সৌদি-পাকিস্তান যৌথ নৌ-মহড়া

১২ ফেব্রুয়ারি,২০১৮

সৌদি-পাকিস্তান যৌথ নৌ-মহড়া

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
রিয়াদ: পাকিস্তান নৌ বাহিনী ও সৌদি রাজকীয় নৌ বাহিনীর মধ্যে বৃহৎ আকারের যৌথ নৌ-মহড়া শুরু হয়েছে।

রবিবার আরব উপসাগরে সৌদি আরবের ইস্ট ফ্লিটের ‘কিং আবদুল আজিজ’ নৌ-ঘাঁটিতে এই মহড়া শুরু হয়।

সৌদি গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, রয়্যাল সৌদি নেভাল ফোর্সের সঙ্গে পাকিস্তানের নৌ-বাহিনী ওই মহড়া শুরু করেছে। এতে যথাক্রমে পাকিস্তান ও সৌদি আরবের যুদ্ধজাহাজ নাসিম আল বাহার-১১ ও দেরা আল শাহিল-৪ অংশ নিচ্ছে।

ইস্টার্ন ফ্লিটের কমান্ডার রিয়ার এডমিরাল লাফি বিন হুসাইন আল-হারবি বলেন, ‘অভিজ্ঞতা বিনিময়, যুদ্ধ প্রস্তুতি উন্নতকরণ এবং দুই দেশের মধ্যে সহযোগিতা জোরদার করাই এই যৌথ মহড়ার লক্ষ্য।’

তিনি আরো বলেন, ‘রয়্যাল সৌদি এয়ার ফোর্স ছাড়াও এই মহড়ায় পাকিস্তান ও সৌদি আরবের বেশ কয়েকটি যুদ্ধজাহাজ, বোট এবং ভার্টিক্যাল টেক-অফ এন্ড ল্যান্ডিং (ভিটিওএল) এয়ারক্রাফট অংশ নিচ্ছে।’

মহড়ার পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সাজির বিন রুফাইদ আল-ইনিজি বলেন, ‘মেরিন ও স্পেশাল নেভাল ফোর্সের অংশ গ্রহণে অনুষ্ঠিত এই মহড়ায় বাস্তব সামরিক অভিযান, প্রচলিত যুদ্ধ এবং মাইন এ্যাকশনা অপারেশনের অবিকল নকল করা হচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এই মহড়ায় তাজা গোলাবারুদ ব্যবহারের পাশপাশি ইন্টারসেপশন, ইন্সপেকশন ও কাউন্টার-পাইরেসি অপারেশন অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।’

সূত্র: আরব নিউজ

পাকিস্তানের প্রখ্যাত মানবাধিকারকর্মী আসমা জাহাঙ্গীর আর নেই
পাকিস্তানের খ্যাতনামা আইনজীবী ও মানবাধিকারকর্মী আসমা জাহাঙ্গীর (৬৬) মারা গেছেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। আজ রোববার পাকিস্তানের লাহারে তাঁর মৃত্যু হয়। মৃত্যুর সময় তিনি দুই মেয়ে ও এক ছেলে রেখে গেছেন।

আসমা জাহাঙ্গীরের পরিবার সূত্র জানায়, হৃদ্রোগে আক্রান্ত হওয়ার পর তাঁকে হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানেই তাঁর মৃত্যু হয়।

স্পষ্ট কথাবার্তা এবং মানবাধিকার বিষয়ে আপোসহীন অবস্থানের জন্য সুবিদিত ছিলেন এই মানবাধিকারকর্মী। পাকিস্তানের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে তাঁর ভূমিকা উজ্জ্বল।

১৯৫২ সালের জানুয়ারিতে লাহোরে জন্ম নেন আসমা জাহাঙ্গীর। কিনাইআর্ড কলেজ থেকে স্নাতক এবং পাঞ্জাব ইউনিভার্সিটি থেকে এলএলবি ডিগ্রি অর্জন করেন তিনি। এরপর তিনি লাহোর হাইকোর্টে যোগ দেন। পাকিস্তানের সুপ্রিম কোর্ট বার অ্যাসোসিয়শনের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট ছিলেন তিনি।

২০০৭ সালে পাকিস্তানে আইনজীবীদের ঐতিহাসিক আন্দোলেন সক্রিয় ভূমিকা ছিল আসমা জাহাঙ্গীরের। ওই আন্দোলনে অংশ নেওয়ার জন্য তাঁকে গৃহবন্দী করা হয়। পাকিস্তানের মানবাধিকার কমিশনের সহপ্রতিষ্ঠাতা ছিলেন তিনি।

মন্তব্য

মতামত দিন

মধ্যপ্রাচ্য পাতার আরো খবর

কুয়েতে ডিপফ্রিজে পাওয়া গেল ফিলিপিনো গৃহকর্মীর লাশ

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনকুয়েত: কুয়েতে নিখোঁজ এক ফিলিপিনো গৃহকর্মীর মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে তারই নিয়োগদাতার ফ্ল্যাটে . . . বিস্তারিত

সৌদি নারীরা সামরিক বাহিনীতে চাকরি করতে পারবে: নিরাপত্তা বিভাগ

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনরিয়াদ: সৌদি আরবের নারীদের জন্য সামরিক বাহিনীতে চাকরির সুযোগ দেয়া হয়েছে। দেশটির সরকার ঘোষণা করেছ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com