মেয়েদের চুম্বন করে বিপাকে ভারতীয় ইউটিউবার

০৯ জানুয়ারি,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
দিল্লি: ভারতে জনসমক্ষে অপরিচিত মেয়েদের চুম্বন করে পালিয়ে যাওয়ার ভিডিও করে এবং সেটি ইউটিউবে পোস্ট করে বিপাকে পড়েছেন এক ইউটিউবার।

সুমিত ভার্মা নামের ভারতীয় ওই ইউটিউবরের ভিডিওগুলো পরীক্ষা করে দেখছে দিল্লীর পুলিশ এবং তার ‘কৌতুক’ ভিডিওর শিকার নারীদের আনুষ্ঠানিক অভিযোগ করার আহ্বান জানিয়েছে।

ব্যাপক জনরোষের পর ওই ইউটিউবার ক্ষমা চেয়েছেন এবং ভিডিওটি তার চ্যানেল থেকে মুছে দিয়েছেন।

সুমিত ভার্মা এমন এক সময়ে ভিডিওটি পোস্ট করেন যখন ভারতের দক্ষিণাঞ্চলের ব্যাঙ্গালোর শহরে নববর্ষ উদযাপনের সময় ব্যাপক যৌন নির্যাতনের অভিযোগ আলোচিত হচ্ছে।

তার ইউটিউব চ্যানেলের প্রায় দেড় লক্ষ সাবস্ক্রাইবার রয়েছে। জনরোষের পর দেয়া এক ভিডিওবার্তায় তিনি বলেন, ‘ওই ভিডিওটি বিনোদনের উদ্দেশ্যে বানানো এবং কাউকে আঘাত করার উদ্দেশ্যে বানানো হয়নি’ কিন্তু তার এই ব্যখ্যায় পুলিশ সন্তুষ্ট নয়।

ভারতের পিটিআই সংবাদ সংস্থাকে বলেন পুলিশের মুখপাত্র দিপেন্দ্র পাঠক। ‘গণমাধ্যমের সাহায্যে ভিডিওর বিষয়টি দিল্লী পুলিশের নজরে এসেছে। পুলিশ বলছে, প্রাথমিক একটি তদন্ত আমরা শুরু করেছি। এই অশ্লীল ভিডিওটি ফেসবুক এবং ইউটিউবে দেখা যাচ্ছে এবং সেটি আমরা তদন্ত করছি’।
তিনি বলেন, ‘লাইক এবং অনলাইনে প্রচারণা পাওয়ার জন্য এ ধরণের বিকৃত যৌনতার ভিডিও আমি সামাজিক মাধ্যমে পোস্ট হতে দেখেছি। হয়তো এর সাথে টাকা-পয়সার বিষয়ও জড়িত আছে’।

সামাজিক মাধ্যমেও সাধারণ মানুষ সুমিত ভার্মার ‘অপরিপক্ব এবং নোংরা’ ভিডিওর সমালোচনা করছেন।

ভারতে অনেক জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেল আছে এবং এসব চ্যানেলের তারকারা বিনোদনমূলক ভিডিও বানিয়ে থাকেন।

এ ধরনের একটি চ্যানেল, ট্রাবলসিকার টিম, সুমিত ভার্মার ব্যাপক সমালোচনা করে বলেছে, ‘নারীদের কিংবা যেকোন মানুষকে অপদস্থ করা কোনোভাবেই বিনোদন হতে পারে না’।

চ্যানেলটি বলছে ‘এটা শুধুমাত্র উৎপীড়ন’।

সূত্র: বিবিসি

মন্তব্য

মতামত দিন

এশিয়া পাতার আরো খবর

কাবুলে ন্যাটোর গাড়িবহরে বোমা হামলা

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনকাবুল: আফগান রাজধানী কাবুলের পশ্চিমাঞ্চলে রোববার বোমা হামলা চালানো হয়েছে। এতে কি পরিমাণ হতাহত হ . . . বিস্তারিত

‘সন্তানদের সামনেই আমাকে ধর্ষণ করে বার্মিজ সেনারা’

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: ৩০ বছর বয়সী রোহিঙ্গা নারী শামিলা তার কন্যাকে শক্ত করে জড়িয়ে ধরে বর্ণনা করছিলেন কিভাবে মায়ানমারে . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com