হাফিজ সাঈদকে ‘সন্ত্রাসবাদী’ হিসেবে স্বীকার করলো পাকিস্তান

১৩ ফেব্রুয়ারি,২০১৮

 ‘সন্ত্রাসবাদী’ হাফিজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: অবশেষে মুম্বাই হামলার মূল পরিকল্পনাকারী হাফিজ সাঈদকে ‘সন্ত্রাসবাদী’ ঘোষণা করেছে পাকিস্তান সরকার। দেশটির রাষ্ট্রপতি এই মর্মে একটি অর্ডিন্যান্সে স্বাক্ষর করার পর জামাত-উদ-দাওয়াকে এখন জঙ্গি সংগঠন হিসেবে বিবেচন করা হবে।

এর আগে ভারতের পক্ষ থেকে জঙ্গি সাঈদকে বারবারই মুম্বাই হামলার মূল পরিকল্পনাকারী হিসেবে আখ্যা দিলেও পাকিস্তানের পক্ষ থেকে তা অস্বীকার করা হচ্ছিল। বিষয়টি আন্তর্জাতিক মহল পর্যন্ত গড়ায়।

এদিকে সন্ত্রাসীদের মদদ দেয়ার অভিযোগে পাকিস্তানে অর্থ সহায়তা বন্ধ করে ট্রাম্প প্রশাসন। তারপর পাকিস্তান আত্মপক্ষ সমর্থনে নানা কথা বললেও, যথেষ্ট চাপেই ছিল। তবে সাঈদকে সন্ত্রাসবাদী বলে আরও একবার সন্ত্রাসীদের মদদ দেয়ার প্রমাণ রাখলো পাকিস্তান।

পাকিস্তানি ন্যাশনাল কাউন্টার টেররিজম অথরিটি জানিয়েছে, এই তালিকায় আছে জামাত-উদ-দাওয়া এবং হাফিজ সাঈদও। তাই সাঈদ এখন পাকিস্তানের চোখেও জঙ্গি। তার সংগঠনও নিষিদ্ধ।

এর আগে হাফিজ সাঈদ ও তার দল জামায়াত-উদ-দাওয়ার (জেইউডি) বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদের অভিযোগ প্রত্যাহার করে নিয়েছে পাকিস্তান। এ ঘটনায় উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে ভারত।

ভারতের দাবি, হাফিজ হলো মুম্বাই হামলার মূল চক্রান্তকারী। আর সেই হাফিজের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবিরোধী আইনে আনা অভিযোগ তুলে নেয়াটাকে মেনে নিতে পারছে না ভারত।

এদিকে পাঞ্জাব সরকারের একজন কর্মকর্তা শনিবার সুপ্রিম কোর্টের একটি পর্যালোচনা বোর্ডকে জানান, প্রাদেশিক সরকার নতুন আদেশে হাফিজ সাঈদ ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ অন্তর্ভুক্ত করেনি। এতদিন সন্ত্রাস বিরোধী আইন (এটিএ)-এ সাইদকে আটক রেখেছিল কর্তৃপক্ষ।

সন্ত্রাস বিরোধী আইনের মামলা প্রত্যাহার হওয়ায় সাঈদ ও তার চার সহকর্মীকে মুক্তি দিতে আদালতের কাছে অনুরোধ করেন সাঈদের আইনজীবী এ কে দোগার।

এর আগে সাঈদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার জন্য সরকারকে সময় নির্ধারণ করে দিয়েছিলেন বিচারপতি মুজাহির নাকবি। শিগগিরই লাহোর হাইকোর্ট সাঈদের আইনজীবীর আবেদনটির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে বলে আশা করা হচ্ছে।

গত সপ্তাহের শুরুতে বিচারপতি নাকবি সরকারকে সাবধান করে দিয়েছিলেন যে জেইউডি প্রধান সাইদের বিরুদ্ধে মামলায় উপযুক্ত সাক্ষ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করতে না পারলে তাকে মুক্তি দিতে হবে।

পরে গত শুক্রবারে হাইকোর্টের বিচারকের চেম্বারে ব্যক্তিগতভাবে সাঈদের বিরুদ্ধে সব প্রমাণ উপস্থাপনের প্রস্তাব দেয় সরকার এবং সাইদের বিরুদ্ধে মামলাটি অত্যন্ত সংবেদনশীল বিবেচনায় তাকে মুক্তি না দিতে আদালতকে অনুরোধ করে।

সাঈদ ও জেইউডির বিরুদ্ধে জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা রয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্র তাকে গ্রেপ্তারের জন্যে এক কোটি ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছে।

চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে গৃহবন্দী আছেন সাঈদ। তার আইনজীবী শুক্রবার আদালতকে বলেন, পাঞ্জাব সরকার সুনির্দিষ্ট প্রক্রিয়া ছাড়াই আবার হাফিজ সাঈদের গৃহবন্দীত্বের মেয়াদ তিন মাস বাড়িয়েছে। শুধু যুক্তরাষ্ট্রের চাপের কারণে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলেও দাবি করেন তিনি।

পাকিস্তান কর্তৃপক্ষ এখনো পর্যন্ত সাঈদের বিরুদ্ধে আনুষ্ঠানিক অভিযোগ দায়ের করেনি।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

চীনের সঙ্গে ৫০০ মিলিয়ন ডলারের প্রকল্প বাতিল করল মায়ানমার

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননেইপিদ: চীনের একটি ঠিকাদার কোম্পানির ৫০০ মিলিয়ন ডলার মূল্যের একটি বহুতল ভবন নির্মাণ প্রকল্প বাত . . . বিস্তারিত

‘মালয়েশিয়া সরকারের নীতি হচ্ছে ইসলামের দয়াশীল বাণী সর্বত্র পৌঁছে দেয়া’

আন্তর্জাতিক ডেস্ক আরটিএনএনকুয়ালালামপুর: মালয়েশিয়ার ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী ড. মুজাহিদ ইউসুফ রাওয়া বলেছেন, আমাদের দেশে সকল ধরন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com