‘কাশ্মীর ভারতের নয়’, বিহারে প্রশ্ন নিয়ে বিতর্ক

১১ অক্টোবর,২০১৭

 বিতর্কিত সেই প্রশ্ন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আরটিএনএন

পাটনা: এবার কাশ্মীর নিয়ে বিতর্কে জড়াল ভারতের বিহার সরকার। রাজ্যের সরকারি স্কুলের পরীক্ষায় কাশ্মীর ও ভারতকে পৃথক রাষ্ট্র হিসাবে উল্লেখ করা হয়েছে। যে প্রশ্নটি ঘিরে বিতর্ক তাতে জানতে চাওয়া হয়েছে, পাঁচটি দেশের নাগরিকদের কি নামে ডাকা হয়। ওই তালিকায় চীন, নেপাল, ইংল্যান্ডের পাশাপাশি কাশ্মীরকে আলাদাভাবে দেখানো হয়েছে। এ নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

বলিহারি বিহারের শিক্ষা দফতর। রাজ্য শিক্ষা দফতরের ‘পণ্ডিত’ ব্যক্তিরা মনে করেন, কাশ্মীর ভারতের অঙ্গ নয়। বরং আলাদা দেশ। রাজ্যের সরকারি স্কুলের পরীক্ষায় সপ্তম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে জানতে চাওয়া হয়- চীন, নেপাল, ইংল্যান্ড, ভারত ও কাশ্মীরের নাগরিকদের কি নামে ডাকা হয়? গত ৫ অক্টোবর পরীক্ষা নেয়া হয়। বুধবার শেষ হবে পরীক্ষা।

কেন্দ্রের সর্বশিক্ষা অভিযান এবং বিহার শিক্ষা দফতরের আওতায় নেয়া হচ্ছে এই পরীক্ষা। প্রশ্ন উঠছে এটা কি ছাপার ভুল? কিন্তু প্রশ্নপত্র ছাপতে যাওয়ার আগে তা আগে কম্পিউটারে টাইপ করা হয়। এরপর তা যাচাই করে প্রশ্নপত্র ছাপতে চলে যায়।

এ নিয়ে ভারতে বিতর্ক উঠছে যিনি প্রশ্নপত্রটি তৈরি করেছেন তিনি কী ভেবে কাশ্মীরকে দেশের তালিকায় জুড়ে দিলেন! অবশ্য কেউ কেউ ষড়যন্ত্রের তত্ত্বও বলে বিষয়টির ব্যাখ্যা করছেন।

এদিকে অধিকৃত কাশ্মীরে ভারতীয় বাহিনীর দমন-পিড়ন, আগ্রাসন নিয়মিত ঘটনা। কাশ্মীরিরা এই সঙ্কট থেকে মুক্তির জন্য দীর্ঘদিন ধরে স্বাধীনতার সংগ্রাম চালিয়ে যাচ্ছে।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

বাংলাদেশ নিয়ে ভারতীয় সেনাপ্রধানের মন্তব্যে তোলপাড়

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননয়াদিল্লী: আসামের মুসলিম ও বাংলাদেশ প্রসঙ্গে ভারতীয় সেনাপ্রধান বিপিন রাওয়াতের মন্তব্যে ভারতজুড়ে . . . বিস্তারিত

আসামের মুসলিম দলকে কটাক্ষ করলেন ভারতের সেনাপ্রধান

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ভারতে বদরুদ্দিন আজমলের প্রতিষ্ঠিত রাজনৈতিক দল এআইইউডিএফ কীভাবে আসামে বিজেপির চেয়েও দ্রুত . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com