের সামনে আসাদ দাবি করেন, সিরিয়ায় পশ্চিমী ক্ষেপণাস্ত্র হানা ‘আগ্রাসন’ ছাড়া কিছু নয়। তার দাবি, মার্কিন হামলা সিরিয়াকে ঐক্যবদ্ধ করবে। শনিবারই পূর্ব গুটার দুমায় বিদ্রোহীদের হটিয়েছে সিরিয়ার সেনা।

সূত্র: আনন্দ বাজার

মন্তব্য

মতামত দিন

আমেরিকা পাতার আরো খবর

খাসোগি হত্যার জন্য সৌদি যুবরাজকে দায়ী করে মার্কিন সিনেটে প্রস্তাব

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনওয়াশিংটন: মার্কিন সিনেটে আনা নতুন একটি প্রস্তাবে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের প্রখ্যাত সাংবাদিক জামাল . . . বিস্তারিত

‘নেতারা ভুল পথে হাঁটছেন, ইসলামহীন হয়ে পড়লে যুক্তরাষ্ট্রের ধ্বংস অনিবার্য’

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনওয়াশিংটন: যুক্তরাষ্ট্রের বোস্টন শহরের রক্সবারি এলাকার ‘Mosque Praise Allah’(আল্লাহ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com