যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভারতের নতুন কেনা কামান মহড়াতেই অচল

১৩ সেপ্টেম্বর,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
দিল্লি: যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য নতুন কেনা দূরপাল্লার আল্ট্রা-লাইট (ইউএলএইচ) এম-৭৭৭ হাউৎজার কামান মহড়া চালাতে গিয়েই অচল হয়ে পড়ছে।

সম্প্রতি পোখরান ফায়ারিং রেঞ্জে কামানগুলো পরীক্ষার সময় একটির ব্যারেল বা নল বিস্ফোরিত হয়। দেশটির সেনাবাহিনী এখন এই দুর্ঘটনা তদন্ত করার নির্দেশ দিয়েছে।

সেনাবাহিনীর একটি সূত্র হিন্দুস্তান টাইমস পত্রিকাকে জানায়, গত ২ সেপ্টেম্বর ভারতীয় গোলা দিয়ে কামানগুলো পরীক্ষার সময় যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি কামানগুলোর একটির ব্যারেল বিস্ফোরিত হয়।

গত মে মাসে ভারত যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে দুটি এম-৭৭৭ আল্ট্রা-লাইট হাউৎজার কামান পায়। প্রতিটি কামানের দাম ভারতীয় মুদ্রায় ৩৫ কোটি রুপি। বফোর্স কেলেংকারির ৩০ বছর পর এই প্রথম যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে কামানগুলো কেনা হয়।

১৫৫ মিলিমিটার, ৩৯-কালিবারের এই কামানগুলো তৈরি করেছে যুক্তরাষ্ট্রের বিএই সিস্টেম। রাজস্তানের পোখরান ফায়ারিং রেঞ্জে নিয়ে কামানগুলোর ট্রাজেক্টরি, গতি ও ফ্রিকোয়েন্সি পরীক্ষা করা হচ্ছিল।

সেনাবাহিনীর সূত্র জানায়, গোলা ছুড়তে গেলে কামানের ব্যারেল বিস্ফোরিত হয়ে টুকরা টুকরা হয়ে যায়। তবে, এতে কেউ হতাহত হয়নি। এখন ক্ষয়ক্ষতি খতিয়ে দেখছে একটি যৌথ তদন্ত দল।

ভারতীয় সেনাবাহিনী এ ধরনের ১৪৫টি কামান কেনার জন্য বিএই সিস্টেমকে অর্ডার দেয়। আগামী বছর সেপ্টেম্বরের মধ্যে আরো তিনটি কামান ভারতে আসার কথা সেনা সদস্যদের প্রশিক্ষণের কাজে ব্যবহারের জন্য।

২০১৯ সালের মার্চ থেকে যুক্তরাষ্ট্রের কামানগুলো ভারতীয় সেনাবাহিনীতে সংযুক্ত করা শুরু হওয়ার কথা। প্রতি মাসে পাঁচটি করে কামান সেনাবাহিনীকে সরবরাহ করার পরিকল্পনা করে বিএই সিস্টেম। এই হিসেবে ২০২১ সালের মাঝামাঝি পুরো চালান সরবরাহ করার কথা রয়েছে।

বর্তমান আঞ্চলিক দৃশ্যপটের প্রেক্ষাপটে ভারতীয় সেনাবাহিনী মারাত্মকভাবে অস্ত্র স্বল্পতায় ভুগছে।

ভারত সর্বশেষ ১৯৮০’র দশকে সুইডিশ প্রতিরক্ষা কোম্পানি বফোর্স থেকে কামান কেনে। কিন্তু ওই কেনার সঙ্গে জড়িত ঘুষ কেলেংকারি এবং এ নিয়ে রাজনৈতিক বিতর্ক ভারতীয় সেনাবাহিনীর কামান কেনার প্রচেষ্টা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করে।

যুক্তরাষ্ট্রের কাছ থেকে ১৪৫টি কামান কেনার ব্যাপারে গত বছর দেশটির সরকারের সঙ্গে ভারতের ৫,০০০ কোটি রুপির চুক্তি হয়। এসব কামানের ২৫টি পুরোপুরি প্রস্তুত অবস্থায় ভারতে আসবে। বাকিগুলো ভারতের মাহিন্দ্রা ডিফেন্স কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে বিএই ভারতে সংযোজনের ব্যবস্থা করবে।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

বিবিসির সাথে সাক্ষাৎকারে পাকিস্তানের ডন পত্রিকার প্রধান বিতর্কে

আন্তর্জাতিকআরটিএনএনইসলামাবাদ: পাকিস্তানের সাধারণ নির্বাচনের এক সপ্তাহ আগে দেশটির অন্যতম প্রধান একটি গণমাধ্যমের প্রধানের . . . বিস্তারিত

হিজাব নিষিদ্ধ হল ভারতের এক বিশ্ববিদ্যালয়ে!

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনদিল্লি: ইউরোপের বিভিন্ন দেশের মতো এবার ভারতে মাথা ও মুখ ঢাকার ওড়না নিষিদ্ধ করা শুরু হয়েছে। দেশট . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com