এবার পাবনায় স্কুল ও বসতঘরে ৭৩টি ভয়ঙ্কর গোখরা!

১৬ জুলাই,২০১৭

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
পাবনা: রাজশাহী ও কুষ্টিয়ার পর এবার পাবনার চাটমোহরে বসতঘর ও একটি সরকারি স্কুল থেকে ৭৩টি ভয়ঙ্কর গোখরা সাপ উদ্ধারের পর সেগুলোকে সেগুলো পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে।

শনিবার রাতে পৃথক স্থান থেকে এসব সাপ উদ্ধার করা হয়।

জানা যায়, পৌর শহরের দোলং মহল্লার আসান আলীর বাড়ি থেকে ৬০টি ও সকালে নিমাইচড়া ইউনিয়নের করকোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে ১৩টি গোখরা সাপের বাচ্চা উদ্ধার করা হয়। এ সময় উভয় এলাকা থেকে মা সাপ পালিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আসাব আলীর বাড়ির লোকজন টিভি দেখার জন্য ঘরের কোনে রাখা মাদুর নিতে গেলে কয়েকটি গোখরা সাপের বাচ্চা মাদুরের সঙ্গে বেড়িয়ে আসে।

পরে চিৎকারে প্রতিবেশীরা এসে রাত ১১টা পর্যন্ত ঘরের মাটি খুঁড়ে একে একে ৬০টি গোখরা সাপের বাচ্চা উদ্ধার করে পিটিয়ে মেরে ফেলে।

অপরদিকে উপজেলার করকোলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে একই দিন বেলা ১১টার দিকে পঞ্চম শ্রেণির ক্লাস চলাকালীন অবস্থায় এক ছাত্রী স্কুল রুমের দেয়ালের ফাঁকে (ফাঁটল অংশে) একটি সাপ দেখতে পায়। পরে দেয়ালের ওই ফাটল থেকে একে একে ১৩টি গোখরা সাপের বাচ্চা বের হয়।

পরে সাপগুলোকে পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়। এ ঘটনার পর পুরো চাটমোহর জুড়ে সাপ আতংক বিরাজ করছে।

উল্লেখ্য, এর আগে গত মঙ্গলবার উপজেলার মূলগ্রাম ইউনিয়নের বালুদিয়ার গ্রামের মীর কাশেম আলীর বসত বাড়ির পরিত্যক্ত ঘর থেকে ১৭টি গোখরা উদ্ধার করে পিটিয়ে মেরে ফেলে এলাকাবাসী। এছাড়া রাজশাহী ও কুষ্টিয়ায় এ রকম অসংখ্য সাপ উদ্ধারের পর পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

বাংলাদেশ রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধান চায়: তথ্যমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, অং সান সু চির প্রস্তাবিত আলোচনা হতে পারে, কিন্তু বাংলাদেশ চায় . . . বিস্তারিত

রোহিঙ্গা শরণার্থী আসার সংখ্যা কমেছে: জাতিসংঘ

নিউজ ডেস্কঅারটিএনএনঢাকা: জাতিসংঘের সংস্থাগুলো বলছে, মায়ানমারের রাখাইন প্রদেশে সহিংসতার কারণে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহি . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com