পড়ার সময় একেবারে পাইনি, দেখতে হবে কে কী বলছে: সালমান খান

০৭ আগস্ট,২০১৮

পড়ার সময় একেবারে পাইনি, দেখতে হবে কে কী বলছে: সালমান খান

বিনোদন ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: সালমান খান। বলিউডের সুলতান খ্যাত এই অভিনেতার আপকামিং সিনেমা 'ভারত'। সেই ছবিতে সালমানের বিপরীতে অভিনয়ের কথা ছিল প্রিয়াঙ্কার। কিন্তু প্রেমিক নিকের সঙ্গে বাগদানের জন্য নাকি সালমান খান অভিনীত ভারত ছেড়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। আরভারত ছাড়ার পরই হলিউডের এক ছবিতে তাঁর কাজের কথা সামনে আসে। আর তারপরই প্রিয়াঙ্কার ওপর বেজায় চটেছিলেন সলমান খান। এবার প্রকাশ্যেই প্রিয়াঙ্কার ভারত ছাড়া নিয়ে কথা বললেন।

আজ সামনে এসেছে সালমান খানের বোন অর্পিতা খানের স্বামী আয়ুষ শর্মার লাভরাত্রির ট্রেইলার। সেই অনুষ্ঠানেই উপস্থিত ছিলেন সালমান খান। আর থাকবেন নাই বা কেন, তার প্রযোজনা সংস্থাতেই তো আয়ুষ অভিষেক করছেন।

ট্রেইলার লঞ্চের অনুষ্ঠানে এক সংবাদমাধ্যমের পক্ষ থেকে প্রশ্ন করা হয়েছিল, শোনা যাচ্ছে প্রিয়াঙ্কার ভারত ছাড়ার পর আপনি রেগে গিয়েছিলেন? জবাবে সালমান বলেন, তাই নাকি। তিন চারদিন ধরে আমি এই কাজে (লাভরাত্রির ট্রেলার লঞ্চের) ব্যস্ত ছিলাম। তাই খবরের কাগজ পড়ার সময় একেবারে পাইনি। দেখতে হবে কে কী বলছে।

এখানেই থামেননি সালমান। সংবাদমাধ্যমের ওপর অসন্তুষ্ট হয়ে তিনি বলেন, আমার মনে হয় আপনারা ভুল সাংবাদিক সম্মেলনে চলে এসেছেন। বিগবস ও ভারতের সাংবাদিক সম্মেলনে আপনাদের অবশ্যই ডাকা হবে।

গত সপ্তাহে প্রিয়াঙ্কার ভারত ছাড়ার কথা টুইট করে জানান পরিচালক আলি আব্বাস জাফর। এরপরই ছবিতে ক্যাটরিনাকে সই করা হয়। শোনা যাচ্ছিল, প্রিয়াঙ্কার এমন কাজে চটেছিলেন সালমান। আর কখনও প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে ছবি করবেন না বলেও জানিয়েছিলেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

বিনোদন পাতার আরো খবর

এনগেজমেন্টে প্রিয়ঙ্কাকে কী দিলেন শ্বশুর-শাশুড়ি?

বিনোদন ডেস্কআরটিএনএনমুম্বই: শনিবার মুম্বইতে এনগেজমেন্ট হয়েছে প্রিয়ঙ্কা চোপড়া এবং নিক জোনাসের। আত্মীয় এবং ঘনিষ্ঠ বন্ধুরা . . . বিস্তারিত

রিমান্ড শেষে অভিনেত্রী নওশাবা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের চলমান আন্দোলনের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে গুজব . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com