রাঙামাটিতে আ.লীগ নেত্রীকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

০৭ ডিসেম্বর,২০১৭

রাঙামাটিতে আ.লীগ নেত্রী কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
রাঙামাটি: প্রতিবাদের মধ্যেই রাঙামাটিতে স্বামী-সন্তানসহ আ.লীগ নেত্রীকে কুপিয়েছে দুর্বৃত্তরা। আহত ঝর্ণা রাঙামাটি জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি।

বুধবার গভীর রাতে মুখোশ পড়া সন্ত্রাসীরা তার নিজ ঘরে এ হামলা চালায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, রাঙ্গামাটি শহরের বিজয় নগর এলাকায় একদল মুখোশধারী সন্ত্রাসী জেলা মহিলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ঝর্ণা খীসাসহ তার স্বামী ও ছেলেকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে আহত করেছে। গুরুতর আহত অবস্থায় ঝর্ণা খীসাকে রাঙ্গামাটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ঝর্ণার পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়, গভীর রাতে ১০/১৫জনের একদল মুখোশধারী জোরপূর্বক ঘরে ঢুকে তাদের এলোপাতাড়ি ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপাতে থাকে।

এ সময় ঝর্ণা খীসা, স্বামী জিতেন্দ্র লাল চাকমা ও ছেলে রণবিষ্ণ চাকমা আহত হয়। এদের মধ্যে ঝর্ণা খীসার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এদিকে রাঙামাটির জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও যুবলীগের সহ সভাপতি অরবিন্দু চাকমার হত্যার প্রতিবাদে ও দোষীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে রাঙামাটিতে বৃহস্পতিবার সকাল-সন্ধ্যা হরতাল চলছে।

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে শুরু হওয়া এ হরতালে রাঙামাটি শহরের অভ্যন্তরীণ ও দূরপাল্লা রুটে সকল ধরনের যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে। শহরের অধিকাংশ দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। হরতাল চলাকালে অফিসগামী ও শিক্ষার্থীদের হেটে গন্তব্যস্থলে পৌছতে দেখা গেছে।

শহরের রিজার্ভ বাজার লঞ্চঘাট থেকে কোনো যাত্রীবাহী লঞ্চ উপজেলা সদরের উদ্দেশে ছেড়ে যায়নি। শহরের বনরুপাসহ কয়েকটি স্থানে পিকেটিং করতে দেখা গেছে। শহরের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।

এদিকে বৃহস্পতিবার সকালে রাঙামাটি শহরের প্রধান বাণিজ্যিক এলাকা বনরুপায় জেলা যুবলীগের সভাপতি ও রাঙামাটি পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি মিছিল বের করা হয়। মিছিলে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের পিকেটেং করতে দেখা যায়।

উল্লেখ্য, গত মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৭ টার দিকে রাঙামাটির জুরাছড়ির দেবাছড়ি এলাকায় অরবিন্দু চাকমাকে (৪০) গুলি করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা।

এ ঘটনার পর বুধবার অরবিন্দু চাকমার হত্যার প্রতিবাদে এবং দোষীদের গ্রেফতারের দাবিতে আজ বৃহস্পতিবার রাঙামাটি জেলায় সকাল-সন্ধ্যা হরতালের ডাক দেয় জেলা যুবলীগ।

বুধবার জেলার ১০ উপজেলায় বিক্ষোভ-সমাবেশ করে আওয়ামী লীগ ও যুবলীগসহ সহযোগী সংগঠন। সমাবেশ থেকে জেলা যুবলীগের সভাপতি ও রাঙামাটির পৌর মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরী জুরাছড়িতে এ হরতালের ঘোষণা দেন।

পরে রাঙামাটি পৌর চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শুরু হয়ে জেলা প্রশাসন কার্যালয় চত্বরে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সদস্য দীপংকর তালুকদারের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন রাঙামাটি জেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান নিখিল কুমার চাকমা, আঞ্চলিক পরিষদের সদস্য কামাল উদ্দিন, জেলা মহিলা লীগের সহসভাপতি ঝর্ণা খীসা, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ চাকমা, জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নুর মোহাম্মদ কাজল প্রমুখ।

উল্লেখ্য রাঙ্গামাটির জুরাছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগ সাংগঠনিক সম্পাদক অরবিন্দ চাকমাকে গুলি করে হত্যা করেছে দুষ্কৃতিকারীরা।

একই সময় হত্যার উদ্দেশ্যে বিলাইছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি রাসেল মার্মাকে (৫০) পিটিয়ে মারাত্মক জখম করা হয়।

মঙ্গলবার রাত পৌনে ৮টার দিকে উপজেলার সুভলং খাগড়াছড়ি নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সিঁড়ির সামনে অরবিন্দকে হত্যা করা হয়েছে।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

কীভাবে মানুষ মনে রাখবে মহিউদ্দিন চৌধুরীকে

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: মরহুম আওয়ামী লীগ নেতা এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী একেবারে তৃণমূল থেকে উঠে এসে বাংলাদেশের রাজনীতিতে ত . . . বিস্তারিত

ছাতকে প্রাইভেটকার খাদে, নিহত ৪

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনসুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার ছাতক-গোবিন্দগঞ্জ সড়কে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে প্রাইভেটকার খাদে পড়ে . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com