শুধু আজান শুনতেই মসজিদের পাশে বাড়ি কেনেন বাবা: দেবাশীষ

১৯ এপ্রিল,২০১৭

বিনোদন ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: শুধু আজান শোনার জন্যই মসজিদের পাশে বাড়ি কিনেছিলেন দেশের প্রয়াত চলচ্চিত্র পরিচালক দীলিপ বিশ্বাস। এ তথ্য জানিয়েছেন বিখ্যাত ওই নির্মাতার ছেলে দেবাশীষ বিশ্বাস। দেবাশীষ নিজেও মনে করেন, ‘পৃথিবীর সবচেয়ে সুমধুর ধ্বনির নাম আজান।’

বুধবার নিজের ফেসবুক টাইমলাইনে এ কথা জানিয়েছেন জনপ্রিয় উপস্থাপক ও পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস।

ফেসবুকে তিনি লিখেছেন, ‘১৯৯২ সালের কথা। আমার বাবা দীলিপ বিশ্বাস চিরতরে বসবাসের জন্য একটি ফ্ল্যাট ক্রয় করার কথা ভাবছেন। সবাই তাকে গুলশান-বনানী-বারিধারায় সেটা কেনার উপদেশ দিলেন। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে সে পরীবাগ নামক জায়গায় ফ্ল্যাট টি কিনলেন, যেটি কিনা তখন থেকে এখন পর্যন্ত আমাদের একমাত্র বর্তমান ও স্থায়ী নিবাস।"

দেবাশীষ আরো লিখেছেন, মসজিদ সংলগ্ন পরীবাগে এত দাম দিয়ে কেন ফ্ল্যাট কেনা হলো, বাবাকে এই প্রশ্ন করা হলে তিনি সবসময় বলতেন, ‘অন্য কোন জায়গায় চাইলেই তো কিনতে পারতাম, কিন্তু ভোর বেলায় মসজিদ থেকে ফজরের আজান তো শুনতে পেতাম না। তাই এখানেই ফ্ল্যাট টা কিনেছি, যাতে ফযরের আজান শুনে আমার ঘুমটা ভাংগে।’

সনু নিগমকে ধিক্কার জানিয়ে নির্মাতা দেবাশীষ লিখেছেন, ‘আমিও মনে করি, পৃথিবীর সবচেয়ে সুমধুর ধ্বনির নাম আজান। আমি যতবার যতগুলো মাজার-মসজিদে গিয়েছি, অন্য অনেকেরই হয়তো যাওয়া হয়নি। তাই বলছি- রাহাত ফতেহ আলী খান, আতিফ আসলাম, মোহিত চৌহান, অরিজিতদের যাতাকলে পিষ্ট, দিশেহারা, নেশায় আসক্ত, খ্যাতিক্ষুধায় আক্রান্ত, মানসিকভাবে অসুস্থ সনু নিগমকে ধিক্কার জানানোর ভাষাও আজ আমি হারিয়ে ফেলেছি।’

মন্তব্য

মতামত দিন

বিনোদন পাতার আরো খবর

কী সম্পর্ক সিনেমার পদ্মাবতী আর গুজরাট ভোটের?

বিনোদন ডেস্কআরটিএনএননয়াদিল্লি: ভারতের বলিউডে চলতি বছরের সম্ভবত সবচেয়ে প্রতীক্ষিত ছবির নাম ছিল পদ্মাবতী - যা প্রায় সাতশ . . . বিস্তারিত

বিয়ে করলেন বিরাট-অানুশকা, দেখুন প্রথম ছবি

বিনোদন ডেস্কআরটিএনএনকলকাতা: জল্পনার অবসান। ইতালির তাস্কানিতে বিয়ে করলেন বিরাট কোহলি-অানুশকা শর্মা। টুইট করে বিয়ের ছবি শে . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com