‘সিপিইসিতে অন্তর্ঘাত চালানোর চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র’

১০ অক্টোবর,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আরটিএনএন

ইসলামাবাদ: চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোর (সিপিইসি) সম্পর্কে মার্কিন প্রতিরক্ষা সচিব জিম ম্যাট্টিসের বক্তব্য নিয়ে বিতর্কের জন্য সংসদে প্রস্তাব এনেছে পাকিস্তান পিপলস পার্টি (পিপিপি)। সংসদ সদস্য সেহার কামরানের আনা এই প্রস্তাবে বলা হয়, সিপিইসি নিয়ে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য প্রমাণ করে ৫৬ বিলিয়ন ডলারের এই প্রকল্প ক্ষতিগ্রস্ত করার চেষ্টা করছে যুক্তরাষ্ট্র। এই ধরনের বিবৃতি পাকিস্তানের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে হস্তক্ষেপের সামিল বলেও দাবি করেন তিনি।

গত শনিবার ম্যাট্টিস কংগ্রেসকে জানান, সিপিইসি একটি বিতর্কিত অঞ্চলের মধ্য দিয়ে গেছে বলে যুক্তরাষ্ট্র বিশ্বাস করে। এটি মূলত ভারতীয় দাবি এবং তাতে সমর্থন দেয়ায় যুক্তরাষ্ট্র ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্ক আরো তিক্ত হচ্ছে। ডোনাল্ড ট্রাম্পের নতুন দক্ষিণ এশিয়া নীতি ঘোষণার পর থেকে পাক-মার্কিন সম্পর্ক জটিল আকার ধারণ করেছে।

ম্যাট্টিস এর আগেও সিনেটের আর্মড সার্ভিসেস কমিটিকে বলেছিলেন, বেইজিংয়ের ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড (ওবিওআর) কিংবা সিপিইসি প্রকল্পকে সমর্থন করে না যুক্তরাষ্ট্র।

সিনেটে শুনানিকালে সিনেটের আর্মড সার্ভিসেস কমিটির সদস্যদের ম্যাট্টিস বলেছেন, বর্তমান দুনিয়ায় অনেক বেল্ট এবং অনেক রোড রয়েছে। সেজন্য কোনো দেশের একটি বেল্ট ও একটি রোডের ক্ষেত্রে নির্দেশদানকারীর ভূমিকা থাকা উচিত নয়। তিনি আরো বলেন, বিতর্কিত অঞ্চলের উপর দিয়ে গেছে ওয়ান বেল্ট ওয়ান রোড।

এ থেকেই আগ্রাসী মনোভাব চাপিয়ে দেয়ার প্রচেষ্টার বিষয়টি ফুটে উঠেছে বলে পাকিস্তান সংসদ সদস্য মনে করেন।

ভারত বলে আসছে যে সিপিইসির অধীন প্রকল্পগুলো গিলগিট-বাল্টিস্তান অঞ্চল দিয়ে যাওয়ায় তার সার্বভৌমত্বের লঙ্ঘন হয়েছে।

মার্কিন অবস্থানের প্রতিক্রিয়ায় ইসলামাবাদ দাবি করে যে, সিপিইসি এই অঞ্চলের জনগণের কল্যাণের জন্য একটি উন্নয়ন এবং সংযোগ প্রকল্প।

প্রকল্পগুলো নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সমালোচনা চীনও প্রত্যাখ্যান করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র সন্ত্রাসবাদ সমর্থন করে

পাকিস্তান সিনেটে দ্বিতীয় প্রস্তাবে পিপিপি যুক্তরাষ্ট্রের সন্ত্রাসবাদ সমর্থন বিষয়ে বিতর্কের আহ্বান জানায়। যুক্তরাষ্ট্র আফগানিস্তানে জঙ্গি গ্রুপ আইএস’কে সহায়তা করছে এবং চরমপন্থীদের অস্ত্র সরবরাহ করছে। আফগানিস্তানের সাবেক প্রেসিডেন্ট হামিদ কারজাই এমন একটি অভিযোগ করার পরে পিপিপি ওই প্রস্তাব তুলে।

প্রস্তাবে কারজাইয়ের বক্তব্যকে পাকিস্তানের জন্য ‘অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ’ বলে উল্লেখ করা হয়। এই অঞ্চলে সন্ত্রাসবাদের বিস্তারে যুক্তরাষ্ট্রের সমর্থন থাকলে তা পাকিস্তানের নিরাপত্তার ওপর প্রভাব ফেলবে বলে উল্লেখ করা হয়।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

বিবিসির সাথে সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের ডন পত্রিকার প্রধান বিতর্কে

আন্তর্জাতিকআরটিএনএনইসলামাবাদ: পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের এক সপ্তাহ আগে দেশটির অন্যতম প্রধান একটি গণমাধ্যমের প্রধানের . . . বিস্তারিত

হিজাব নিষিদ্ধ হল ভারতের এক বিশ্ববিদ্যালয়ে!

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনদিল্লি: ইউরোপের বিভিন্ন দেশের মতো এবার ভারতে মাথা ও মুখ ঢাকার ওড়না নিষিদ্ধ করা শুরু হয়েছে। দেশট . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com