ছাত্রলীগের দু’গ্রুপের মারামারি, কুমেক বন্ধ ঘোষণা

০৫ জানুয়ারি,২০১৮

কুমেক

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
ঢাকা: আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ছাত্রলীগের দু'গ্রুপের সংঘর্ষে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ (কুমেক) বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। সংঘর্ষের এই ঘটনায় অন্তত ১০ ছাত্র আহত হয়েছেন।

আজ শুক্রবার সকাল ৯টায় কলেজের সম্মেলন কক্ষে অ্যাকাডেমিক কাউন্সিলের সভায় আজ থেকে ১১ জানুয়ারি পর্যন্ত মেডিকেল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করা হয়। এরপর থেকে শিক্ষার্থীরা হল ত্যাগ করতে শুরু করেছেন।

ঘটনা তদন্তে কলেজের উপাধ্যক্ষ ডা. জাহাঙ্গীর হোসেনকে প্রধান করে পাঁচ সদস্যের একটি কমিটি গঠন করা হয়েছে। তিন কর্মদিবসের মধ্যে নিরপক্ষ প্রতিবেদন জমা দিতে তাদের বলা হয়েছে।

এদিকে ক্যাম্পাসে পরিস্থতি শান্ত রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

জানা যায়, গতকাল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত আড়াইটায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ ছাত্রলীগের আবদুল হান্নান ও হাবিবুর রহমান পলাশ গ্রুপের নেতাকর্মীরা সশস্ত্র অবস্থায় আবাসিক হোস্টেলে সংঘর্ষে জড়ান। এতে অন্তত ১০ জন ছাত্র আহত হন। এদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তৌফিক ও ইফরান নামের দুই ছাত্রকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর আহতদের কুমেক ও নগরীর বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আজ শুক্রবার দুপুরে কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ডা. মো. মহসিন উজ-জামান জানান, গভীর রাতে ছাত্ররা সংঘর্ষে লিপ্ত হলে কিছু ছাত্র আহত হয়েছে। আহতদের ঢাকা ও কুমিল্লায় চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর দোষীদের বিরুদ্ধে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ওসি (তদন্ত) মো. সালাহ উদ্দিন জানান, খবর পেয়ে রাতে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে ক্যাম্পাসে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে বলে তিনি জানান।

কুমিল্লার মেয়র সাক্কুকে আত্মসমর্পনের নির্দেশ
দুর্নীতির মামলা থেকে কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের প্রথম মেয়র মনিরুল হক সাক্কুর অব্যাহতি কেন বাতিল হবে না, জানতে চেয়ে রুল জারি করেছে হাইকোর্ট। একই সাথে তাকে আত্মসমর্পণের নির্দেশও দেয়া হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার দুদকের মামলায় সাক্কুকে অব্যাহতির আদেশের বিরুদ্ধে দুদকের করা এক আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি সহিদুল করিমের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ রুলসহ এই আদেশ দেন। তবে আত্মসমর্পণ করে সাক্কু জামিন চাইলে তা বিবেচনা করতে বলেছেন আদালত।

জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপনের অভিযোগে দুদকের করা ওই মামলায় বিচারিক আদালত গত বছরের ২১ নভেম্বর সাক্কুকে অব্যাহতি দেন। এ আদেশের বিরুদ্ধে দুদক হাইকোর্টে আবেদন করে, যা আজ বৃহস্পতিবার শুনানির জন্য ওঠে।

আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী খুরশীদ আলম খান। রুলে অব্যাহতির ওই আদেশ কেন বাতিল ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে। ৪ সপ্তাহের মধ্যে সাক্কুসহ বিবাদীদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

মন্তব্য

মতামত দিন

শিক্ষা পাতার আরো খবর

সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা পাবে স্কুলগুলো

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: সারাদেশে ৩০০০ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের একাডেমিক ভবনসহ অন্যান্য ভবন নির্মাণ করার উদ্যোগ নিয়েছে . . . বিস্তারিত

অনশনে অসুস্থ ১৭৮, সুস্পষ্ট ঘোষণা না দেয়া পর্যন্ত কর্মসূচি চলবে

নিজস্ব প্রতিবিদকআরটিএনএনঢাকা: জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মাদ্রাসা জাতীয়করণে দাবিতে আমরণ অনশনে টানা ৭ম দিনে ১৭৮ জন ইবতেদায়ি . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com