রুয়েটে ছাত্রদের অবরোধের পর অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘটে শিক্ষকরা

০৬ ফেব্রুয়ারি,২০১৭

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
রাজশাহী: অবরোধের মুখে শিক্ষার্থীদের দাবি মেনে নিলেও অবরোধের অপমানে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) শিক্ষকরা।

বিশ্ববিদ্যালয়টির শিক্ষক সমিতির সভাপতি নীরেন্দ্রনাথ মুস্তাফি জানান, আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য শিক্ষকরা সব ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন।

উপাচার্যসহ কয়েকজন শিক্ষককে ৩৩ ক্রেডিট বাতিলের দাবিতে শনিবার দুপুর থেকে রবিবার দুপুর পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা অবরুদ্ধ করে রাখে। রবিবার দুপুরে কর্তৃপক্ষ দাবি মেনে নিলে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

শিক্ষকনেতা নীরেন্দ্রনাথ বলেন, শিক্ষকদের সম্পর্কে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অপ্রীতিকর মন্তব্য করা হয়েছে।

তিনি বলেন, শিক্ষকদের ২৪ ঘণ্টা অবরুদ্ধ করে রেখে অপমান-অপদস্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত শিক্ষার্থীদের শাস্তি না হওয়া পর্যন্ত ক্লাস-পরীক্ষা বর্জনের কর্মসূচি বহাল থাকবে বলে বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়েছে।

রুয়েট কর্তৃপক্ষ সম্প্রতি এক বর্ষের শিক্ষার্থীদের পরের বর্ষে উত্তরণের জন্য ৪০ ক্রেডিটের মধ্যে ন্যূনতম ৩৩ ক্রেডিট পাওয়ার বাধ‌্যবাধকতা দিয়ে নতুন নিয়ম করে।

দেশের অন্য কোনো প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘এত কঠোর নিয়ম’ নেই দাবি করে আগের ‘ক্যারি অন’ পদ্ধতিতে ফিরে যেতে ২৮ জানুয়ারি আন্দোলন শুরু করে ২০১৩-১৪ ও ২০১৪-১৫ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা।

উল্লেখ্য, ‘ক্যারি অন’ পদ্ধতিতে দুই-এক বিষয়ে উত্তীর্ণ না হলেও পরের সেমিস্টারের সে বিষয়টিতে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ ছিল।

মন্তব্য

মতামত দিন

প্রধান খবর পাতার আরো খবর

বহিষ্কৃত ছাত্রও নিয়মিত বাস করছেন ঢাবি’র হলে

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনঢাবি: ভর্তি যুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করে মো. বা . . . বিস্তারিত

২৯ কর্মকর্তাকে ঢাকার বাইরে বদলি করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: প্রশ্নপত্র ফাঁস ঠেকাতে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদফতর (মাউশি), ঢাকা শিক্ষাবোর্ড এবং জাতীয় . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com