দেশের ৮০ শতাংশ গাড়ি হবে চালকবিহীন: জয়

০৭ ডিসেম্বর,২০১৭

দেশের ৮০ শতাংশ গাড়ি হবে চালকবিহীন: জয়

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, প্রাথমিকে তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হবে বলে।

বৃহস্পতিবার ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে দ্বিতীয় দিনে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে তিনি এ কথা বলেন।

মন্ত্রীপর্যায়ের এই সম্মেলনে ভুটান, মালদ্বীপ, কম্বোডিয়াসহ পাঁচ দেশের মন্ত্রী ও সাত দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

জয় বলেন, তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষাকে প্রাথমিকসহ প্রতিটি স্তরেই বাধ্যতামূলক করা হবে। এর পাশাপাশি আধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায় দেশের উন্নয়নে নতুন নতুন প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে। সারা বিশ্ব প্রযুক্তিতে অভাবনীয় উন্নতি সাধন করছে। ২০২৫ সালের মধ্যে ৮০ শতাংশ গাড়ি হবে চালকবিহীন। প্রযুক্তির এই সুফল বাংলাদেশও পেতে চায়।

তিনি বলেন, বেসরকারি খাতকে সঙ্গে নিয়ে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে কাজ করছে সরকার। জনগণ তথ্যপ্রযুক্তির সুফলও ভোগ করছে। বাংলাদেশে প্রযুক্তির ব্যবহার বেড়েছে বহুগুণ। এই ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডেই বিশ্বের উন্নত রোবট সোফিয়াকে।

জয় বলেন, ভবিষ্যতে মোবাইল সুপারকম্পিউটিং, চালকহীন গাড়ি, কৃত্রিম বুদ্ধিমান রোবট, নিউরো প্রযুক্তির ব্রেন, জেনেটিক এডিটিং দেখতে পাবে। প্রযুক্তির এসব সম্ভাবনাকে কাজে লাগিয়ে দেশে উন্নয়নের নতুন দিগন্ত উন্মোচন করতে হবে।

জয়কে হত্যা চেষ্টা প্রতিবেদন দাখিল ৪ জানুয়ারি
ঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে অপহরণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে দায়ের করা মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ আবারও পিছিয়েছে। আজ মামলাটির তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য ধার্য ছিল। কিন্তু মামলার তদন্ত কর্মকর্তা প্রতিবেদন দাখিল করতে পারেননি।

সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম সারাফুজ্জামান আনছারী প্রতিবেদন দাখিলের নতুন দিন ধার্য করে আগামী ৪ জানুয়ারি প্রতিবেদন দাখিলের জন্য দিন ধার্য করেছেন আদালত। প্রধানমন্ত্রীর ছেলে জয়কে হত্যার ষড়যন্ত্রের এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে এ নিয়ে ১৮ বারের মতো সময় পেলেন পুলিশের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার হাসান আরাফাত।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১১ সালের সেপ্টেম্বর মাসের আগে যেকোনো সময় থেকে এ পর্যন্ত বিএনপির সাংস্কৃতিক সংগঠন জাসাসের সহসভাপতি মোহাম্মদ উল্লাহ মামুনসহ বিএনপি ও দলটির নেতৃত্বাধীন জোটভুক্ত অন্যান্য দলের উচ্চ পর্যায়ের নেতারা (আসামি) রাজধানীর পল্টনের জাসাস কার্যালয়ে, আমেরিকার নিউ ইয়র্ক শহরে, যুক্তরাজ্য ও বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় একত্রিত হয়ে যোগসাজশে প্রধানমন্ত্রীর ছেলে সজীব ওয়াজেদ জয়কে আমেরিকায় অপহরণ করে হত্যার ষড়যন্ত্র করেন। এ ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে বিএনপির হাইকমান্ড দেশ ও দেশের বাইরে থেকে অর্থায়ন করছে।

এই ঘটনায় ২০১৫ সালের ৪ আগস্ট ডিবির পরিদর্শক ফজলুর রহমান এ বিষয়ে পল্টন থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন, যা পরে মামলায় রূপান্তরিত হয়। মামলাটিতে সিনিয়র সাংবাদিক শফিক রেহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরবর্তীতে তিনি উচ্চ আদালত থেকে জামিন পান। অন্যদিকে আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহামুদুর রহমানকে কারাগারে থাকা অবস্থায় এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়। পরে তিনিও এ মামলায় উচ্চ আদালত থেকে জামিন পান।

মন্তব্য

মতামত দিন

প্রযুক্তি পাতার আরো খবর

সোফিয়াকে বাংলাদেশে আনতে খরচ কোটি টাকা!

প্রযুক্তি ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: ইতিমধ্যে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে যন্ত্রমানব সোফিয়া। এবারের ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের প্রধান আকর্ . . . বিস্তারিত

সোফিয়ার সঙ্গে যেসব কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী

প্রযুক্তি ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তাসম্পন্ন যন্ত্রমানব সোফিয়ার সঙ্গে কথা বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। চার . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com