ব্রেকিং সংবাদ: |
  • পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ারকে তারেক রহমানের লিগ্যাল নোটিশ
  • ‘তারেক বর্তমানে বাংলাদেশের নাগরিক নন’
  • কাবুলে ভোটার নিবন্ধনকেন্দ্রে হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৩
  • ২৫ বছরের যুদ্ধে সোয়া কোটি মুসলিম নিহত, যা একটি বিশ্বযুদ্ধের সমান ক্ষয়ক্ষতি
  • খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সপ্তাহব্যাপী বিএনপির নতুন কর্মসূচি ঘোষণা
  • ত্রিভুবন বিমানবন্দরের গাফিলতিই দুর্ঘটনার জন্য দায়ী: ইউএস-বাংলা
  • যে শর্তে গাজীপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপিকে ছাড় দিল জামায়াত

চট্টগ্রাম বন্দর  হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা সন্দীপন চৌধুরী আটক

১৬ এপ্রিল,২০১৮

চট্টগ্রাম বন্দর  হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা সন্দীপন চৌধুরী আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
চট্টগ্রাম: সরঞ্জাম ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগে চট্টগ্রাম বন্দর উপ-প্রধান হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা সন্দীপন চৌধুরীকে আটক করেছে দুদক।

সোমবার দুপুরে চট্টগ্রাম বন্দর ভবন থেকেই তাকে আটক করা হয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় চট্টগ্রাম-১ এর উপ-পরিচালক লুৎফুল কবির চন্দন বলেন, ‘চট্টগ্রাম বন্দরের বিভিন্ন মালামাল ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগে বন্দরের অর্থ ও হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা সন্দীপন চৌধুরীকে আটক করা হয়েছে।

এর আগে ২০১৩ সালে চট্টগ্রাম বন্দরে এভিয়ার এবং কার্গো চার্জার ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগে বন্দর থানায় দুইটি দুর্নীতির মামলা হয়েছিলো।’

এই দুইটি মামলায় তাকে আটক করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আরও পড়ুন....
অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এমপি মিজানকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ
অবৈধ সম্পদ অর্জন ও মাদক ব্যবসার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে খুলনা-২ আসনের আওয়ামী লীগ দলীয় এমপি মিজানুর রহমান মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সেগুনবাগিচার দুদক কার্যালয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন দুদকের উপ-পরিচালক মো. মঞ্জুর মোর্শেদ।

এর আগে গত ৪ এপ্রিল মো. মঞ্জুর মোর্শেদ স্বাক্ষরিত চিঠিতে এমপি মিজানকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তলব করা হয়। তলবে সাড়া দিয়ে সকাল ১০টার দিকে তিনি দুদকের প্রধান কার্যালয়ে আসেন।

দুদকের অভিযোগে বলা হয়, মিজানুর রহমান ক্ষমতার অপব্যবহার করে খুলনা সিটি করপোরেশন ও অন্যান্য সরকারি অফিসের ঠিকাদারী, নিজ পরিবারের সদস্যদের নামে নামমাত্র কাজ করে বাকি টাকা আত্মসাৎ এবং মাদকের ব্যবসা করে শত শত কোটি টাকা মূল্যের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন করেছেন।

এরপর গত ৭ মার্চ থেকে দুদক খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের এই সাধারণ সম্পাদকের বিরুদ্ধে অনুসন্ধান শুরু করে।

খুলনা-২ আসনের সংসদ মিজানুর রহমান, লালমনিরহাটের সাবেক সাংসদ বিএনপি নেতা আসাদুল হাবিব দুলু এবং নাটোরের সাবেক সাংসদ রুহুল কুদ্দুস দুলুর বিরুদ্ধে পাওয়া দুর্নীতির অভিযোগের বিষয়ে গত ৪ মার্চ অনুসন্ধানে করে দেখার সিদ্ধান্ত নেয় দুদক।

বিএনপি নেতা আসাদুল হাবিব দুলুর বিরুদ্ধে অভিযোগ, ২০০১-২০০৬ জোট সরকারের সময়ে লালমনিরহাট ও রংপুর অঞ্চলের টেন্ডারবাজি এবং ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে চাঁদা আদায় করে কোটি কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছেন তিনি।

আর নাটোরের সাবেক সাংসদ রুহুল কুদ্দুস দুলুর বিরুদ্ধে অভিযোগ, বিএনপি সরকারের আমলে তিনি নাটোরের বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে টেন্ডারবাজি, ব্যবসায়ীদের থেকে চাঁদা আদায় এবং মাদকের কারবার থেকে ৫০০ কোটি টাকার অবৈধ সম্পদের মালিক হয়েছে।

এছাড়া স্বতন্ত্র সাংসদ কামরুল আশরাফ খানের বিরুদ্ধেও অবৈধ সম্পদের মালিক হওয়ার একটি অভিযোগের অনুসন্ধান করছে দুদক।

আরো পড়ুন…
জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে এমপি কামরুলকে দুদকে তলব
সরকারি সার লুটসহ জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে নরসিংদী-২ আসনের সংসদ সদস্য ও বাংলাদেশ ফার্টিলাইজার লিমিটেডের সভাপতি কামরুল আশরাফ খানকে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

বুধবার (৪ এপ্রিল) দুদকের উপ-পরিচালক মো. একরামুর রেজা স্বাক্ষরিত চিঠিতে তাকে আগামী ১১ এপ্রিল দুদকে তলব করা হয়। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নরসিংদী-২ আসনের এক ব্যক্তির অভিযোগ আমলে নিয়ে দুদক কামরুল আশরাফকে তলব করে।

অভিযোগকারী দুদক চেয়ারম্যান বরাবর লিখিত চিঠিতে বলেন, ‘আমরা এদেশের সাধারণ কৃষক। সরকার প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ টন বিদেশ থেকে নিয়ে আসে। কামরুল আশরাফ ও তার সহচরগণ সার পরিবহন ব্যবসার সাথে যুক্ত থাকিয়া গত ১০ বছরে অবৈধভাবে শত শত কোটি টাকার মালিক হয়েছেন।’

চিঠিতে অভিযোগ করা হয়, ‘তারা সরকারি প্রতিষ্ঠান থেকে সার নিয়ে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে দেন না। গোপনে বিক্রি করে দেন এবং সরকারি লোকজনকেও ভাগ দেন। গত ১০ বছরে নেয়া সার এখনো পৌঁছায়নি। তারা সার মৌসুমে বিক্রি করে এবং অবৈধ সম্পদ অর্জন করেন।’

অভিযোগকারী আরো বলেন, ‘সংসদ সদস্য কামরুল আশরাফ খান ঢাকার গুলশানে বনানী ৩নং রোডের ২৬/২৭ দু’টি বাড়ি কিনেছেন। টাকার জোরে কালিয়াকৈরে ২০০ বিঘার বাগান বাড়ি করেছেন। কোটি কোটি টাকার নিশান পেট্রোল গাড়ি কিনেছেন সার বেচা টাকা দিয়ে।’

এমনকি তিনি বর্তমানে নরসিংদী-২ আসনে সংসদ সদস্য হিসেবে দাঁড়ানোর জন্য এলাকায় গুণ্ডামি করেছেন বলেও চিঠিতে অভিযোগ করা হয়।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

কুমিল্লার দুই মামলায় খালেদা জিয়ার অধিকতর শুনানি ৭ জুন

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনকুমিল্লা: কুমিল্লার দুই মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার অধিকতর শুনানি ৭ জুন অনুষ্ঠিত . . . বিস্তারিত

সাড়ে তিনশত রাউন্ড গুলিসহ ইউপিডিএফ’র এক সমর্থক আটক

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনখাগড়াছড়ি: খাগড়াছড়ির দিঘীনালায় সেনাবাহিনীর অভিযানে সাড়ে তিনশত রাউন্ড গুলিসহ ইউপিডিএফ’র এক স . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com