ভারত থেকে প্রতারিত হয়ে ফিরছে ভুটানের যুবকরা

১১ অক্টোবর,২০১৭

 ফাইল ছবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
থিম্পু: ‘গ্যারান্টেড ওভারসিস এমপ্লয়মেন্ট প্রোগ্রাম’-এর অধীনে ভারতের নয়াদিল্লীতে গিয়ে খালি হাতে ও তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছে ৩০ ভুটানি যুবক।

গত এপ্রিলে ভুটানের শ্রম ও মানব সম্পদ মন্ত্রণালয় ভারতের ‘গ্যারান্টেড ওভারসিস এমপ্লয়মেন্ট প্রোগ্রাম’-এর অধীনে ৮৬ জন কলেজ উত্তীর্ণ তরুণকে দিল্লী পাঠায়।

কর্মকর্তারা জানান, এর মধ্যে ৫০ জনের মত তরুণ কর্মস্থলে যোগদানের প্রক্রিয়ায় আছে। কিন্তু কর্মসূচিতে নিশ্চিত কর্মসংস্থানের কথা বলা হলেও ৩০ জনেরও বেশী তরুণ ভুটানে ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছে।

ভুটানের মানব সম্পদ মন্ত্রণালয় ভারতের ‘আলফ্রেস্কো সলিউশন এলএলপি’র সাথে চুক্তিতে করে, যার আওতায় কোম্পানি ভুটানের যুবকদের প্রশিক্ষণ ও কাজের সুযোগ দিতে রাজি হয়। ভারতের শ্রম মন্ত্রণালয় নিশ্চয়তা দিয়েছিল যে ভারতীয় কোম্পানি ১৫,০০০ রুপি বেতনের চাকরি দেবে। পাশাপাশি খাদ্য ভাতা, প্রভিডেন্ট ফান্ড এবং পরিবহন খরচও দেয়া হবে।

দুই মাসের প্রশিক্ষণ চলাকালে কোম্পানিটি শিক্ষণার্থীদের খাবার ও বাসস্থান দেবে বলে জানিয়েছিলো। যার জন্য মন্ত্রণালয় প্রথম মাসে বেতন হিসেবে ৪,০০০ নুগুট্রাম (ভুটনি মুদ্রা) ও দ্বিতীয় মাসে ৩,২০০ নুগুট্রাম প্রদান করে। কিন্তু ভারতীয় কোম্পানি তাদেরকে ঠিকমত প্রশিক্ষণ বা অন্যান্য সুযোগ দেয়নি বলে অভিযোগ করে ফেরত আসা তরুণরা। কোম্পানি উল্টো দাবী করে যে ভুটানের মন্ত্রণালয় তাদের জন্য বরাদ্দকৃত টাকা হস্তান্তর করেনি।

প্রতারণার শিকার এক তরুণ বলেন, ‘ভারত পৌঁছানোর পর বলা হয়েছিল যে আমাদেরকে ১১,০০০ থেকে ১২,০০০ রুপী বেতন দেয়া হবে। তারা দাবী করে যে ১৫ হাজার টাকা বেতনের কথা একটি টাইপিং ভুলের কারণে সৃষ্টি হয়েছে। সেখানে আমাদের এমনও সময় গেছে যে ভালভাবে খাবারও দেয়া হয়নি।’

দায়সারা গোছের প্রশিক্ষণের পর, জুনে ৩৪ জন শিক্ষণার্থীকে দিল্লিতে সাক্ষাৎকারের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়। তাদের সবাইকে গাদাগাদি করে দুটি রুমে রাখা হয়। ৩০ থেকে ৪০ ভুটানি তরুনের সাক্ষাৎকার নেয়া হলেও মাত্র কয়েকজনকে নিয়োগ করা হয়।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

সম্রাট শাহজাহানের তাজমহলকে নিয়ে বিতর্কিত বিজেপি এমপির মন্তব্যে বিশ্বজুড়ে ক্ষোভ

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননয়া দিল্লি: ভারতে বিতর্কিত এক রাজনীতিক তাজমহলকে ‘ভারতীয় সংস্কৃতির কলঙ্ক’ বলে উল্লে . . . বিস্তারিত

রোহিঙ্গা নিপীড়নের সাথে মিল পাচ্ছে ‘ফোর-কাট নীতির শিকার’ কারেন নৃ-গোষ্ঠীও

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননাইপেদো: মায়ানমারের সবচেয়ে বড় ‘সশস্ত্র গেরিলা’ সংগঠন কারেন ন্যাশনাল ইউনিয়ন বা ক . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com