রাজবাড়ীতে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত ১

১৭ ফেব্রুয়ারি,২০১৭

নিজস্ব প্রতিনিধি

আরটিএনএন

রাজবাড়ী: রাজবাড়ীর পাংশায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মোয়াজ্জেম হোসেন নামে একজন নিহত হয়েছেন। পুলিশের দাবি, মোয়াজ্জেম সাত মামলার আসামি এবং চরমপন্থী দলের সদস্য।


নিহত মোয়াজ্জেম হোসেন (৩২) পাংশা উপজেলার পাট্টা গ্রামের আবদুল মজিদ ফকিরের ছেলে।


পাংশা থানার ওসি মো. মোফাজ্জেল হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার শরিষা ইউনিয়নের নাওড়া বনগ্রামে গোলাগুলির এই ঘটনা ঘটে। এ সময় গোলাগুলিতে মোয়াজ্জেম নিহত হন।


ওসি জানান, চরমপন্থী বিপুল বাহিনীর দ্বিতীয় প্রধান হিসেবে পরিচিত ছিলেন মোয়াজ্জেম। তিনি পলাতক ছিলেন। বৃহস্পতিবার ভোরে ঢাকার আশুলিয়ার জিরানী এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। দুপুরের দিকে তাকে রাজবাড়ী আনা হয়। দিবাগত রাতে তাকে সঙ্গে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারের অভিযানে যায় থানা ও গোয়েন্দা পুলিশ। উপজেলার কলিমহর ইউনিয়নের নাওরা বনগ্রাম এলাকায় পৌঁছালে পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে সন্ত্রাসীরা। পুলিশও পাল্টা গুলি ছোড়ে।


এ সময় মোয়াজ্জেম পালানোর চেষ্টা করে। বন্দুকযুদ্ধের মাঝে পড়ে গুলিবিদ্ধ হন তিনি। সন্ত্রাসীরা পালিয়ে গেলে ঘটনাস্থল থেকে মোয়াজ্জেমকে উদ্ধার করে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। তাকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসা কর্মকর্তা। ঘটনাস্থল থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ও কার্তুজ উদ্ধার করা হয়েছে।


ওসি মোফাজ্জেল হোসেন বলেন, বন্দুকযুদ্ধে নিহত মোয়াজ্জেমের লাশের ময়নাতদন্ত করা হবে। এ জন্য তার লাশ রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।

মন্তব্য

মতামত দিন

দেশজুড়ে পাতার আরো খবর

রাঙামাটিতে ক্ষতিগ্রস্ত ১২০ পরিবারের মাঝে বিএনপির সহায়তা

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনরাঙামাটি: বর্ষা মৌসুমের শুরুতেই কয়েকদিনের টানা বর্ষণের কারণে চট্টগ্রাম, বান্দরবান, খাগড়াছড়ি, রাঙ . . . বিস্তারিত

বাস-ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ২

ফাইল ছবি নিজস্ব প্রতিনিধিআরটিএনএনবগুড়া: বগুড়ার শেরপুর উপজেলায় যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে একটি ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com