ইসলামে ধর্মান্তরিত ব্রিটিশ সাংবাদিক লরেন বুথের আত্মজীবনীমূলক বইয়ের মঞ্চায়নের ঘোষণা

১১ ফেব্রুয়ারি,২০১৯

ইসলামে ধর্মান্তরিত ব্রিটিশ সাংবাদিক লরেন বুথের আত্মজীবনীমূলক বইয়ের মঞ্চায়নের ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
লন্ডন: বিখ্যাত লেখক, সাংবাদিক এবং ইসলাম ধর্ম গ্রহণকারী লরেন বুথ তার নিজের জীবনী ভিত্তিক বই ‘Finding Peace in the Holy Land’ এর মঞ্চায়িত করার ঘোষণা দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সালে বার্তা সংস্থা এএনিউজকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে যুক্তরাজ্যের এই সাংবাদিক নিজের ইসলাম ধর্ম গ্রহণের কথা জানান।

তিনি তখন বলেছিলেন, তিনি যিশু খ্রিস্টের উপর বিশ্বাস হারিয়ে ফেলেননি বরং ২০০৮ সালে ফিলিস্তিন সফরের সময় তা আরো বৃদ্ধি পেয়েছে।

লরেন বুথ বলেন, ‘আমি সেখানে যিশুকে খুঁজতে গিয়েছি কিন্তু আমি সেখানকার লোকজনের আচরণের মধ্যে মুহাম্মদ(সা.) কে খুঁজে পেয়েছি। আমি সেখানে এমন সত্য খুঁজে পেয়েছি যার সম্পর্কে এর পূর্বে আমি কিছুই জানতাম না। আমি মধ্যপ্রাচ্য সম্পর্কে জানতাম না, এমনকি কারা ঠিক আরব ভূমিসমূহ দখল করে রেখেছে তা সম্পর্কেও সঠিকভাবে জানতাম না। আমি তখন আরবদের সম্পর্কে ভীত ছিলাম।’

লরেন বুথ ২০১৮ সালের নভেম্বর মাসে তার জীবনী ভিত্তিক বই ‘Finding Peace in the Holy Land’ প্রকাশ করেন এবং তিনি এটিকে পাঠকদের জন্য অনেক রকমের বার্তা এবং প্রশ্নের উত্তর দিয়ে সাজিয়েছেন।

তিনি বলেছেন, তিনি তার বইটি শুধুমাত্র নিজের সম্পর্কে বলার জন্য প্রকাশ করেন নি।

তিনি বলেন, ‘আমি সৃষ্টিকর্তার একজন দাস, একজন মা এবং অন্য সবার মতই একজন।’

তিনি বলেন, ‘তিনি চান ফিলিস্তিনি জনগণের সংগ্রাম সম্পর্কে লিখতে যাতে করে এর মাধ্যমে তাদের সাহায্য করা যায় এবং তাদের বার্তাসমূহ বিশ্বের কাছে পৌঁছানো যায়।’

তিনি মুসলিমদের প্রতি বৈষম্য সম্পর্কে বলেন, ‘আমরা যারা মুসলিম তাদের নিকট জানতে চাওয়া হয়, তুমি কি পাথর যুগের মানুষদের বিশ্বাস কর? কেন তুমি হিজাব পরিধান কর? তোমার মাথা থেকে তা সরিয়ে নাও।’

লরেন বুথ বলেন ২০০৮ সালে রমজান মাসে তিনি যখন ফিলিস্তিনের গাজায় সফর করেন তখন তিনি সেখানে অপরিমেয় শান্তি অনুভব করেন, যা তিনি ইতোপূর্বে কখনো অনুভব করেন নি।

তিনি বলেন, ‘যদি এটিই বিশ্বাস হয়, তবে আমি এতে প্রবেশ করতে চাই।’

প্রসঙ্গত, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে গাজার পানযোগ্য পানির মধ্যে ৯০ শতাংশই লবণাক্ত এবং তা পানের অযোগ্য।

গাজার পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার দুরবস্থার কারণে সেখানকার পানিতে শতকরা ৯৭ শতাংশ ক্লোরাইড অথবা নাইট্রেটের মিশ্রণ পাওয়া যায়।

লরেন বুথ বলেন, ‘আমাদের গাজার পানিতে বিষক্রিয়া ঘটানো এবং এর পরিবেশ বিপর্যয়ের কথা আলোচনা করা প্রয়োজন। এটি ইসরাইল কর্তৃক তৈরি একটি কৃত্রিম দুর্যোগ। একটি একটি যুদ্ধাপরাধ।’

তিনি বলেন, ‘লোকজন ভ্রমণ পছন্দ করেন। আমরা এখন একটি গল্প বলা মন নিয়ে বেঁচে থাকি। আজকের সোশ্যাল মিডিয়ার কারণে আমাদের একে অন্যের গল্পে অংশ নেয়ার যোগ্যতা তৈরি হয়েছে এমনটি ব্যবসার ক্ষেত্রে দেখা যায় না।’

১৯৯৭ সাল থেকে সাংবাদিকতা করে আসা লরেন বুথ বার্তা সংস্থা সিএনএন, আল-জাজিরা, দ্যা ডেইলি মেইল সহ অনেক জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যমে লিখে থাকেন।

চলতি বছরের আগস্ট মাসে অনুষ্ঠিতব্য Edinburgh Festival Fringe এ তার বইয়ের মঞ্চায়ন করতে পারবেন বলে তিনি তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

তিনি বলেন, ‘এখন সময় বিনোদনের এবং গল্প বলার জনপ্রিয়তা দিন দিন বেড়ে চলেছে। মঞ্চ উঠে আলোচনা করা যেখানে লোকজন সত্যকার ভাবেই অনেক বড় ধারণা নিয়ে সংযুক্ত হয় এবং তাদের হৃদয় আর মন খোলা থাকে। সচরাচর মুসলিমরা এমনটি করেন না এবং আল্লাহর ইচ্ছায় আমি তা করতে যাচ্ছি।’

প্রসঙ্গত, লরেন বুথের লেখা ‘Finding Peace in the Holy Land’ নামের বইটি অ্যামাজন ডট কম থেকে কিনতে পাওয়া যায়।

সূত্র: আরাবআমেরিকাননিউজ ডট কম।

মন্তব্য

মতামত দিন

ইউরোপ পাতার আরো খবর

খেলাধুলায় মুসলিম শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে ব্রুনেল বিশ্ববিদ্যালয়ে স্পোর্টস হিজাব চালু

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনলন্ডন: চলতি মাসের ১১ তারিখ সোমবার বার্তা সংস্থা বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে যে, লন্ডন ভিত্তিক . . . বিস্তারিত

মানুষের স্মৃতি চুরি করবে হ্যাকাররা

ডেস্ক নিউজআরটিএনএনলন্ডন: কল্পনা করুন যে, আপনি ইন্সটাগ্রামের ফিডের মতো আপনার স্মৃতিগুলো স্ক্রল করে দেখছেন। বিশদভাবে দেখছে . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com