আশুলিয়ায় ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে সালিশি বৈঠকে যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

১৪ সেপ্টেম্বর,২০১৭

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
সাভার: আশুলিয়ায় এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে সালিশ বৈঠকে ডেকে এনে লিটন মালন (২৫) এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

বুধবার রাতে পাথালিয়ার ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফরিদ আহম্মেদ ও তার ১০/১৫ জন অনুসারী মিলে ওই যুবককে মিথ্যা অভিযোগে ফাঁসিয়ে দিয়ে সালিশ ডেকে অমানুষিক নির্যাতন ও তাকে পিটিয়ে আহত করে। এসময় নির্যাতনের শিকার ওই যুবকের মৃত্যু হলে ঘটনার ধামাচাপা দিতে আত্মহত্যার প্রচারণা চালায় বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় আশুলিয়া থানায় একটি হত্যা মামলাও দায়ের হয়েছে।

নিহতের পরিবার ও প্রত্যক্ষদর্শীরা অভিযোগ করেন, আশুলিয়ার পাথালিয়ার ইউনিয়নে চাকলগ্রামে ইউপি সদস্য ফরিদ আহম্মেদের প্রতিবেশি এক নারীর কাছে টাকা ধার চান লিটন। কিন্তু এ ঘটনাটিকে ওই নারীর সঙ্গে পরকীয়া আছে এমন অভিযোগ এনে বুধবার রাতে লিটনের বাড়িতে সালিশ বৈঠক ডাকেন ইউপি সদস্য ফরিদ। এসময় ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে তার অনুসারী নুরুল ইসলাম, আতিকুল, ছাকুসহ ১০ থেকে ১৫ জন মিলে ওই বিচারের সময় হাঁত, পা বেঁধে পেটালে লিটনের মৃত্যু হয়।

এই মৃত্যুর ঘটনা ধামাচাপা দিতে এটিকে আত্মহত্যা বলে প্রচারের চেষ্টা করে সালিশ বৈঠকের হোতারা। তাদের দেওয়া আত্মহত্যার খবরেই পরের দিন সকালে পুলিশ এসে নিহত লিটনের লাশ উদ্ধার করে। পরে ময়না তদন্তের জন্য মরদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়।

লিটনের ভাই রিপন মালন বলেন, এক নারীর কাছে টাকা ধার চাওয়ার ঘটনায় এটিকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে সালিশ ডেকে তার ভাইকে হাত, পা বেঁধে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় জড়িতদের বিচার দাবী করেন তিনি।

নিহতের শরীরে অসংখ্য আঘাত ও নির্যাতনের চিহ্ন রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। আশুলিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আব্দুল আওয়াল বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। আসামীদের ধরতে অভিযান চলছে বলেও জানান তিনি।

নিহত লিটন মালন আশুলিয়ার চাকল গ্রামের বাসিন্দা শ্রী রাজ কিষন মালনের ছেলে। সে পেশায় ট্রাক চালক ছিলেন বলে জানা গেছে।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন

নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএননারায়ণগঞ্জ: নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ৩ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আজ . . . বিস্তারিত

কেউ এগিয়ে এলো না ছেলেটিকে বাঁচাতে!

নিজেস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনচট্টগ্রাম: খেলতে খুব ভালোবাসেন কিশোর আদনান। আর সেই খেলাই কাল হয়ে দাড়ালো তার। জীবন দিতে হলো . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com