সর্বশেষ সংবাদ: |
  • প্রার্থিতা নিয়ে খালেদা জিয়ার বিভক্ত আদেশের পূর্ণাঙ্গ আদেশ না লিখেই প্রধান বিচারপতির কাছে পাঠানোয় তা আবার সংশ্লিষ্ট বেঞ্চে ফেরত পাঠিয়েছেন প্রধান বিচারপতি
  • নির্বাচনী সহিংসতায় প্রাণহানি ও মির্জা ফখরুলের গাড়িবহরে হামলার ঘটনায় নির্বাচন কমিশন বিব্রত, আর কোনো অঘটন কাম্য নয় : সিইসি
  • ভোট ৫০ ভাগ সুষ্ঠু হলেই সরকারি দলকে নির্বাচনে খুঁজে পাওয়া যাবে না, তাই সন্ত্রাসের আশ্রয় নিয়েছে আওয়ামী লীগ : ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ
  • নাশকতার মামলায় রাজধানীর গুলশানের বাসা থেকে বিএনপি নেতা রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুকে গ্রেপ্তার করেছে ডিবি পুলিশ
  • বিএনপি নেতা ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলুর মনোনয়নপত্র গ্রহণ করতে হাইকোর্টের দেওয়া স্থগিতাদেশ বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ

চবি’র খালেদা জিয়া হলের নাম মুছে ফেলেছে ছাত্রলীগ, জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি সাদা দলের

০৬ ডিসেম্বর,২০১৮

চবি’র খালেদা জিয়া হলের নাম মুছে ফেলেছে ছাত্রলীগ, জড়িতদের গ্রেপ্তারের দাবি সাদা দলের

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
চট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি)দেশনেত্রী খালেদা জিয়া হলের নাম মুছে ফেলেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ। খালেদা জিয়া নামের স্থলে বীর প্রতীক তারামন বিবির নামে হলটি নামকরণের দাবিও জানায় ছাত্রলীগ নেতারা। এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে শিক্ষকদের সংগঠন সাদা দল।

গতকাল বুধবার বিকেলে গণমাধ্যমে পাঠানো সংগঠনটির মুখপাত্র ড. আতিয়ার রহমান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে এ প্রতিক্রিয়া জানানো হয়।

এ ঘটনার সাথে জড়িতদেরকে গ্রেপ্তারের মাধ্যমে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করা এবং একই সাথে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নামে নামফলক অবিলম্বে পুণঃস্থাপনের দাবি জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার নামে স্থাপিত বিশ্ববিদ্যালয়ের হলের নাম মুছে ফেলা একটি সম্পূর্ণ পরিকল্পিত সন্ত্রাসী ঘটনা। যা বাংলাদেশের রাজনীতির প্রতিহিংসাপরায়ণতারই সুস্পষ্ট প্রতিফলন। বিশ্ববিদ্যালয়ের হলের নামকরণ বিশ্ববিদ্যালয় সর্বোচ্চ পর্ষদ সিন্ডিকেটের মাধ্যমে হয়ে থাকে এবং এটির পরিবর্তন, পরিমার্জন অবশ্যই প্রশাসনিক সিদ্ধান্তের বিষয়। এর ব্যত্যয় হওয়াটা একটি নৈরাজ্যকর এবং সন্ত্রাসী কর্ম হিসেবে ধর্তব্য।’

একই ঘটনার প্রতিবাদে বিবৃতি দিয়েছে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় জাতীয়তাবাদী শিক্ষক ফোরাম। সংগঠনটির দপ্তর সম্পাদক মুহাম্মদ যাকারিয়া স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানানো হয়।

অন্যদিকে একই ঘটনার প্রতিবাদে ৪৪ শিক্ষকের স্বাক্ষর সম্বলিত বিবৃতি গণমাধ্যমে পাঠিয়েছে জিয়া পরিষদ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা। বিবৃতিতে সংগঠনের সভাপতি অধ্যাপক ড. সিদ্দিক আহমেদ চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. মো. আবদুল মান্নানের স্বাক্ষর রয়েছে।

এদিকে নাম মুছে ফেলার ঘটনার পর মঙ্গলবার সন্ধ্যায় এক বিবৃতি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল। বিবৃতিতে তারা এ ঘটনাকে রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত বলে উল্লেখ করেন।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার বিকেল ৩টার দিকে ‘দেশনেত্রী খালেদা জিয়ার হলের’ নাম ফলক মুছে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। এছাড়া হলের নাম ফলকও উপড়ে ফেলা হয়।

মন্তব্য

মতামত দিন

প্রধান খবর পাতার আরো খবর

ভিকারুননিসা শিক্ষিকার মুক্তির দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের নবম শ্রেণির ছাত্রী অরিত্রী অধিকারীর আত্মহত্যার ঘটনায় . . . বিস্তারিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ঘ’ ইউনিটের পুনঃভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাবি: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ২০১৮-২০১৯ শিক্ষাবর্ষে সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘ঘ’ (GHA) . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com