যুক্তরাষ্ট্র থেকে ভারতীয়দের দেশে ফেরার হিড়িক

১৯ এপ্রিল,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আরটিএনএন

দিল্লি: ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর থেকেই যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসকারী ভারতীয়দের দেশে ফেরার হিড়িক পড়েছে। গত ডিসেম্বর থেকে মার্চ মাসের মধ্যে এই সংখ্যাটা প্রায় ১০ গুন বেড়েছে।


ট্রাম্প একটি বিশেষ নির্বাহী নির্দেশে সাক্ষর করেছেন, যেখানে এইচওয়ানবি ভিসা প্রোগ্রামের পর্যালোচনা করে দেখার কথা বলা হয়েছে। এবং তাতে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের কর্মীদের জায়গায় অন্যদের ব্যবহার করা উচিৎ নয়। মার্কিন সকল প্রতিষ্ঠানে বিদেশীদের বদলে সবার আগে মার্কিনিদেরই কাজ দেয়ার কথায় জোর দেয়া হয়েছে।


এই আদেশের সারমর্মই হল, ‘মার্কিন পণ্য কিনুন ও মার্কিন নাগরিকদেরই কাজে নিয়োগ করুন।’


এই আদেশের ফলে অভিবাসীদের কম মজুরীতে নিয়োগ করে মার্কিন নাগরিকদের কাজের সুযোগ বন্ধ করার ঘটনা অনেকটাই কমবে। নিজের নির্বাচনী প্রচারে এইচওয়ানবি ভিসা নিয়ে যে প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ট্রাম্প তা বাস্তবাসয়নে এই নির্দেশনামা প্রাথমিক পদক্ষেপ বলেই মনে করা হচ্ছে।


এদিকে বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়া ৪৫৭ ভিসা প্রোগ্রাম বাতিল করে দিয়েছে। এই ভিসা প্রোগ্রাম ৯৫০০০ অস্থায়ী বিদেশী কর্মীরা ব্যবহার করতেন যার মধ্যে অধিকাংশই ভারতীয়। ফলে কাজ খোয়াতে হতে পারে অনেককেই। ট্রাম্পের নির্বাহী নির্দেশনামা ও অস্ট্রেলিয়ার ভিসা প্রোগ্রাম বাতিলের জেরে বিদেশে কর্মরত ভারতীয় তথ্য প্রযুক্তি কর্মীদের চাকরির বাজারে যে একটা বড় ধাক্কা তা বুঝতে পেরেই ফের চাকরি নিয়ে দেশে ফিরতেই আগ্রহী বিদেশে কর্মরত ভারতীয়রা।


সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

দাউদ ইব্রাহিমের মৃত্যু নিয়ে জল্পনা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক আরটিএনএন ঢাকা: ভারতীয় বংশোদ্ভূত আন্তর্জাতিক মাফিয়া দাউদ ইব্রাহিমের শারীরিক অবস্থা সঙ্কাটাপন্ন বলে গতরা . . . বিস্তারিত

সম্প্রীতির নজির: কীর্তনের অর্থও দিলেন মুসলিমরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক আরটিএনএন কলকাতা: ফের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির নজির গড়ল পশ্চিমবঙ্গের মালদহ জেলার মানিকচকের প্রত্যন্ত গ্ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com