ব্রেকিং সংবাদ: |
  • পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ারকে তারেক রহমানের লিগ্যাল নোটিশ
  • ‘তারেক বর্তমানে বাংলাদেশের নাগরিক নন’
  • কাবুলে ভোটার নিবন্ধনকেন্দ্রে হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৩
  • ২৫ বছরের যুদ্ধে সোয়া কোটি মুসলিম নিহত, যা একটি বিশ্বযুদ্ধের সমান ক্ষয়ক্ষতি
  • খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সপ্তাহব্যাপী বিএনপির নতুন কর্মসূচি ঘোষণা
  • ত্রিভুবন বিমানবন্দরের গাফিলতিই দুর্ঘটনার জন্য দায়ী: ইউএস-বাংলা
  • যে শর্তে গাজীপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপিকে ছাড় দিল জামায়াত

যৌন নির্যাতন ছিল রোহিঙ্গা বিতাড়নের হাতিয়ার: জাতিসংঘ মহাসচিব

১৫ এপ্রিল,২০১৮

অ্যান্তোনিও গুতেরেস

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
নিউইয়র্ক: জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস বলেছেন, মায়ানমারের সেনারা রোহিঙ্গা মুসলমানদের বিতাড়নের হাতিয়ার হিসেবে যৌন নির্যাতনকে ব্যবহার করেছে।

ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ান জাতিসংঘ মহাসচিবের বরাত দিয়ে লিখেছে অক্টোবর ২০১৬ থেকে আগস্ট ২০১৭ পর্যন্ত যে ৭ লক্ষাধিক রোহিঙ্গা মুসলমান বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে, মায়ানমারের সেনারা তাদের ওপর যৌন নির্যাতন চালিয়েছে। মুসলমান নারীদের ওপর ওই ভয়াবহ যৌন নির্যাতনকে মায়ানমারের সেনাদের একটি অপকৌশল বলে মন্তব্য করেছেন গুতেরেস।

প্রতিবেদনে আরো বলা হয়েছে, রোহিঙ্গা মুসলমানরা যাতে নিজেদের ভিটেমাটি ছেড়ে যেতে বাধ্য হয় এবং আর ফিরে আসার চিন্তা না করে সেজন্যই এই কৌশল গ্রহণ করেছে মায়ানমার সেনারা।

শরণার্থীদের প্রথম পরিবার মায়ানমারে ফিরে যাবার পর গতকাল গুতেরেসের ওই প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে।

গত ২৫ আগস্ট থেকে রাখাইনে মায়ানমারের সেনা ও উগ্র বৌদ্ধদের বর্বর হামলায় ৬ হাজারের বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান নিহত এবং ৮ হাজারের বেশি আহত হয়েছে। পাশবিক ওই নিপীড়নের মুখে বাংলাদেশে পালিয়ে আশ্রয় নিয়েছে ৮ লাখের বেশি রোহিঙ্গা।

২০১২ সাল থেকে মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সেদেশের সেনা ও উগ্র বৌদ্ধরা মুসলমানদের ওপর নির্বিচার হামলা চালিয়ে আসছে।

আরো পড়ুন…
প্রথমবারের মতো মায়ানমারে ফিরেছে ৫ সদস্যের রোহিঙ্গা পরিবার
প্রথমবারের মতো মায়ানমারে ৫ সদস্যের রোহিঙ্গা মুসলিম পরিবার ফিরেছে বলে জানা গেছে। এই রোহিঙ্গা মুসলিম পরিবারটিকে শনাক্তকারী কার্ডও দেয়া হয়েছে। খবর বার্তাসংস্থা রয়টার্সের।

শনিবার তুমব্রু সীমান্তের জিরো পয়েন্ট দিয়ে স্বেচ্ছায় তারা মায়ানমারে যান।

এদের মধ্যে তিন নারী, একজন পুরুষ ও একটি শিশু রয়েছে। মায়ানমার সীমান্তে পা রাখার পর দেশটির কর্মকর্তারা তাদের স্বাগত জানিয়ে নিয়ে যান।

মায়ানমার সরকার এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, শনিবার সকালে পাঁচ সদস্যদের একটি মুসলিম পরিবার রাখাইনের তাউনপিওলেতউইয়া সেন্টারে পৌঁছেছে।

উল্লেখ্য, গতবছরের আগস্টে মিয়ানমার সেনাবাহিনী রাখাইনে নির্যাতন শুরু করলে ৭ লাখের বেশি সংখ্যালঘু রোহিঙ্গা মুসলিম প্রাণ বাঁচাতে পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

চালক ‘মুসলিম বলে’ ট্যাক্সি বুকিং বাতিল করলেন হিন্দু নেতা

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননয়াদিল্লি: ভারতে কট্টরপন্থী হিন্দু সংগঠন বিশ্ব হিন্দু পরিষদের একজন নেতা ট্যাক্সি হেইলিং অ্যাপে . . . বিস্তারিত

চরম অসন্তোষ, ভারতে হিন্দু-মুসলিম বিভেদ বাড়ছে

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনজম্মু: ভারতে হঠাৎ হিন্দু-মুসলিম বিভেদ বাড়ছে চরম আকারে। জম্মু-কাশ্মিরের বিভিন্ন ঘটনা এবং গোরক্ষক . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com