ঢাবি ছাত্রীর মৃত্যুর ঘটনায় সেন্ট্রাল হাসপাতালের পরিচালক গ্রেপ্তার

১৯ মে,২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: রাজধানীর সেন্ট্রাল হাসপাতালে ভুল চিকিৎসায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী আফিয়া আক্তার চৈতীর মৃত্যুর ঘটনায় দায়েরকৃত মামলার হাসপাতালের পরিচালক ডা. এম এ কাশেমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে ধানমন্ডি থানার উপপরিদর্শক (এসআই) মশিউল আলম এই প্রতিবেদককে নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাসপাতালে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

আফিয়া জাহান চৈতি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের প্রথম বর্ষের এই ছাত্রী ছিলেন। তার গ্রামের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জে।

সেন্ট্রাল হাসপাতাল সূত্র জানায়, বুধবার বিকেলে অসুস্থ অবস্থায় আফিয়াকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। দুপুরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হলে তার সহপাঠীরা উত্তেজিত হয়ে পড়েন। এ সময় তারা হাসপাতালের জরুরি বিভাগ, অভ্যর্থনা, পরিচালকদের কক্ষ ভাঙচুর করেন। একপর্যায়ে উত্তেজিত শিক্ষার্থীরা হাসপাতালের পরিচালক এমএ কাশেমকে ধানমন্ডি থানায় নিয়ে যান।

এ বিষয়ে পুলিশের ধানমন্ডি জোনের সহকারী কমিশনার আবদুল্লাহেল কাফী জানান, আফিয়াকে ভর্তির পর সেন্ট্রাল হাসপাতাল থেকে জানানো হয় তার ক্যান্সার হয়েছে। পরে জানানো হয় তার ডেঙ্গু হয়েছে। দুপুরে তার মৃত্যুর পর ভুল চিকিৎসার অভিযোগ আনেন শিক্ষার্থীরা। এর পর হাসপাতালে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় ৯ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন ঢাবি ভারপ্রাপ্ত প্রক্টর আমজাদ আলী। পরে হাসপাতালের পরিচালক ডা. এম এ কাশেমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

মন্তব্য

মতামত দিন

শিক্ষাঙ্গন পাতার আরো খবর

আরো ৭ হাজার শিক্ষক এসপিওভুক্তির পথে

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: সাত হাজারের বেশি শিক্ষককে এমপিওভুক্তির চিন্তাভাবনা করছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। এতে অতিরিক্ত ব্ . . . বিস্তারিত

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষক বহিষ্কার

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনরাবি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) দুই শিক্ষককে বহিষ্কার করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বুধবার . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com