ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চট্টগ্রামে ডাক্তারের আত্মহত্যা, স্ত্রী আটক

০১ ফেব্রুয়ারি,২০১৯

ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে চট্টগ্রামে ডাক্তারের আত্মহত্যা, স্ত্রী আটক

নিউজ ডেস্ক
আরটিএনএন
ঢাকা: বাংলাদেশের চট্টগ্রামে এক ডাক্তার দম্পতির মধ্যে কলহের জের ধরে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী। এরপর পুলিশ এই আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে স্ত্রীকে আটক করেছে।

চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের এডিশনাল পুলিশ কমিশনার আমেনা বেগম জানিয়েছেন, ডাক্তার মোস্তাফা মোরশেদ আকাশ তার আত্মহত্যার কারণ হিসেবে যে নোট রেখে গেছেন এবং ফেসবুকে যে স্ট্যাটাস দিয়ে গেছেন, তাতে স্ত্রী তানজিলা হক চৌধুরি মিতুকে দায়ী করেন। সে কারণে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাকে আটক করা হয়েছে। প্রতিবেদন বিবিসির।

এই ডাক্তার দম্পতির ঘটনা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় এবং জনগণের মধ্যে যেরকম ব্যাপক আলোচনা চলছে, তার পরিপ্রেক্ষিতেই তারা তানজিলা হক চৌধুরি মিতুকে আটক করেন বলে জানান আমেনা বেগম।

ঘটনার বিবরণ দিয়ে এই পুলিশ কর্মকর্তা বলছেন, ডাক্তার মোস্তাফা মোরশেদ আকাশ গত বৃহস্পতিবার ভোরে আত্মহত্যা করেন। সেখানে একটি সুইসাইড নোট পাওয়া যায়।

ফেসবুকেও তিনি একটা স্ট্যাটাস দেন, যেখানে তিনি এর জন্য স্ত্রীকে দায়ী করেছেন। তার পরিবারও তাৎক্ষণিক এক অভিযোগ জানায় যে, পারিবারিক অশান্তির কারণেই ডাক্তার আকাশ আত্মহত্যা করেছেন।

আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে এর মধ্যে একটি মামলা করা হয়েছে নিহত ডাক্তার আকাশের পরিবারের তরফ থেকে। এতে তানজিলা হক চৌধুরি মিতু ছাড়াও আসামী করা হয়েছে তার মা, দুই বোন ও কথিত এক প্রেমিক সহ আরও পাঁচজনকে।

তবে এই মামলা দায়ের হওয়ার আগেই পুলিশ স্ত্রী তানজিলা হক চৌধুরি মিতুকে আটক করে।

এর কারণ সম্পর্কে পুলিশ কর্মকর্তা আমেনা বেগম বলেন, ‘যেহেতু সোশ্যাল মিডিয়াতে এবং এখানকার জনগণের মধ্যে বিষয়টি আলোড়ন তুলেছিল, সে কারণে এটা বার্ণিং ইস্যু ছিল। তাই আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এনেছি।’

কিন্তু সুইসাইড নোটে কারো নামে অভিযোগ থাকলেই কি তাকে গ্রেফতার বা আটক করে নিয়ে আসা যায়?

আমেনা বেগম বলেন, ‘জিজ্ঞাসাবাদের জন্য যে কাউকেই আনা যায়। আমরা তাকে এখনো গ্রেফতার দেখাইনি। আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করছি, কী কারণে এই ঘটনাটি ঘটলো।’

আত্মহত্যার প্ররোচনা বলতে ঠিক কী বোঝায় জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আত্মহত্যার প্ররোচনা অনেক কিছুই হতে পারে। অনেক আচরণও হতে পারে। অশ্লীল আচরণ, দুর্ব্যবহারও হতে পারে।’

‘যেমন ঢাকায় হয়েছে, একজন ছাত্রী আত্মহত্যা করেছেন তার বাবার সাথে শিক্ষকরা দুর্ব্যবহার করার কারণে। এই দুর্ব্যবহারটাও আত্মহত্যার প্ররোচনা।’

উল্লেখ্য সম্প্রতি ঢাকার একটি নামী স্কুল, ভিকারুন্নিসা নুন স্কুলের এক ছাত্রী আত্মহত্যা করার পর ঐ স্কুলেরই এক শিক্ষিকাকে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেয়ার অভিযোগে।

সূত্র: বিবিসি।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

বরিশাল মেডিকেলের ডাস্টবিন থেকে ২২ নবজাতক শিশুর মরদেহ উদ্ধার, দেশজুড়ে তোলপাড়

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনবরিশাল: বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেলের ডাস্টবিন থেকে ২২ অপরিণত শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ নিয় . . . বিস্তারিত

চট্টগ্রামে বস্তিতে আগুন লেগে ৯ জন নিহত

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনচট্টগ্রাম: চট্টগ্রাম নগরের চাক্তাই এলাকার একটি বস্তিতে আগুন লেগে ৮ জন নিহত হয়েছেন। পুড়ে গেছে প্র . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com