এবার মাইকে আজান বন্ধের দাবি হিন্দু সংগঠনের

১৯ এপ্রিল,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আরটিএনএন

মুম্বাই: এবার মাইকে আজান বন্ধের দাবি জানিয়েছে ভারতের মহারাষ্ট্রের হিন্দু জনজাগৃতি নামে একটি সংগঠন। ওই সংগঠনের পাশে দাঁড়িয়েছে শিবসেনা।


হিন্দু জনজাগৃতি সংগঠনের দাবি, আদালতের নির্দেশিকা রয়েছে। তাকে কা‌র্যকর করছে না পুলিশ। কিন্তু গণপতি উৎসবের সময় লাউডস্পিকার বন্ধ করতে তাদের তৎপরতা চোখে পড়ার মতো।


সোমবার সোনু নিগমের একটি ট্যুইট নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় তোলপাড় শুরু হয়। যেখানে সোনু বলেছিলেন, তিনি মুসলিম নন কিন্তু তাও আজানের শব্দে তার ঘুম ভেঙ্গে যায়, তাকে উঠে যেতে হয়, আর এতে তার আপত্তি রয়েছে।


এরপর সোনু নিগমের সমর্থনে মঙ্গলবার ট্যুইট করেন কংগ্রেসের বর্ষীয়ান নেতা আহমেদ প্যাটেল। তিনি জানান, নামাজের জন্য আজান জরুরি, লাউডস্পিকার জরুরি নয়।


হিন্দু জনজাগৃতির দাবি, বহুদিন আগেই নামাজে লাউডস্পিকার বন্ধের দাবিতে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছে তারা। এক্ষেত্রে তাদের হাতিয়ার শব্দদূষণ। তাছাড়া প্রতিটি মানুষের ঘুমের অধিকারের কথাও আদালতে জানিয়েছে তারা। তথ্য পরিসংখ্যান দিয়ে জানিয়েছে- মুম্বাইয়ে কিভাবে মসজিদে ব্যবহার করা হচ্ছে লাউডস্পিকার। সমস্ত দিক বিবেচনা করে মসজিদে লাউড স্পিকার ব্যবহারের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল আদালত। কিন্তু আজও মসজিদ থেকে লাউডস্পিকার নামানো হয়নি। বরং দিনদিন তার শব্দমাত্রা বেড়েছে।


সংগঠনটির দাবি, আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যেতে পারে এই ভয়ে মসজিদের লাউডস্পিকারে হাত দিচ্ছে না পুলিশ।


হিন্দু জনজাগৃতির এই দাবির পাশে দাঁড়িয়েছে শিবসেনা। দূষণের প্রশ্নে বিষয়টি গুরুতর বলে জানিয়েছে তারা।

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

ভারতে গরুর প্রতি নিষ্ঠুরতার দায়ে এবার বিজেপি নেতা গ্রেপ্তার

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননয়াদিল্লি: ভারতের ছত্তিশগড় রাজ্যের এক বিজেপি নেতাকে পুলিশ গরুর সঙ্গে নিষ্ঠুরতার দায়ে গ্রেপ্তা . . . বিস্তারিত

ভারতে যাত্রীবাহী ট্রেন দুর্ঘটনায় নিহত ২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএননয়াদিল্লি: ভারতের উত্তর প্রদেশে যাত্রীবাহী একটি ট্রেন লাইনচ্যুত হয়ে অন্তত ২৩ জন নিহত হয়েছেন। এছ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com