রোহিঙ্গার হাতে রোহিঙ্গা নিহত

১৩ জানুয়ারি,২০১৮

রোহিঙ্গা নিহত

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
ঢাকা: কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গার ছুরিকাঘাতে মমতাজ আহমদ (৩৫) নাতে এক রোহিঙ্গা নিহত হয়েছে। এ সময় উল্লাহ নামের আরো একজন আহত হয়েছেন।

শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এই ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে উখিয়া থানা পুলিশের একটিদল অভিযান চালিয়ে আরিফ উল্লাহ নামের এক রোহিঙ্গাকে আটক করেছে।

উখিয়া থানার ওসি মো. আবুল খায়ের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পূর্ব শত্রুতার জের ধরে উখিয়ার কুতুপালং লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পে আরিফ উল্লাহ নামের এক রোহিঙ্গা পার্শ্ববর্তী ক্যাম্পের মমতাজ আহমদ নামক এক রোহিঙ্গাতে ছুরিকাঘাত করে। এসময় ক্যাম্পে থাকা অন্যান্য রোহিঙ্গারা দ্রুত মমতাজকে স্থানীয় চিকিৎসা সেন্টারে নিয়ে যাওয়ার সময় তিনি মারা যান। এসময় আরিফ উল্লাহ নামের এক রোহিঙ্গাকে স্থানীয়দের সহায়তায় আটক করেছে পুলিশ।

আটক আরিফ উল্লাহ বরাত দিয়ে ওসি আরো বলেন, মিয়ানমারের রাখাইনে গেলো দুই বছর আগে আরিফ উল্লাহ ভাইকে হত্যা করে বাংলাদেশে পালিয়ে আসে মমতাজ। এরপর আরিফ উল্লাহও বাংলাদেশে এসে মমতাজকে খোজতে থাকে। এক পর্যায়ে দুপুরে উখিয়ার লম্বাশিয়া ক্যাম্পে পেয়ে মমতাজকে ছুরিকাহত করে।

ওসি আবুল খায়ের বলেন, রোহিঙ্গা ক্যাম্পে প্রতিদিন কোন না কোন ঘটনা ঘটাচ্ছে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গা। এ কারণে এসব রোহিঙ্গাদের সামাল দিতে পুলিশতে হিমসিম খেতে হচ্ছে।

টেকনাফে সাড়ে ২২ কোটি ইয়াবা জব্দ
কক্সবাজারের টেকনাফে সাড়ে ২২ কোটি টাকা মূল্যের ৭ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবার চালান জব্দ করা হয়েছে।

গত শনিবার (৬ জানুয়ারি) সকালে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের কাটাবুনিয়া এলাকা থেকে এসব ইয়াবা জব্দ করে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) সদস্যরা।

টেকনাফ ২নং বিজিবি’র অধিনায়ক লে. কর্নেল এসএম আরিফুল ইসলাম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে টেকনাফ কাটাবুনিয়া বিওপি’র সদস্যরা টহলে নামেন। এসময় ৬ থেকে ৭ জন লোককে চারটি প্লাস্টিকের বস্তা মাথায় সমুদ্র উপকূল থেকে পুরাতন মেরিন ড্রাইভ রাস্তা দিয়ে আসতে দেখে চ্যালেঞ্জ করা হয়।

তিনি আরও জানান, চ্যালেঞ্জ করার পর পাচারকারীরা তাদের মাথায় থাকা বস্তাগুলো ফেলে দৌঁড়ে দ্রুত পাশের গ্রামে ঢুকে পড়ে। পরে ফেলে যাওয়া প্লাস্টিকের বস্তাগুলো খুলে করে ৭ লাখ ৪০ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। যার বাজার মূল্য আনুমানিক সাড়ে ২২ কোটি টাকা।

উদ্ধার করা ইয়াবাগুলো টেকনাফ বিজিবি সদর দফতরে জমা রাখা হয়েছে উল্লেখ করে এসএম আরিফুল ইসলাম জানান, পরবর্তীতে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, বেসামরিক প্রশাসন, মাদকদ্রব্য অধিদফতরের প্রতিনিধি ও গণমাধ্যম কর্মীদের উপস্থিতিতে ধ্বংস করা হবে।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

নির্বাচনে না আসলে বিএনপির অস্তিত্ব থাকবে না: সংসদে এমপিরা

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: রাষ্ট্রপতির ভাষণে আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাবের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সরকারি দলের সদস্যরা বলেছেন, আগামী . . . বিস্তারিত

আইভীর লোকজনই হকারদের ওপর গুলি করেছে: শামীম ওসমান

নিজেস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনঢাকা: পুলিশের উপস্থিতিতে মেয়র আইভীর লোকজন হকারদের ওপর গুলি বর্ষণ করেছে বলে অভিযোগ করেছেন নারায় . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com