সর্বশেষ সংবাদ: |
  • ধানের শীষের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার আজ রোববার সকাল থেকে গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে শুরু হয়েছে
  • গাজীপুরের টঙ্গীর আরিচপুরে দুইপক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত, আশঙ্কাজনক অবস্থায় একজন হাসপাতালে
  • নির্বাচনের মাঠ এখনও লেভেল প্লেয়িং হয়নি: ড. কামাল
  • প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চায় না নির্বাচন কমিশন, প্রার্থীদের সমান সুযোগ নিশ্চিতে নিরপেক্ষতার প্রশ্নে ছাড় নয় : কমিশনার শাহাদাত
  • বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার শুরু হবে ১৮ নভেম্বর, প্রথম দিন রাজশাহী ও রংপুর বিভাগ

মুসলিম হত্যাকারী গোরক্ষকদের বরণ করলেন মন্ত্রী

০৮ জুলাই,২০১৮

মুসলিম হত্যাকারী গোরক্ষকদের বরণ করলেন মন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
দিল্লি: ভারতে গোরক্ষার নামে পিটিয়ে মুসলিমদের খুনের আসামীরা ফাস্ট ট্র্যাক কোর্টে দোষী সাব্যস্ত হলেও হাইকোর্টের নির্দেশে জামিন দেয়া হয়েছে। খুনি গোরক্ষকদের গলায় মালা দিয়ে বরণ করে নিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জয়ন্ত সিন্হা।

হাজারিবাগের বাড়িতে তার এই ‘আপ্যায়ন’-এর ছবি ইতিমধ্যেই ঝড় তুলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

কংগ্রেসের মতে, নিজেদের ভোটব্যাংক ধরে রাখতে বিজেপি সব কিছু করতে পারে। মন্ত্রী অবশ্য তার টুইটে লিখেছেন, ‘যা করেছি, আইনকে সম্মান জানিয়েই করেছি।’

টুইটারে জয়ন্তের আচরণের কড়া সমালোচনা করেছেন তর বাবা ও প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশবন্ত সিন্হা। বলেন, ‘এক সময়ে আমাকে উপযুক্ত ছেলের অনুপযুক্ত বাবা বলা হয়েছিল। এখন বিষয়টি উল্টে গিয়েছে।’

গত বছরজুনে ঝাড়খণ্ডের হাজারিবাগের রামগড়ে আলিমুদ্দিন আনসারি নামের এক মাংস ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে মারে স্বঘোষিত গোরক্ষকদের একটি দল। জয়ন্ত সিন্‌হা হাজারিবাগেরই সাংসদ। সেই মামলায় চলতি বছরের মার্চে অভিযুক্ত ১১ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের নির্দেশ দেয় ফাস্ট ট্র্যাক আদালত।

সাজাপ্রাপ্তদের মধ্যে এক জন আবার বিজেপিরই নেতা এবং দলের ওবিসি মোর্চার প্রেসিডেন্ট অমরদীপ যাদব। সিন্হা তখনই পুলিশি তদন্তে নিরপেক্ষতার প্রশ্ন তুলে সিবিআই তদন্ত চান। সেই সূত্রেই মামলা গিয়েছিল ঝাড়খণ্ড হাইকোর্টে।

২৯ জুনের শুনানিতে ওই ১১ জনের মধ্যে ৮ জনকে জামিনে মুক্তি দেয় আদালত। আর তার পরেই গত মঙ্গলবার তারা সিন্‌হার বাড়িতে যায় বলে খবর। সেখানে ফুল-মালায় শুধু অভ্যর্থনা নয়, তাদের পাশে নিয়ে দিব্যি হাসি মুখে ক্যামেরার মুখোমুখি হতে দেখা গিয়েছে মন্ত্রীকে।

বিষয়টিকে ‘নিন্দনীয়’ বলে টুইটারে তোপ দেগেছেন ঝাড়খণ্ডের বিরোধী দলনেতা জেএমএমেএর হেমন্ত সোরেন।

এত দিন মুখে কুলুপ আঁটলেও টুইট করে সিন্‌হা বলেন, ‘আমি হিংসার বিরুদ্ধে। নাগরিক অধিকার ভঙ্গ করলে শাস্তি পেতেই হবে। কিন্তু দেখতে হবে প্রকৃত অপরাধীই যেন শাস্তিটা পায়। বিচারব্যবস্থায় পূর্ণ আস্থা আছে আমার। হাইকোর্ট ওদের সাজা স্থগিত করেছে। আবার শুনানি হবে।’

সূত্র: আনন্দ বাজার

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

একদিন ভারতের লালকেল্লায় ইসলামের পতাকা উড়াব: পাক মন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনইসলামাবাদ: ভারতীয় রাজনীতিতে দীর্ঘদিন দিন দাপট দেখালেও লালকেল্লায় লাল পতাকা উড়াতে পারেনি বামেরা। . . . বিস্তারিত

মায়ানমারে শতাধিক রোহিঙ্গা গ্রেপ্তার

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনইয়াঙ্গুন: মায়ানমার অভিবাসী কর্তৃপক্ষ ইয়াঙ্গুন শহরের উপকূলে একটি নৌকা থেকে শতাধিক রোহিঙ্গাকে গ্র . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com