নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ২ ডাকাত নিহত

১২ মার্চ,২০১৮

নারায়ণগঞ্জে র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে ২ ডাকাত নিহত

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জ জেলার ফতুল্লায় র‍্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নৌ-ডাকাত জিল্লুবাহিনীর প্রধান জিল্লুসহ দুই ডাকাত নিহত হয়েছেন। এসময় আহত হয়েছেন র‍্যাবের দুই সদস্য।

সোমবার (১২ মার্চ) ভোরে ফতুল্লার আলীরটেক ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। এসময় ডাকাতদের কাছ থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করে র‍্যাব।

র‍্যাব-১১’র এএসপি আলেপ উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

র‍্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ডাকাতদের ধরতে গেলে ডাকাত জিল্লু বাহিনীর প্রধান জিল্লু রহমানসহ তার সহযোগীরা র‍্যাবের উপর গুলি চালায়। এসময় র‍্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়লে ঘটনাস্থলেই ডাকাত সর্দার জিল্লু ও আরেকজন ডাকাত নিহত হয়। তবে তাৎক্ষণিকভাবে ডাকাত দলের অন্য সহযোগীরা পালিয়ে যায়।

নারায়নগঞ্জে মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনার নেপথ্যের গল্প
নারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জে সোমবার দুপুরে সংঘটিত মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় আক্রান্ত বাসটির যাত্রীরা অভিযোগ করেছেন, তিনটি বাস বেপরোয়া গতিতে পাল্লা দিয়ে চালাচ্ছিল। তাদের বেপরোয়া কর্মকাণ্ডই এতগুলো লোকের প্রাণ নিলো।

চলার এক পর্যায়ে জেলার সোনারগাঁ উপজেলার ত্রিবর্দী এলাকায় পৌঁছালে সেখানে দাঁড়িয়ে থাকা একটি লরিকে একটি বাস ধাক্কা দিলে প্রথমে ৮ জনের মৃত্যু হয়। পরে আরো ২ জনের মৃত্যু হয়। এ দুর্ঘটনায় আহত হন আরও ২৫ জন।

বাসটির যাত্রী দেলোয়ার হোসেন বলেন, তিনটি বাস পাল্লা দিয়ে চালাচ্ছিল। ত্রিবর্দীর কাছাকাছি এসে আমাদের বাসটি লরির পেছনে ধাক্কা দেয়।

বাসের আহত যাত্রী কুমিল্লার বাসিন্দা অমূল্য কর্মকারও একই অভিযোগ করেন।

তিনি বলেন, বাসে অনেক যাত্রী ছিলেন। চালক বেপরোয়া গতিতে চালানোর কারণেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনায় অধিকাংশ যাত্রী আহত হয়েছেন।

দুর্ঘটনায় অমূল্যর স্ত্রীও আহত হয়েছেন। তারা সোনারগাঁ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ওই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন আবদুর রবও বাসচালকের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ করেছেন।

আবদুর রব আরো বলেন, দুর্ঘটনায় আমার পরিবারের পাঁচ সদস্য আহত হয়েছেন। চালক স্বাভাবিক গতিতে গাড়ি চালালে এ দুর্ঘটনা ঘটত না। দুর্ঘটনার জন্য চালকই সম্পূর্ণভাবে দায়ী।

বাসের যাত্রী আলমগীর হোসেন তার ছোট ভাইকে নিয়ে চট্টগ্রাম যাচ্ছিলেন।

তিনি বলেন, কাঁচপুর থেকে ওই বাসে উঠি চট্টগ্রাম যাওয়ার জন্য। আমি চালকের পেছনে দাঁড়িয়ে ছিলাম। চালক বেপরোয়া গতিতে বাস চালাচ্ছিলেন।

তার ভাষায়, কাঁচপুরে একটি রিকশাকে ধাক্কা দেওয়ার পর আমি তাকে নিয়ন্ত্রণের মধ্যে রেখে চালানোর পরামর্শ দিয়েছিলাম।

এ দুর্ঘটনায় তার ভাই নজরুল ইসলাম আহত হয়েছেন বলে তিনি জানান।

কাঁচপুর হাইওয়ে থানার ওসি মোহাম্ম কাইয়ুম বলেন, দুর্ঘটনার পরপরই চালক ও সহকারী পালিয়ে গেছেন। তাদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করছে পুলিশ।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

পূজায় মদপানে ৩ জনের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনঝিনাইদহ: ঝিনাইদহের কালীগঞ্জে অতিরিক্ত মদপানে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া আরও দুজন অসুস্থ হয়ে কালী . . . বিস্তারিত

রাজবাড়ীতে ট্রেনের ধাক্কায় নিহত ৩

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনরাজবাড়ী: রাজবাড়ীর জামালপুর রেলস্টেশনের কাছে ট্রেনের ধাক্কায় তিন নসিমন যাত্রী নিহত হয়েছেন।এ দুর্ঘ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com