উত্তর প্রদেশে যোগীর হুঙ্কারের মধ্যেই মুসলিম নেতাকে গুলি করে হত্যা

২০ মার্চ,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আরটিএনএন

এলাহাবাদ: উত্তর প্রদেশে বিতর্কিত হিন্দুত্ববাদী নেতা যোগী আদিত্যনাথের ক্ষমতা গ্রহণের দ্বিতীয় দিনেই খুন হলেন প্রভাবশালী মুসলিম নেতা মোহাম্মদ সামী। স্থানীয় পুলিশ স্টেশনের অদূরে বাড়ির পাশেই তাকে অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা গুলি করে হত্যা করেছে।


এলাহাবাদ থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরে মাওয়িমা এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে বলে জানিয়েছে শহরটির সিনিয়র পুলিশ সুপার সালাব মথুর।


রবিবার রাতে বাড়ির অদূরে হাইওয়েতে সামিকে ঘিরে ধরে কয়েকজন অজ্ঞাত সন্ত্রাসী। এরপর এলাপাথারি গুলি করে তাকে হত্যা করা হয় । অন্তত ৫বার তাকে গুলি করা হলে ঘটনাস্থলেই নিহত হন সামী।


মোহাম্মদ সামী বহুজন সমাজপার্টির দলের প্রভাবশালী নেতা। তিনি দলটির মাওয়িমা ব্লকের ৫ বারের সভাপতি। সমাজবাদী পার্টির এই নেতা গত বিধানসভা নির্বাচনে লড়েছিলেন। এবারের বিধানসভায় সমাজবাদী পার্টি ছেড়ে মায়াবতীর বিএসপিতে যোগ দেন তিনি।


যোগী সরকারের ক্ষমতা পাওয়ার পরেই রাজনৈতিক ও সাম্প্রদায়িক খুন এটা। ব্লক ও মহকুমায় তার প্রভাব ছিল প্রবল।


এদিকে এই হত্যাকাণ্ডের পর নিহত সামীর সমর্থকরা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছে। তারা অবিলম্বে এই হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেপ্তার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি এবং নিহতের পরিবারের সদস্যদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার দাবি জানান।


এলাহাবাদের সিনিয়র পুলিশ সুপার সালাব মথুর জানান, ঘটনাটি তদন্ত চলছে এবং জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে।


গ্রেটার কাশ্মীর ডটকম অবলম্বনে

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

‘যারা পুরষ্কারটা দিল, তাদের সন্তানকে যদি আমার মতো জীপের সামনে মানবঢাল বানানো হত?’

কাশ্মীরের যুবক ফারুক আহমেদ ডারকে এভাবেই মানবঢাল বানিয়ে সারাদিন রাস্তায় ঘোরানো হয় বলে অভিযোগ ভারতীয় সৈন্যদের বিরুদ্ধে . . . বিস্তারিত

কাশ্মীরি যুবককে ‘মানব-ঢাল’ বানানো সেই ভারতীয় সেনাকে পুরস্কার

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনকাশ্মীর: ভারত নিয়ন্ত্রিত জম্মু-কাশ্মীরের ফারুক আহমেদ ডার নামের এক যুবককে জীপ গাড়ির সামনে বেঁধ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com