সর্বশেষ সংবাদ: |
  • ভৈরবে আওয়ামী লীগ-বিএনপি সংঘর্ষে তিন পুলিশসহ আহত ১২, দোকানপাট ভাঙচুর
  • তারেক রহমানের ভিডিও কনফারেন্স বিএনপির অভ্যন্তরীণ বিষয়
  • বিএনপির মনোনয়ন বোর্ডে তারেক রহমানের অংশগ্রহণের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ আওয়ামী লীগের, তারেক রহমানের অংশগ্রহণ নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন : কর্নেল (অব.) ফারুক খান
  • জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার আপিল
  • জাতীয় নির্বাচনের কারণে এবার থার্টিফার্স্ট নাইট উদযাপন করা যাবে না, আতশবাজিও নিষিদ্ধ : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী
  • ২০০২ টি মামলার বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে ইসিকে বিএনপির চিঠি
  • ঐক্যফ্রন্টের চমকপদ ইশতেহার আসছে, ফোকাস পয়েন্ট থাকবে সুশাসন কায়েম
  • জরিপের ওপর ভিত্তি করে দল ও জোটের মনোনয়ন দেয়া হবে: ব্রিফিংয়ে কাদের

বিশ্লেষণ

গাজায় অবরোধ বাড়াতে ব্যস্ত ইসরাইল, কিন্তু বল হামাসের কোর্টে

১২ জুলাই,২০১৮

গাজায় অবরোধ বাড়াতে ব্যস্ত ইসরাইল, কিন্তু বল হামাসের কোর্টে

আমোস হেরেল: সোমবার গাজা স্ট্রিপ থেকে পণ্য হস্তান্তর হ্রাসের ইসরাইলি ঘোষণার ফলে গাজা সীমান্তের পরিস্থিতি নিয়ে রাজনৈতিক ও সামরিক নেতৃত্বের মধ্যে হতাশা তৈরি হয়েছে। অগ্নিসংযোজক ঘুড়ির প্রতিক্রিয়ায় ইসরাইলি প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার শক্ত পদক্ষেপে বাস্তবিক অর্থে গাজার পক্ষে আশানুরূপ ফলাফল বয়ে আনতে পারেনি। অর্থনৈতিক অবরোধ অনুমোদনের অর্থই হচ্ছে অগ্নি ঘুড়ির আগুন থেকে বাঁচার জন্যে ক্রমবর্ধমান দাবি হিসেবে কেবিনেট কর্তৃক তাৎক্ষণিক পাল্টা ব্যবস্থা, যে আগুন ঘুড়ির কাজে জড়িত অনেক শিশু ও কিশোর। অবরোধ শক্তিশালীকরণ প্রকৃতপক্ষে গাজায় হামাস সরকারকে তার দৃষ্টিভঙ্গি পরিবর্তন করতে অনুপ্রাণিত করতে পারে- কিন্তু এই মুহূর্তে কোনো নিশ্চয়তাও নেই যে, ইসরাইল যে পথে আগাতে চায় সেসবের অগ্রগতি হবে।

চার বছর আগে শুরু হওয়া সীমান্ত সংরক্ষণ অভিযান এর সমাপ্তির পর থেকে এ পর্যন্ত শুধু এই সপ্তাহে ইসরাইল কেরাম শালোম ক্রসিং বন্ধ করা থেকে বিরত ছিল। যখন এর প্রতিক্রিয়ায় এটি রকেট হামলার মাধ্যমে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছিল এবং অন্য দিন বন্ধ ছিল এপ্রিল মাসে, যখন এর শুরুর একদিন পরেই ফিলিস্তিনি যোদ্ধারা যৌথ বাহিনীর গাজানের পাশে বাড়ির ছাদে আগুন দিয়েছিল। তবে নতুন সিদ্ধান্ত খাদ্য ও ওষুধ আনতে প্রযোজ্য নয়। অপরপক্ষে এই অবরোধ গাজা স্ট্রিপে, প্রথম এবং সর্বাগ্রে বিল্ডিং উপকরণের মধ্যে ও পণ্য আমদানির উপর প্রভাব ফেলবে এবং গাজা থেকে বহির্বিশ্বে কৃষি পণ্যের ন্যূনতম রপ্তানি বন্ধ করে দেবে।

৩০ শে মার্চ সীমান্ত রেখা বরাবর যে বিক্ষোভ শুরু হয় সেই বিপ্লবের সময়, ফিলিস্তিনিরা ঘুড়ি দিয়ে আঘাত করার ধারণা লাভ করে। বিক্ষোভ অংশগ্রহণ যখন হ্রাস পেতে থাকে, তখনই আগুন ঘুড়ি এবং বেলুন আন্দোলনের প্রধান মাধ্যম হয়ে ওঠে। প্রতিরক্ষা মন্ত্রী অবিগডর লিবারম্যান সোমবার বলেন যে, সেই সময় থেকে প্রায় ২৮,০০০ প্রাকৃতিক বন এবং গাজা সীমান্তে ব্যাপক কৃষি জমির ফসল পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে, ‘এর এক একটি এলাকা Netanya বা Rehovot শহরের আকার।’

ধীরে ধীরে, হামাস এই আক্রমণের দায়িত্ব নিতে শুরু করে। হামাসের সহযোগীরা অগ্নি ঘুড়ির যোগান দিত এবং তাদের সহযোগীদের নিকট যোগান দেয়া ঘুড়ি উড়ানো হয় সীমান্ত সংলগ্ন এলাকায়। যখন ইসরাইলের প্রতিরক্ষা বাহিনী এই কর্মীদের দ্বারা ব্যবহৃত গাড়িগুলির উপর বিমান হামলা করে এবং হামাসের সামরিক স্থাপনায় হামলা করে তখন সংগঠন তার প্রতিক্রিয়া পরিবর্তন করে। গত দেড় মাসে, তারা সীমান্ত সংলগ্ন গ্রামগুলিতে বেশ কয়েকবার রকেট হামলা করেছিল - এবং ইসরায়েলকে আকাশপথে হামলা বন্ধ করার জন্য বাধ্য করা হয়েছিল, ধ্বংসযজ্ঞের জন্য যে রকেটের ফায়ারিংগুলি হিংস্রতার একটি প্রধান মহড়া হতে পারে, যা ইসরাইল চায় না।

কিন্তু মাঠ ও জঙ্গল এখনও জ্বলছে। গত সপ্তাহে প্রতিদিন গড়ে ১০ থেকে ২০ টি আগুন ধরা পড়েছিল। প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু, যিনি ঘটনাগুলি নিয়ে খুব কমই আলোচনা করেন (এবং মার্চ মাসে একবারও বাসিন্দাদের অভিযোগে কর্ণপাত করা হয়নি) তিনিও শস্য অন্যত্র সরিয়ে নিতে লিবারম্যান এবং আইডিএফ প্রধান গদি ইসিঙ্কটের সুপারিশ অনুমোদন করেন। এর উদ্দেশ্য হামাস এই ইঙ্গিত দেয়া যে, এই পদক্ষেপ চলমান সহিংসতা কমিয়ে আনবে। কিন্তু এই নতুন কৌশল এর প্রভাব সম্পর্কে ভবিষ্যদ্বাণী করা কঠিন।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে মিশর গাজার অধিবাসীদের রাফা ক্রসিংয়ের মাধ্যমে সিনাইতে পৌঁছানোর জন্য সহজ করে দিয়েছে এবং শত শত ট্রাককে গাজার অঞ্চল থেকে গাজা পর্যন্ত পণ্য সরবরাহ করার অনুমতি দিয়েছে। যদি মিশর এখন চাপ বৃদ্ধি করে, হামাসকে ইচ্ছাকৃতভাবে বর্ধিত মধ্যস্থতা করতে এবং গুরুতর আলোচনায় অংশগ্রহণে বাধ্য করতে পারে।

আল-হায়াত পত্রিকা বরাত দিয়ে বলা হচ্ছে, এই পরোক্ষ আলোচনার জন্যে- ইসরাইল এবং হামাস একই টেবিলে বসতে অস্বীকার করে। ইতিমধ্যে মিশর, কাতার, জার্মানী এবং জাতিসংঘের মহাসচিবের একজন দূতসহ বিভিন্ন চ্যানেলের মাধ্যমে এই অঞ্চলে আলোচনার অংশগ্রহণের আয়োজন করা হচ্ছে। আমরা যুক্তিসঙ্গতভাবে অনুমান করতে পারি যে, সদ্য ঘোষণা করা ইসরাইলি পদক্ষেপের সাথে আলোচনার চ্যানেলগুলির অগ্রগতি লক্ষ্য করা যাচ্ছে, যা আমরা এখনও এ সম্পর্কে কিছুই জানি না।

কান পাবলিক ব্রডকাস্টিং নিউজ ডিভিশনের সাথে একটি বিরল সাক্ষাৎকারে, এ অঞ্চলের কাতারের রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ আল-ইমাদি বলেছিলেন যে, যদি ইসরাইল গাজা স্ট্রিপ থেকে প্রায় ৫,০০০ শ্রমিককে ইসরাইলে কাজের জন্যে প্রবেশের অনুমতি দেয় তবে বিক্ষোভ ও অগ্নিকাণ্ডের হামলা বন্ধ হতে পারে। যেটি লিবারম্যানের সমর্থকসহ শিন বেয়িট নিরাপত্তা সেবাদানকারী সংস্থা নিরাপত্তা জনিত কারণে এ দাবির বিরোধিতা করে আসছে। ইমাদি নিখোঁজ হওয়া দুই ইসরাইলি নাগরিক এবং গাজা স্ট্রিপে আটককৃত দুইজন আইডিএফ সৈন্যের মৃতদেহ ফেরত নিয়ে মানবিক পদক্ষেপের শর্তে ইসরাইলি প্রচেষ্টারও প্রত্যাখ্যান করে।

ইমিডি বলে যে ‘বন্দিদের বিনিময়ে বন্দিদের’ প্রয়োজন - পশ্চিমাঞ্চলের ৫০ জনেরও বেশি হামাস সদস্যকে মুক্ত করা হয়েছে আইডিএফ সৈন্য গিলাদ শেলিদের মুক্তির বিনিময়ে এবং পরে ইসরাইল পুনরায় তাদের গ্রেপ্তার করে এই প্রতিক্রিয়ায় যখন তারা জুন ২০১৪ সালে তিনজন ইয়েশিভ শিক্ষার্থীকে অপহরণ করে। এটি হামাসের একটি পুরানো দাবি, যা অতীতেও ইসরাইলের পক্ষ থেকে এটাকে একটি অগ্রহণযোগ্য পূর্বশর্ত হিসেবে বর্ণনা করেছে।

কয়েক মাস আগে, সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান মেজর জেনারেল হার্জাল হলেভি তার বিদায়ের আগে মন্ত্রিসভা এবং নেসেট ফরেন এফেয়ার্স এবং ডিফেন্স কমিটিকে বলেন যে স্ট্রিপের পরিস্থিতি দুইটি দৃষ্টান্তের দিকে অগ্রসর হচ্ছে - আরেকটি রাউন্ড যুদ্ধ, বা আরো ব্যাপক চুক্তি যাতে গাজার মৌলিক অবস্থার উন্নতি অন্তর্ভুক্ত হবে। আর এটা একমাত্র সম্ভব কূটনৈতিক চ্যানেলের মাধ্যমে অর্জন করা।

তার শ্রোতাদের ধারণা ছিল যে তিনি দীর্ঘদিনের জন্য তৃতীয় বিকল্পটি অনুসরণ করা সম্ভব বলে বিশ্বাস করেন না। এদিকে, হেলভী দক্ষিণ কমান্ডের প্রধান হিসাবে তার নতুন দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন। যদি আজও যে নতুন কৌশলটি গ্রহণ করা হচ্ছিল তা হামাসকে পুনরায় আলোচনার চ্যানেলের দিকে ফিরিয়ে আনার জন্য দৃঢ় প্রত্যয় দেয় না, তাহলে আমরা অনুমান করতে পারি যে, সেখানে সামরিক ঘাঁটিটির দিকে যাওয়ার পথে তাদের পক্ষে অনিচ্ছা সত্ত্বেও পক্ষপাতিত্ব অব্যাহত থাকবে।

মন্তব্য

মতামত দিন

মধ্যপ্রাচ্য পাতার আরো খবর

ইরানকে সাথে নিয়ে মধ্যপ্রাচ্য সঙ্কট মোকাবেলা করবে ইরাক

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনবাগদাদ: ইরানের সঙ্গে সম্পর্ক ও অর্থনৈতিক সহযোগিতা আরও বাড়ানোর ব্যাপারে অত্যন্ত আন্তরিক ইরাক। রো . . . বিস্তারিত

তরুণ প্রজন্মকে জাগিয়ে তুলতে আবুধাবিতে ব্যতিক্রমধর্মী ইসলামি সংস্কৃতি ও শিল্প উৎসব

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনআবুধাবি: সংস্কৃতির চর্চাকে সঠিকভাবে তুলে ধরার জন্য শিল্পকলার গুরুত্বকে অবমূল্যায়ন করা যায় না। শ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com