জাবালে নূরের চালকের পর এবার মালিকের স্বীকারোক্তি

০৯ আগস্ট,২০১৮

চালকের পর এবার জাবালে নূরের মালিকের স্বীকারোক্তি

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: এবার জাবালে নূর পরিবহনের মালিক শাহাদাত হোসেন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। চালকের এর আগে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন একই পরিবহনের চালক।

জাবালে নূর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় দুই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পর নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে এক সপ্তাহের বেশি সময় অচল ছিল রাজধানীর সড়ক।

দুই শিক্ষার্থীকে চাপা দেওয়ার সময় যে চালক বাসটি চালাচ্ছিলেন, সেই মাসুম বিল্লাহ বুধবার ঢাকার আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছিলেন।

সাত দিনের পুলিশ রিমান্ড শেষে বাসমালিক শাহাদাতকে বৃহস্পতিবার ঢাকার হাকিম আদালতে নেওয়া হলে তিনিও আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন।

আদালত পুলিশের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, জাবালে নূর কোম্পানির সভাপতি, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালকের সুপারিশে তিনি তার বাসটি মাসুম বিল্লাহকে চালাতে দিয়েছিলেন। মাসুমের ড্রাইভিং লাইসেন্স যাচাই করে দেখেননি তিনি।

মাসুমকে গ্রেপ্তারের পর পুলিশ জানিয়েছিল, তার ভারী গাড়ি চালানোর লাইসেন্স ছিল না।

বাসমালিক শাহাদাতের জবানবন্দি নেওয়ার পর তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন ঢাকার মহানগর হাকিম গোলাম নবী।

শাহাদাতকে আদালতে আনার পর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক কাজী শরিফুল ইসলাম আদালতকে বলেন, এই বাসমালিক স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিতে রাজি হয়েছেন।

গত ২৯ জুলাই ঢাকার বিমানবন্দর সড়কে জিল্লুর রহমান ফ্লাইওভারের পাশে বাসে ওঠার অপেক্ষায় থাকা শহীদ রমিজ উদ্দিন ক্যান্টনমেন্ট কলেজের একদল শিক্ষার্থীদের উপর জাবালে নূরের বাসটি উঠে গেলে নিহত হন দুই শিক্ষার্থী দিয়া খানম মিম ও আব্দুল করিম রাজীব।

দিয়ার বাবা জাহাঙ্গীর আলম ফকিরের মামলায় র‌্যাব শাহাদাত ও মাসুম বিল্লাহ ছাড়াও জাবালে নূরের বাসচালক জোবায়ের ও সোহাগ আলী এবং চালকের সহকারী এনায়েত হোসেন ও রিপন হোসেনকে গ্রেপ্তার করে।

এদিকে তাৎক্ষণিক প্রয়োজন মেটাতে রাজধানীর কুর্মিটোলায় বাসচাপায় নিহত দুই শিক্ষার্থীর পরিবারকে পাঁচ লাখ টাকা করে দিতে জাবালে নূর পরিবহন কর্তৃপক্ষকে দেওয়া আদেশ বহাল রয়েছে।

হাইকোর্টের দেওয়া ওই আদেশ স্থগিত চেয়ে জাবালে নূর পরিবহন কর্তৃপক্ষের করা আবেদন আগামী ৪ অক্টোবর আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির জন্য পাঠিয়ে দিয়েছেন চেম্বার বিচারপতি। আজ বৃহস্পতিবার চেম্বার বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী এ দিন ধার্য করেন।

এর আগে ৩০ জুলাই এক আদেশে হাইকোর্ট তাৎক্ষণিক প্রয়োজন মেটাতে ওই দুর্ঘটনায় নিহত আবদুল করিম রাজীব ও দিয়া খানম মিমের পরিবারকে এক সপ্তাহের মধ্যে পাঁচ লাখ করে টাকা দিতে ওই পরিবহন কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। এ আদেশ স্থগিত চেয়ে ওই পরিবহন কর্তৃপক্ষ আপিল বিভাগে আবেদন করে, যা আজ চেম্বার বিচারপতির আদালতে শুনানির জন্য ওঠে।

আদালতে জাবালে নূর পরিবহন কর্তৃপক্ষের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী পঙ্কজ কুন্ডু। রিট আবেদনকারী আইনজীবী রুহুল কুদ্দুস নিজে শুনানিতে অংশ নেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

লঞ্চের ধাক্কায় গরু ভর্তি ট্রলার ডুবি

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএননারায়ণগঞ্জ: বরিশালগামী একটি যাত্রীবাহী লঞ্চের ধাক্কায় নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় ৩১টি গরু ভর্তি ট্রলা . . . বিস্তারিত

খাগড়াছড়িতে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ৬

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনখাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়িতে পাহাড়ীদের সংগঠন ইউপিডিএফ সদস্যদের লক্ষ্য করে বন্দুকধারীদের হামলায় ছয় জ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com