আত্মঘাতী বাবা-মা'র অবুঝ শিশুটির এখন কি হবে?

১৭ জুলাই,২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
আরটিএনএন
মসুল: বাবা-মা আইএসে যোগ দিয়েছেন। একবারও ছোট্ট শিশুটির কথা ভাবেননি। ক্ষুধা-তৃষ্ণায় ধ্বংসস্তুপের নিচে আটকা পড়া শিশুটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। মসুল শহর থেকে আরো যাদের উদ্ধার করা হয়েছে তারা জানিয়েছেন, সদ্য উদ্ধার হওয়া ওই শিশুটির বাবা-মা দু’জনেই আইএসের হয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। অনাথ এই শিশুটি এখন কোথায় যাবে, কার কাছে যাবে এই প্রশ্নের উত্তর কারোই জানা নেই।

মসুলের ওই এলাকা থেকে আইএসকে তাড়াতে সক্ষম হয়েছে ইরাকি বাহিনী। তারা ধ্বংসস্তুপের নিচে এবং এর আশে পাশে জীবতদের উদ্ধারে তল্লাশি চালাচ্ছেন। সেনারা যখন উদ্ধারকাজ করছিলেন তখন তারা দু’টি শিশুকে দেখতে পেলেন। শিশু দু'টি ধ্বংসস্তুপের মধ্যে হামাগুরি দিয়ে চলাফেরা করছিল।

একটি শিশু ধ্বংসস্তুপ থেকে কিছু একটা তুলে খাচ্ছিল। সেখানকার লোকজন খাবার পানির তীব্র সংকটের মধ্যেই দিন কাটাচ্ছে। সেনারা ধ্বংসস্তুপের কাছে একটি শিশুর কান্নার শব্দ শুনতে পান। সেখানে গিয়ে তারা শিশুটিকে উদ্ধার করেন। পরে তারা জানতে পারেন যে, শিশুটির বাবা-মা আত্মঘাতী হয়েছেন। অনাথ এই শিশুটির কোনো আত্মীয়-স্বজনকেও খুঁজে পাওয়া যায়নি।

মসুল থেকে আইএস বিদায় হয়েছে। কিন্তু আইএস জঙ্গিদের তাণ্ডবে শহরটি যে পরিমান ক্ষতবিক্ষত হয়েছে সেই স্মৃতি চিরদিন থাকবে।

মন্তব্য

মতামত দিন

জীবন পাতার আরো খবর

কিশোরদের হতাশা বা বিষণ্নতা পিতার সঙ্গে সম্পৃক্ত: গবেষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনলন্ডন: নতুন এক গবেষণায় বলা হচ্ছে- যেসব পিতা-মাতা বিষণ্নতায় ভোগেন, তাদের সন্তানদের ওপর এর ব্যা . . . বিস্তারিত

আজানের সুমধুর ধ্বনি শান্তির অনুভূতি সৃষ্টি করে, আনন্দে কেঁদে ফেলি: ধর্মান্তরিত সান্দ্রা

আন্তর্জাতিক ডেস্কআরটিএনএনঅটোয়া: তিনি একজন ইহুদি নারী। জীবনের নানা বাধা-বিঘ্নতায় ছিলেন কিছুটা ক্লান্ত। শান্তির সন্ধানে ছু . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com