‘লেবাননের জনগণের ঐক্য হারিরিকে অবস্থান স্পষ্ট করতে বাধ্য করেছে’

১৪ নভেম্বর,২০১৭

লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
বৈরুত: লেবাননের প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরির পদত্যাগের ব্যাপারে দেশের জনগণ ঐক্যবদ্ধ অবস্থান নেয়ার কারণে হারিরি নিজের অবস্থান স্পষ্ট করতে বাধ্য হয়েছেন।

সৌদি আরব সফরে গিয়ে নিজের পদত্যাগের কথা ঘোষণা করে টানা এক সপ্তাহ অন্তর্ধানে ছিলেন সাদ হারিরি। অবশেষে রবিবার নিজের নীরবতা ভেঙে তিনি ঘোষণা করেন, নিরাপত্তাগত কারণে তিনি পদত্যাগ করেছেন এবং খুব শিগগিরই দেশে ফিরবেন।

গত ৪ নভেম্বর সাদ হারিরি প্রধানমন্ত্রীর পদ থেকে ইস্তফা দেয়ার ঘোষণা দিলেও এখনো প্রেসিডেন্ট আউন তার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করেননি। প্রেসিডেন্ট বলেন, সাদ হারিরি সশরীরে এসে নিজের পদত্যাগের কারণ না জানানো পর্যন্ত তিনি পদত্যাগপত্র গ্রহণের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবেন না।

হারিরি স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ঘোষণা দেয়ার পর সোমবার প্রেসিডেন্ট আউন বলেন, হারিরি পদত্যাগের ঘোষণা দেয়ার পরও লেবাননের জনগণ ঐক্যবদ্ধ থাকার কারণে দেশে বিদেশি হস্তক্ষেপের আশঙ্কা বাস্তবরূপ লাভ করেনি। সেইসঙ্গে আন্তর্জাতিক সমাজ লেবাননের পাশে দাঁড়িয়েছে।

আউন বলেন, সাদ হারিরি দেশে ফিরে আসার পর তার পদত্যাগ সংক্রান্ত সব জল্পনার অবসান হবে এবং সব ধরনের উদ্বেগ-উৎকণ্ঠাও দূর হবে।

সাদ হারিরি রবিবার লেবাননের আল-মুস্তাকবেল টেলিভিশনকে দেয়া লাইভ সাক্ষাৎকারে বলেন, তিনি দুই/তিন দিনের মধ্যে দেশে ফিরবেন এবং এরপর নিজের হাতে প্রেসিডেন্ট আউনের কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেবেন।

লেবাননের কর্মকর্তারা মনে করছেন, সৌদি আরবের চাপের মুখে প্রধানমন্ত্রী হারিরি রিয়াদ সফরে গিয়ে অপ্রত্যাশিত ও আকস্মিকভাবে নিজের পদত্যাগের কথা ঘোষণা করেছেন। তাদের মতে, লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর ক্ষতি করার লক্ষ্যে সৌদি সরকার সাদ হারিরিকে পদত্যাগে বাধ্য করেছে।

‘হারিরিকে আটক রেখে লেবাননের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে সৌদি’

লেবাননের ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হিজবুল্লাহর মহাসচিব সাইয়্যেদ হাসান নাসরুল্লাহ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরিকে আটক রেখে এবং তাকে পদত্যাগে বাধ্য করে লেবাননের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য যুদ্ধ ঘোষণা করেছে সৌদি আরব।

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে শুক্রবার সন্ধ্যায় হিজবুল্লাহ সমর্থকদের উদ্দেশে দেয়া ভাষণে তিনি একথা বলেন। ইমাম হোসেইন (আ)’র শাহাদাতের চেহলাম বার্ষিকী উপলক্ষে দেয়া তার এ ভাষণ টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়।

হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, ফিউচার দলের প্রধান ৪৭ বছর বয়সী প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরিকে সৌদি আরবে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল এবং তার সঙ্গে কাউকে যেতে দেয়া হয় নি। রিয়াদে যাওয়ার পর হারিরিকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয়। এ ঘটনার মধ্যদিয়ে সৌদি আরব লেবাননের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে মারাত্মকভাবে হস্তক্ষেপ করেছে।

হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, হারিরি যে ভাষায় পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন তা থেকে পরিষ্কার হয় যে, তাকে এসব বক্তব্য দিতে বাধ্য করা হয়েছে এবং তাকে এখন গৃহবন্দী করে রাখা হয়েছে।

হিজবুল্লাহ মহাসচিব বলেন, ‘হারিরি এখন সৌদি আরবে কারাবন্দী এবং নিজের দেশে ফিরতে পারছেন না। সৌদি আরব নিজের ইচ্ছা লেবানন সরকারের ওপর চাপিয়ে দিতে চাইছে। এখানকার বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের মধ্যে বিভেদের বীজ বোনার চেষ্টা করছে রিয়াদ এবং একে অপরের মুখোমুখি কর দিতে চাইছে।’

হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, ‘লেবাননে সামরিক আগ্রাসন চালানোর জন্য সৌদি আরব ইহুদিবাদী ইসরাইলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে এবং এ লক্ষ্য অর্জনে কোটি কোটি ডলার খরচ করতে প্রস্তুত রয়েছে। হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে যুদ্ধের অজুহাতে সৌদি আরব লেবাননকে ধ্বংস করতে চায়। এই সৌদি আরবই ছিল ২০০৬ সালে হিজবুল্লাহ-ইসরাইল যুদ্ধের প্রধান কারিগর।’

হাসান নাসরুল্লাহ বলেন, ‘সাদ হারিরিকে আটক রেখে তাকে অপমান করা হয়েছে এবং এ অপমান গোটা লেবাননের জনগণের জন্য অপমান। তাকে জোর করে পদত্যাগ করানো হয়েছে এবং এর কোনো মূল্য নেই।’

লেবাননের চলমান পরিস্থিতিতে প্রেসিডেন্ট মিশেল আউন চমৎকারভাবে দেশ সামলে নিচ্ছেন এবং তাকে কাজের ক্ষেত্রে সব দল ও মতের লোকজনকে সহযোগিতা করতে আহ্বান জানান হাসান নাসরুল্লাহ।

মন্তব্য

মতামত দিন

মধ্যপ্রাচ্য পাতার আরো খবর

সৌদিতে একদিনেই ৭,৫০০ ব্যক্তি আটক

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনরিয়াদ: সৌদি আরবে বসবাস ও শ্রম আইন লঙ্ঘনের দায়ে একদিনেই সাড়ে ৭ হাজার ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে। বৃ . . . বিস্তারিত

সৌদি প্রিন্সের পেছনে যে ভয়ঙ্কর লোকের কলকাঠি নড়াচড়া!

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনটএনরিয়াদ: সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান দুর্নীতিবিরোধী অভিযানের নামে শীর্ষস্থানীয় ব্যক্ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com