নোট বাতিল কোনোভাবেই সমর্থনযোগ্য নয়: অমর্ত্য সেন

১১ জানুয়ারি,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

আরটিএনএন

দিল্লি: কালো অর্থ কখনোই ভারতের অর্থনীতির জন্য বড় সমস্যা ছিল না জানিয়ে নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন বলেছেন, নোট বাতিলের এই সিদ্ধান্ত রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে নেয়া উচিত ছিল। ৬ শতাংশ কালো অর্থের জন্য ৮৬ শতাংশ নোট বাতিলকে কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না।


অমর্ত্য সেন বলেন, নোট বাতিলের এই সিদ্ধান্ত কালো অর্থ খুঁজে বের করতে ব্যর্থ হয়েছে।


মঙ্গলবার এক টিভি চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এমন মন্তব্য করেন।


তিনি বলেন, ‘নোট বাতিলের জেরে ভুগছেন দেশের সাধারণ মানুষ। অথচ সেই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল একতরফা ভাবে।’


অমর্ত্য সেনের দাবি, বিষয়টি নিয়ে জোরালো প্রতিবাদ করতে বিরোধীদের যেভাবে একজোট হতে হত, তা তারা পারেননি। পাল্টা গলা চড়াতে পারেননি এক সুরে। তাই গত দু’মাস এত দুর্ভোগের পরেও অনেক মানুষ যে এখনো ‘অন্ধভাবে’ নোট বাতিলের পাশে দাঁড়াচ্ছেন, তার কিছুটা দায় বিরোধীদেরও। একই সঙ্গে তার আশঙ্কা, যত দিনে এই ঘোর কাটবে, উত্তরপ্রদেশ সমেত পাঁচ রাজ্যে ভোট তত দিনে সারা।


তার মতে, ‘এটি ভুল সিদ্ধান্ত কি না, তা নিয়ে আলোচনার কোনো জায়গা নেই। বরং এটি কত বড় ভুল, শুধু তা নিয়ে কথা হতে পারে।’


প্রথমে কালো অর্থের বিরুদ্ধে জেহাদ, তারপরে জাল নোট, সন্ত্রাসে টাকার জোগান বন্ধ করা হয়ে শেষমেশ নগদহীন অর্থনীতির তত্ত্ব (ক্যাশলেস ইকনমি)। ৮ নভেম্বর নোট বাতিল ঘোষণার পর থেকে বারবার তার কারণ বদলেছে কেন্দ্র।


অমর্ত্য সেনের মতে, এ থেকেই স্পষ্ট, শুরুতে কালো অর্থের বিরুদ্ধে যে যুদ্ধের কথা বলা হয়েছিল, তাতে জয় আসবে না বলে মেনে নিয়েছে তারা।


কিন্তু হালে কেন্দ্র যে একাধিক বার বলেছে, এই সিদ্ধান্ত আসলে রিজার্ভ ব্যাঙ্কের? এ বিষয়ে এই অর্থনীতিবিদের স্পষ্ট জবাব, ‘আমি মনে করি না এটা রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সিদ্ধান্ত। এই মুহূর্তে শীর্ষ ব্যাঙ্ক স্বাধীনভাবে কোনো কিছু ঠিক করে বলেই মনে করি না আমি।’


উল্লেখ্য, এ দিন সংসদীয় কমিটিকে রিজার্ভ ব্যাঙ্কও জানিয়েছে যে, নোট বাতিলের সুপারিশ তাদের হলেও পরামর্শ সরকারের।


সম্প্রতি বারবার প্রশ্ন উঠেছে বর্তমান গভর্নর উর্জিত পটেলের জমানায় রিজার্ভ ব্যাঙ্কের স্বাধীনতা বিপন্ন কি না। অনেকেরই অভিযোগ, তিনি সিদ্ধান্ত নেন কেন্দ্রর ইশারায়। পূর্বসূরি রঘুরাম রাজনের মতো প্রয়োজনে সংঘাতে গিয়েও মেরুদণ্ড সোজা রেখে নয়। এ দিন পটেলকে নাম করে সরাসরি আক্রমণ করেননি অমর্ত্য সেন।


কিন্তু তাৎপর্যপূর্ণভাবে বলেছেন, ‘শীর্ষ ব্যাঙ্কের স্বাধীনতার বিষয়ে আমি যে সাংঘাতিক রকমের বিপ্লবী, তেমনটা নয়। কিন্তু মনে হয়, মনমোহন সিংহ, রঘুরাম রাজন কিংবা আই জি পটেলের মতো গভর্নর থাকলে, তার কথা অন্তত এক বার শুনতে বাধ্য হত কেন্দ্র।’


তার মতে, জিডিপিকে ঠেলেঠুলে যদি বা তোলা যায়, এই সমস্ত ক্ষতি অপূরণীয়। তার কথায়, ‘শান্তিনিকেতনে গিয়ে দেখেছি, সেখানে আলু চাষ ধাক্কা খেয়েছে।’ অর্থাৎ, জিডিপির হিসেবে তা চাপা পড়ে যেতে পারে। কিন্তু ভোগান্তি ভোলার নয়।


নগদে থাকা ৬-৭ শতাংশ কালো টাকা নষ্ট করতে ৮৬ শতাংশ নোট তুলে নেয়া যে বিরাট ভুল, এ দিন তা বহু বার বলেছেন অমর্ত্য সেন।


কালো টাকা, জাল নোট, কিংবা ডিজিটাল লেনদেনের প্রসার- কোনো যুক্তিই ওই সিদ্ধান্তের পক্ষে ধোপে টেকে না বলে মনে করেন তিনি। বরং নোট বাতিল নিয়ে কেন্দ্র ও রিজার্ভ ব্যাঙ্কের লাগাতার সিদ্ধান্ত বদলে যাওয়ার কারণে ব্যাঙ্কিং ব্যবস্থার প্রতি আমজনতার আস্থা জোরদারভাবে ধাক্কা খেতে পারে বলে তার আশঙ্কা। তাহলে এ নিয়ে সাধারণ মানুষের ভুল ভাঙলে, কী জবাবদিহি করবে মোদী সরকার?


আনন্দবাজার অবলম্বনে

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

ফেসবুকে দাম্পত্যের খুঁটিনাটি ফাঁস করায় স্ত্রীকে খুন

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনদিল্লি: স্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় নিজের ব্যক্তিগত জীবন সম্পর্কে একটু বেশিই সরব ছিলেন। ভবিষ্যৎ পরিক . . . বিস্তারিত

রোহিঙ্গা নির্যাতনের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থানে ওআইসি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক আরটিএনএন কুয়ালালামপুর: মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর অব্যাহত সহিংসতা ও নিপীড়নের বির . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com