গাজায় ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞ: আব্বাসকে এরদোগানের ফোন

১৫ মে,২০১৮

গাজায় ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞ: আব্বাসকে এরদোগানের ফোন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
আঙ্কারা: গাজায় ইসরাইলি হত্যাযজ্ঞের পর সোমবার গভীর রাতে ফিলিস্তিনি নেতা মাহমুদ আব্বাসের সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যেপ এরদোগান।

জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাসের স্থানান্তর ও ফিলিস্তিনিদের বিরুদ্ধে ইসরাইলি হামলার বিষয় নিয়ে মত বিনিময় করেন বলে তুর্কি প্রেসিডেন্ট কার্যালয় সূত্র জানিয়েছে।

টেলিফোনে এরদোগান ইসরাইলি এই আক্রমণের নিন্দা করেন এবং সকল শহীদদের প্রতি আল্লাহর করুণা কামনা করেন।

সোমবার ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে গাজায় কমপক্ষে ৫৮ জন বিক্ষোভকারী নিহত হয়েছেন। ফিলিস্তিনি কর্মকর্তারা বলছেন, তেল আবিব থেকে মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে সরিয়ে নেওয়ার ঠিক কয়েক ঘণ্টা আগে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের উপর ইসরাইলি বাহিনী গুলি চালায়।

গুলিতে আহত হয়েছে আরো দুই হাজারেরও বেশি মানুষ। গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই গাজা-ইসরাইল সীমান্তে ফিলিস্তিনিদের বিক্ষোভ চলছে। যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে ইসরাইল। কিন্তু ইউরোপসহ সারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশ এর তীব্র নিন্দা জানিয়েছে।

তেলআবিব থেকে যুক্তরাষ্ট্রের দূতাবাস জেরুজালেমে সরিয়ে নেওয়ার সিদ্ধান্ত হওয়ার পর থেকেই ফিলিস্তিনিরা এর বিরুদ্ধে বিক্ষোভ করে আসছে। আজ যখন আর কয়েক ঘণ্টা পরেই মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে, তখন ইসরাইলি নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে এতো ব্যাপক রক্তপাতের ঘটনা ঘটলো।

১৯৬৭ সালের মধ্যপ্রাচ্য যুদ্ধের পর থেকে ইসরাইল পূর্ব জেরুসালেম দখল করে রেখেছে। পূর্ব জেরুজালেম তারা গড়ে তুলেছে দু'লাখ ইহুদির জন্যে বহু বসতি। আন্তর্জাতিক আইনে এসব বসতি অবৈধ।

একসময় জেরুজালেম বহু দেশের দূতাবাস ছিলো। কিন্তু ১৯৮০ সালে ইসরাইল জেরুসালেমকে রাজধানী হিসেবে ঘোষণা করার পর বহু দেশ সেখান থেকে তাদের দূতাবাস সরিয়ে নেয়। কিন্তু গত বছরের ডিসেম্বর মাসে মার্কিন দূতাবাস সরিয়ে নেওয়ার ব্যাপারে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ঘোষণার পর পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয়ে ওঠে।

এদিকে, গাজা সীমান্তে ইসরাইলি সামরিক বাহিনীর বর্বর হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদে ইসরাইল ও যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূতদের প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছে আঙ্কারা। এছাড়াও, ৫৮ ফিলিস্তিনি হত্যার নিন্দা জানিয়ে দেশটি তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছে।

সোমবার তুর্কি উপ-প্রধানমন্ত্রী বেকির বোজদাগ এসব তথ্য জানান।

অন্যদিকে, মার্কিন দূতাবাস জেরুজালেমে স্থানান্তরেরকে প্রতিবাদে আঙ্কারায় হাজার হাজার মানুষ জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করেছে। এই বিক্ষোভের পরিপ্রেক্ষিতে ইসরাইল ও যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূতদের প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয় তুরস্ক।

তুর্কি বিক্ষোভকারীরা এসময় যুক্তরাষ্ট্র ও ইসরাইলের পতাকা পুড়িয়ে দিয়ে এবং ইসরাইল-গাজা সীমান্তে ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদ করেন।

বিক্ষোভকারীরা বিভিন্ন প্রতিবাদী ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড বহন করেন। এসব ব্যানারে লেখা ছিল: ‘আল কুদুস মুসলমানদের’।
তারা পবিত্র যুদ্ধ এবং শহীদ হওয়ার আহ্বান জানিয়ে স্লোগান দেয়।

একজন প্রতিবাদকারী আমেরিকানদের ‘কুকুর’ বলে সম্বোধন করে বলেন, ‘জেরুজালেম আমাদের, এটা আমাদের হবে।’

ইসরাইলি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ইমানুয়েল নাহশোন জানান, ইসরাইলে নিযুক্ত তুর্কি রাষ্ট্রদূতকে প্রত্যাহার করে নেয়ার বিষয়ে তারা অবগত আছেন। তবে এখনো পর্যন্ত আনুষ্ঠানিক কোনো নোটিস পাননি বলে তিনি জানিয়েছেন।

এর আগে, গাজা উপত্যকায় গণহত্যার প্রতিবাদে দক্ষিণ আফ্রিকা ইসরাইলে নিযুক্ত তার রাষ্ট্রদূতকে অবিলম্বে প্রত্যাহারের ঘোষণা দেয়।

গত সপ্তাহব্যাপী চলা ‘রিটার্ন মার্চ’ বা নিজ ভূমিতে ফেরার দাবিতে বিক্ষোভ করে আসছেন ফিলিস্তিনিরা। সোমবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র জেরুজালেমে তার নতুন দূতাবাস উদ্বোধন করলে তারা তীব্র বিক্ষোভ দেখান।

মন্তব্য

মতামত দিন

অন্যান্য পাতার আরো খবর

‘জাতীয় লজ্জা’র জন্য ক্ষমা চাইলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনক্যানবেরা: রাষ্ট্রের দিক থেকে গাফিলতি রয়েছে স্বীকার করে যৌন হেনস্থার শিকার শিশু এবং তাদের অভিভা . . . বিস্তারিত

প্রশান্ত মহাসাগরীয় তিন দ্বীপে সুনামি সতর্কতা জারি

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনসিডনি: প্রশান্ত মহাসাগরে ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর তিনটি দ্বীপ নিউ ক্যালিডনিয়া, ফিজি ও ভানুয়াতুতে সুন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com