আনোয়ার ইব্রাহীম বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় পিকেআর’র প্রধান নির্বাচিত হওয়ার পথে

০৭ আগস্ট,২০১৮

আনোয়ার ইব্রাহীম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
কুয়ালালামপুর: ড. জাভিয়ার জয়াকুমার নামে পিকেআর’র একজন সিনিয়র নেতা জানান, দলের প্রধান হওয়ার ব্যাপারে আনোয়ার ইব্রাহীমের প্রতি দলের পূর্ণ সমর্থন রয়েছে। অন্যদিকে পিকেআর’র ২য় প্রধান পদে মনোনয়ন পেতে পারেন রাফিজ রামলি নামের আরেকজন সিনিয়র নেতা।

ড. জাভিয়ার জয়াকুমার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ‘আনোয়ার ইব্রাহীম দলের প্রধান হওয়ার সাথে সাথে দলের মধ্যে তিনি এতোদিন যে De-Facto প্রধান হিসাবে দায়িত্বরত ছিলেন এরকম পদ আর থাকবে না।’

পিকেআর’র ভাইস-প্রেসিডেন্ট এক প্রশ্নের জবাবে বলেন, এতোদিন ধরে আনোয়ার ইব্রাহীম দলের De-Facto পদে ছিলেন, বর্তমানে তাকে দলের প্রধান করার জন্য নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

২০ বছর পূর্বে মালায়েশিয়ার জনগণের নিকট দেয়া প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী তিনি পিকেআর’র প্রধান হওয়ার জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন।

আনোয়ার ইব্রাহীম জানান, দলের প্রধান এবং তার স্ত্রী ড. ওয়ান আজিজাহ ইসমাইলী, পিকেআর’র ডেপুটি প্রধান আজমিন আলীসহ দলের অন্য নেতাদের সমর্থন পাওয়ার পরেই তিনি দলের প্রধান হওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেন।

এ পর্যন্ত কেউই আনোয়ার ইব্রাহীমের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ঘোষণা দেয়নি।

পিকেআর’র মনোনয়ন পত্র দেয়া শুরু হয় ২৭ জুলাই এবং শেষ হয় ২৯ জুলাই। ভোটাভুটি ২৪ আগস্ট থেকে শুরু হবে এবং ফলাফল ঘোষণা দেয়া হবে নভেম্বরে।

ড. জাভিয়ার আরো জনান যে, দলীয় নির্বাচনে রাফিজির ডেপুটি প্রধান পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা দলে বিশৃঙ্খলা তৈরী করবে না, বরং এর ফলে দলের গণতন্ত্র চর্চায় সহায়ক হবে। যে কেউই যে কোনো পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারবেন।

যদি বর্তমান ভারপ্রাপ্ত ডেপুটি প্রধান আজমিন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার সিদ্ধান্ত নেন তবে রাফিজির জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতা করাটা আরো প্রতিযোগিতামূলক হবে।

যদিও আজমিন দলের কেন্দ্রীয় পদের জন্য প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়ে এখনো ঘোষণা করেননি।

একজন সংসদ সদস্য গত সপ্তাহে জানান, তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন না। তিনি জানান মালয়েশিয়ানরা একটি নতুন মালয়েশিয়া দেখার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছেন এবং তারা আশা করছেন যে, পাকতান হারপানই তাদের আশা পূর্ণ করবে।

‘আমাদের উচিত আমাদের দেশ গঠনে অংশীদার হওয়া। আমি বিশ্বাস করি যে, আনোয়ার এবং রাফিজি হচ্ছেন সবচেয়ে যোগ্য মানুষ যারা আমাদের এই ভ্রমণে সুষ্ঠু নেতৃত্ব দিতে পারবেন।’-তিনি জানান।

ইতিমধ্যে রাফিজি জানান, তিনি ডেপুটি প্রধানের পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার ব্যাপারে যথেষ্ট দুশ্চিন্তার মধ্যে রয়েছেন, কেননা তিনি সরকারের কোনো পদে নেই এবং তার নিকট অর্থের কোনো উৎস নেই।

‘হেরে যাওয়া অথবা জেতা আমার কাছে বড় কোনো ব্যাপার নয়। কিন্তু কাউকে না কাউকে পিকেআর’র ধারাবাহিকতাকে অব্যাহত রাখতে হবে।’-তিনি এমনটা জানান।

তিনি আরো জানান, সম্প্রতি হোটেল ডি পামাতেই তিনি তার নির্বাচনী প্রচারণা সমাপ্তির ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন।

‘আমি আমার কয়েকজন সহকর্মীকে পরিচয় করিয়ে দেই, যারা স্বেচ্ছায় আমার কষ্টকে ভাগাভাগি করতে রাজি আছেন।’ শেষে তিনি এ রকমটি জানান।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

চলে গেলেন ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারি বাজপেয়ি

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননয়া দিল্লি: ভারতের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও সুপরিচিত রাজনীতিকদের একজন অটল বিহারী বাজপেয়ী মারা গেছ . . . বিস্তারিত

রোহিঙ্গা-বিদ্বেষী হাজারো পোস্ট, অজ্ঞাত কারণে নীরব ভূমিকায় ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনরেঙ্গুন: রোহিঙ্গা-বিদ্বেষী এক হাজারের বেশি পোস্ট ফেসবুকে ঘোরাফেরা করেছে গত সপ্তাহে যেখানে তাদের . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com