বিশ্বের ক্ষমতাধর কে এই নারী?

২২ সেপ্টেম্বর,২০১৭

নিউজ ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: নাম তার মাদাম জিজেল ইয়াজ্জি। বয়স ৫০ বছর। তার দাবি, তার জন্ম লেবাননে। বেড়ে উঠেছেন বিভিন্ন দেশে। যুক্তরাষ্ট্র, স্পেন, কলম্বিয়া, ভেনেজুয়েলা, কিউবায় তার অবাধ চলাচল। তিনি অনেক ক্ষমতাধর। দুটি দেশের প্রভাবশালী দুই প্রেসিডেন্টের স্ত্রী তিনি!

বিলাসী জীবনযাপনে অভ্যস্ত এই নারীর মুখোমুখি হতে চেয়েছিল যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ওয়াশিংটন পোস্ট। মার্কিন দৈনিকের হাতে থাকা অসংখ্য অভিযোগের প্রমাণ উড়িয়ে দিয়েছেন তিনি। ওয়াশিংটন পোস্টের সঙ্গে কথা বলবেন বললেও শেষমেশ তা আর হয়নি। তবে মঙ্গলবার এই নারীকে নিয়ে এক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

রহস্যময়ী এই নারী দাবি করেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মেয়ে ইভানকা ট্রাম্পের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রয়েছে। পয়সাকড়ির অভাব নেই তার। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা ও মেরিল্যান্ডসহ বিশ্বের অনেক দেশেই বাড়ি ও সম্পদ রয়েছে।

জিজেল ইয়াজ্জির দাবি, মিসরের ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি তার স্বামী! তবে এ খবর আর কেউ জানেন না। তার দাবি, যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে সিসির ফোনালাপ করিয়ে দিয়েছেন তিনিই। ট্রাম্পের সঙ্গে সিসির সুসম্পর্কের কারণও নাকি তিনি!

ভেনেজুয়েলার প্রয়াত প্রেসিডেন্ট হুগো চাভেজ তার স্বামী ছিলেন বলেও জিজেল দৃঢ় গলায় দাবি করেন! কিন্তু এর কোনো প্রমাণ তিনি দেখাতে পারেননি। এছাড়া হুগো চাভেজ ও সিসির সঙ্গে কবে তার বিয়ে হয়েছে, তা জিজেল জানাননি।

এই দুই প্রভাবশালী প্রেসিডেন্টের সঙ্গে তার গোপনে বিয়ে হয়েছে বলে তিনি দাবি করেছেন। প্রভাবশালী হওয়ায় প্রেসিডেন্ট স্বামীদের ইচ্ছায় তিনি বিয়ের তথ্য চাপা রেখেছেন বলেও তার দাবি।

তিনি দাবি করেন, ভেনেজুয়েলার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের ব্যবসা-বাণিজ্যেও নাকি তার হাত রয়েছে। ঘানার সাবেক প্রেসিডেন্ট জন কুফুয়োরের সঙ্গেও ঘনিষ্ঠতা ছিল তার। এ নিয়ে ঘানার বিভিন্ন গণমাধ্যম ও ব্লগে লেখালেখি হয়েছিল।

ট্রাম্পের মেয়ে ইভানকা ট্রাম্পের সঙ্গে তার ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ রয়েছে জানিয়ে ইভানকার কাছে নাকি তার মর্যাদা অনেকটা মায়ের মতোই এবং হোয়াইট হাউসে তার বসারও ব্যবস্থা আছে বলে দাবি করলেও হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, জিজেল নামে হোয়াইট হাউসে কেউ কাজ করেন না।

জিজেলের বিষয়ে খোঁজখবর নেওয়া শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্রের মেরিল্যান্ড অ্যাটর্নির কার্যালয়। ব্যক্তিগত জেট বিমানে চলাচল করা এই নারীর তথ্যগুলো কতটা সঠিক, তা নিয়ে সংশয় থেকেই যাচ্ছে।

মন্তব্য

মতামত দিন

অন্যান্য পাতার আরো খবর

‘জাতীয় লজ্জা’র জন্য ক্ষমা চাইলেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনক্যানবেরা: রাষ্ট্রের দিক থেকে গাফিলতি রয়েছে স্বীকার করে যৌন হেনস্থার শিকার শিশু এবং তাদের অভিভা . . . বিস্তারিত

প্রশান্ত মহাসাগরীয় তিন দ্বীপে সুনামি সতর্কতা জারি

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনসিডনি: প্রশান্ত মহাসাগরে ভয়াবহ ভূমিকম্পের পর তিনটি দ্বীপ নিউ ক্যালিডনিয়া, ফিজি ও ভানুয়াতুতে সুন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com