‘আমি হিরো হিরোই থেকে গেলাম, হিরোকে কেউ জিরো করতে পারবে না’

১০ ডিসেম্বর,২০১৮

‘আমি হিরো হিরোই থেকে গেলাম, হিরোকে কেউ জিরো করতে পারবে না’

নিজস্ব প্রতিবদেক
আরটিএনএন
ঢাকা: নির্বাচন কমিশনে আপিল করেও প্রার্থীতার বৈধতা না পাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করে হিরো আলম বলেছিলেন, ‘এখানে সবকিছু রাজনৈতিক চালে চলছে। আমি এর শেষ দেখে নিবো।’ শেষ পর্যন্ত শেষ দেখে নিলেন হিরো আলম। তার ভাষায় তিনি ইসিকে হাইকোর্ট দেখিয়ে দিলেন।

এ সময় তিনি আরও বলেন, ‘আমি হিরো হিরোই থেকে গেলাম। হিরোকে কেউ জিরো করতে পারবে না।’

সোমবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বগুড়া-৪ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল আলম ওরফে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র গ্রহণ করতে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। এর ফলে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী হতে তাঁর আর কোনো বাধা থাকল না।

হাইকোর্টের আদেশ পাওয়ার পর হিরো আলম সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমি এখন খুব খুশি। হাইকোর্টে যে ন্যায়বিচার পাওয়া যায়, তা প্রমাণিত হলো। ইসি যে বলছিল আমার ভোটার তালিকা ভুয়া, তা আজ মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে।

এ সময় হিরো আলম বলেন, ‘ ইসিকে হাইকোর্ট দেখিয়ে দিলাম।’

আলম বলেন, ‘প্রথমে রিটার্নিং কর্মকর্তা আমার প্রার্থিতা বাতিল করেছিলেন। এরপর আপিল করলে নির্বাচন কমিশনও (ইসি) প্রার্থিতা বাতিল করে। পরে হাইকোর্টে আপিল করলে আজ হাইকোর্ট আমার প্রার্থিতা গ্রহণের জন্য ইসিকে নির্দেশ দেন ও আমাকে প্রতীক বরাদ্দেরও নির্দেশনা দিয়েছেন। এখন আমি আমার নির্বাচনী এলাকায় (বগুড়া-৪) গিয়ে প্রচারণা চালাব।’

হেভিওয়েট প্রার্থীদের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতার বিষয়ে জানতে চাইলে হিরো আলম বলেন, ‘মার্কা দেখে ভোট দেওয়ার দিন শেষ। মার্কা বা দল কোনো ফ্যাক্টর নয়। ব্যক্তিই ফ্যাক্টর। নির্বাচনী মাঠে ব্যক্তি হিসেবে আমিই জনপ্রিয়তায় এগিয়ে ও শক্তিশালী প্রার্থী। ভোটারেরা সঙ্গে থাকলে জয়ের ব্যাপারে আমি আশাবাদী।’

বিএনপির দুর্গ হিসেবে পরিচিত বগুড়া-৪ আসনে নির্বাচনী মাঠে রয়েছেন ধানের শীষের প্রার্থী মোশারফ হোসেন, আওয়ামী লীগ সমর্থিত-জাসদের প্রার্থী ও বর্তমান সাংসদ এ কে এম রেজাউল করিম তানসেন ও জাতীয় পার্টির প্রার্থী হাজি নুরুল আমিন বাচ্চু।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে অংশ নিতে বগুড়া-৪ আসনে জাতীয় পার্টি থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন হিরো আলম। কিন্তু দলটির মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র দাখিল করেন তিনি। গত ২ ডিসেম্বর যাচাই-বাছাই করে হিরো আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল করেন বগুড়া জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তা। হিরো আলমের মনোনয়নের সমর্থনে ১০ জন ভোটারের স্বাক্ষরে গরমিল থাকার অভিযোগে তাঁর মনোনয়নপত্র বাতিল করেন তিনি।

এরপর মনোনয়ন ফিরে পেতে রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল করেন তিনি। গত ৬ ডিসেম্বর ইসি তাঁর আপিল নামঞ্জুর করে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সিদ্ধান্ত বহাল রাখে। পরে ইসির সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে গতকাল হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিট দায়ের করেন হিরো আলম।

সেই রিটের শুনানি শেষে আজ হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ হিরো আলমের মনোনয়ন গ্রহণ করতে ইসিকে নির্দেশ দেন। হিরো আলমের আইনজীবী হিসেবে ছিলেন অ্যাডভোকেট কাওছার আলী।

মন্তব্য

মতামত দিন

বিনোদন পাতার আরো খবর

দুষ্ট লোকের মন্দ কথায় কান দিবেন না, আমি ঋণখেলাপি নই: ফারুক

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ঢাকা-১৭ আসনের আওয়ামী লীগের প্রার্থী বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেতা ফারুক বলেছেন, দুষ্ট লোকের মন . . . বিস্তারিত

নেতাকর্মীদের উপর আ’লীগের হামলার কারণে নির্বাচনী প্রচারণায় একাই কনকচাঁপা

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনসিরাজগঞ্জ: সিরাজগঞ্জ-১ (কাজিপুর-সদরের একাংশ) আসনে দলীয় নেতাকর্মী ছাড়াই স্বামীকে সাথে নিয়ে ভোটের . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com