পরীক্ষা চলাকালে ইন্টারনেট বন্ধের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন

১২ ফেব্রুয়ারি,২০১৮

বিটিআরসি ফাইল ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: চলতি এসএসসি পরীক্ষা (২০১৮) চলাকালে ইন্টারনেট আড়াই ঘণ্টা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত পরিবর্তন হয়েছে। আজ সোমবার সকালে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) থেকে ইন্টারনেট সেবা স্বাভাবিক রাখতে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষকে নির্দেশনা দেওয়া হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিটিআরসি চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ বলেন, ইন্টারনেট নিয়ে দেওয়া আগের সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করা হয়েছে।

সরকারের নানা পদক্ষেপের পরও প্রশ্ন ফাঁস থামানো যায়নি। গতকাল রবিবার তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিষয়ের পরীক্ষার আগে ইন্টারনেটের গতিও কমানো হয়েছিল, কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। যথারীতি আগাম ঘোষণা দিয়ে আইসিটির প্রশ্নপত্র ফাঁস হয়েছে। এ নিয়ে শুরু থেকে সাতটি বিষয়ের প্রশ্নপত্রই ফাঁস হলো।

এই পরিস্থিতিতে প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে আজ থেকে ২৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত পরীক্ষার দিন আড়াই ঘণ্টা করে ইন্টারনেট সাময়িকভাবে বন্ধের সিদ্ধান্ত নিয়েছিল সরকার।

বিটিআরসির সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বাংলাদেশে বর্তমানে ইন্টারনেট ব্যবহারকারী ৮ কোটির বেশি। এর মধ্যে সাড়ে ৭ কোটি মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী, বাকি ৫০ লাখ ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট ব্যবহার করেন।

এর আগে দেশে ধারাবাহিক জঙ্গি হামলা ও হত্যাকাণ্ডের প্রেক্ষাপটে জঙ্গিদের যোগাযোগের পথ বন্ধ করার কারণ দেখিয়ে ২০১৫ সালের ১৮ নভেম্বর দেড় ঘণ্টা ইন্টারনেট বন্ধ রাখা হয় বাংলাদেশে। পরে ইন্টারনেট চালু হলেও ২২ দিন বাংলাদেশে ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগের বেশ কয়েকটি অ্যাপ ব্যবহারের সুযোগ বন্ধ রাখে সরকার।

বাল্যবিয়ের কষাঘাত, এসএসসি পরীক্ষা দিতে এসেই মা হলেন শীলা!
দিনাজপুর: দিনাজপুরের সেতাবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় কেন্দ্রে বাল্যবিয়ের কষাঘাতে জর্জরিত এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর সন্তান প্রসবের মতো ঘটনা ঘটেছে।

জানা যায়, মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট (এসএসসি) পরীক্ষা দিতে এসে মা হয়েছেন শীলা আক্তার নামে এই পরীক্ষার্থী।

পরীক্ষার কেন্দ্রে বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন বালিকা শীলা আক্তার। ওই পরীক্ষা কেন্দ্রে দায়িত্বরত শিক্ষক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় সূত্রে জানায়, সারাদেশে এসএসসি পরীক্ষা শুরু হয়েছে বৃহস্পতিবার। লাখো শিক্ষার্থীর মতো পরীক্ষার হলে গিয়েছিলেন শীলা আক্তারও।

যথারীতি বাংলা প্রথম পত্রের প্রশ্ন হাতে পেয়ে উত্তরপত্রে লিখতেও বসেছিলেন। এমন সময় শুরু হয় প্রসব বেদনা। হলের দায়িত্বরত শিক্ষক প্রথমে বুঝে উঠতে পারছিলেন না। তবে কিছুক্ষণের মধ্যেই তাদের কাছে বিষয়টি স্পষ্ট হয়।

শীলাকে দ্রুত হাসপাতালে নেয়ার ব্যবস্থা করা হয়। সেখানে পৌঁছেই পুত্র সন্তান জন্ম দেন এ কিশোরী। বৃহস্পতিবার দিনাজপুর শিক্ষা বোর্ডের অধীনে বি সেতাবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

শীলার বাড়ি উপজেলার চেংগন গ্রামে। তার বাবার নাম নজিমউদ্দীন। জেবি স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছেলন শীলা আক্তার।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, বোচাগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি রাখা হয়েছে শীলাকে। সন্তানসহ সুস্থ আছেন শীলা।

মা ও ছেলে দুইজনই সুস্থ আছেন বলে চিকিৎসক ডা. নাজমুল ইসলাম জানান।

এক বছর আগে কাহারোল উপজেলার উচিৎপুর গ্রামের মো. মামুনের সঙ্গে বিয়ে হয় তার। অন্তঃসত্ত্বা অবস্থায়ই পরীক্ষার প্রস্তুতি নিয়ে বৃহস্পতিবার হলে হাজির হয়েছিলেন শীলা।

জানা যায়, জেলার কাহারোল উপজেলার উচিৎপুর গ্রামের মো. মামুনের সাথে ১ বছর আগে শীলা আক্তারের বিয়ে হয়। গর্ভবতী অবস্থায় আজ বোচাগঞ্জের সেতাবগঞ্জ পাইলট বালিকা উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে পরীক্ষা চলাকালীন সময়ে তার প্রসব বেদনা উঠে। এসময় তাকে দ্রুত বোচাগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। সেখানে স্বাভাবিক ভাবেই একটি ছেলে সন্তানের জন্ম দেন শীলা।

এদিকে কেন্দ্র সচিব মো. আমিনুল ইসলাম বলেন, ‘পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ পরই ওই ছাত্রীর প্রসব বেদনা কথা জানতে পেরে আমরা তাকে সুচিকিৎসার জন্য দ্রুত হাসপাতালে প্রেরণ করি।’ শীলা বোচাগঞ্জের চেংগন গ্রামের নজিম উদ্দীনের কন্যা এবং স্থানীয় জেবি স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী।

মন্তব্য

মতামত দিন

প্রধান খবর পাতার আরো খবর

দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি সমমানের স্বীকৃতি মন্ত্রিসভায় অনুমোদন

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ‘কওমি মাদ্রাসার দাওরায়ে হাদিসের সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি সমমানের স্বীকৃতি দিয়ে আইনের অ . . . বিস্তারিত

বেসরকারি ২৭১ কলেজকে জাতীয়করণ করা হলো

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: নতুন করে দেশের ২৭১টি কলেজকে সরকারি করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায় . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com