৪৭ বছরে এ রকম শান্তিপূর্ণ পরিবেশ আমি দেখিনি, নির্বাচন সুষ্ঠু হবে: সেনা প্রধান

২৯ ডিসেম্বর,২০১৮

৪৭ বছরে জাতীয় নির্বাচনে এ রকম শান্তিপূর্ণ পরিবেশ আমি দেখিনি: সেনা প্রধান

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: দেশে অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের খুবই সুন্দর পরিবেশ রয়েছে, ৪৭ বছরে এ রকম শান্ত ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ দেখা যায়নি বলে মন্তব্য করেছেন সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ।

নির্বাচনের একদিন আগে শনিবার রাজধানীর আজিমপুরে কমিউনিটি সেন্টারে স্থাপিত অস্থায়ী সেনা ক্যাম্প পরিদর্শন শেষে গণমাধ্যমকর্মীদের কাছে এ মন্তব্য করেন সেনাপ্রধান।

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ বলেছেন, বিভিন্ন এলাকা পরিদর্শন করে আমরা দেখেছি, নির্বাচনের অত্যন্ত চমৎকার ও সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশ বিরাজ করছে।

‘সেনাপ্রধান হিসেবে বলছি, আমিও এই দেশের নাগরিক। গত এক সপ্তাহ সারা দেশ ঘুরে আমার যে অভিজ্ঞতা হয়েছে, বিগত ৪৭ বছরে এ রকম শান্ত ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ আমি দেখিনি। বিগত নির্বাচনগুলোতে কিছু না কিছু সহিংসতা হয়েছে। এবারও সহিংসতা হয়েছে, তবে সে সংখ্যা খুবই কম। সবাই আশ্বস্ত করেছে, অত্যন্ত সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশে এবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।’

আজিজ আহমেদ বলেন, কোনো প্রকার হুমকি আছে কি না, সে জিনিসটা আমরা জানার চেষ্টা করেছি। যাতে করে সেনাবাহিনী দিয়ে সে ঝুঁকি,বিপদ-ভয়ের আশঙ্কা কমিয়ে নিয়ে আসতে পারি। কিন্তু সবাই আমাদের আশ্বস্ত করেছে।

সেনাপ্রধান বলেন, কিছু কিছু এলাকা যেমন- সীমান্ত এলাকা সম্পর্কে বলেছে। আমি সে এলাকাগুলোতে সেনাবাহিনীর টহল বৃদ্ধি করে দেওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছি যাতে সেখানে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায়।

আজিজ আহমেদ বলেন, এ ছাড়া সারা দেশের সংখ্যালঘু এলাকাগুলোয় সেনাবাহিনী গিয়ে আশ্বস্ত করছে, ভোটাররা যেন নির্ভয়ে ও নির্বিঘ্নে তাদের ভোটকেন্দ্রে যেতে পারে এবং যার যার ভোট দিতে পারে। এজন্য সেসব এলাকাগুলোতে সেনাবাহিনী টহল আজকেও যাচ্ছে, নির্বাচনের পরেও যাবে।

সেনাপ্রধান বলেন, অতীতের অভিজ্ঞতা থেকে দেখেছি, যখনই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়, যারা হেরে যায়, তারা সংখ্যালঘুদের ওপর আক্রমণ করে। এ ব্যাপারে আমরা অনেক সতর্ক থাকব।

সেনাপ্রধান আরো বলেন, সেনাবাহিনী, পুলিশ, বিজিবি, র‍্যাব, আনসার, সিভিল প্রশাসন আমরা সবাই একটি টিম হিসেবে একটি লক্ষ্য নিয়ে কাজ করব। কোনো ধর্মের প্রতি যেন কোনো সংঘাত না হয়, কেউ যেন ভয়ভীতি দেখাতে না পারে, সেদিকে আমরা অত্যন্ত সতর্ক থাকব।

‘আজকে থেকে আমাদের দায়িত্ব আরো বেড়ে গেছে। আমরা যেন জনগণের মধ্যে একটা ‍আস্থা আনতে পারি,’ বলেন সেনাপ্রধান। সবশেষে সুন্দর একটা নির্বাচন যেন সম্পন্ন হয় সে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় ও বেসামরিক প্রশাসনকে সহায়তার জন্য সারাদেশে ৫০ হাজার সেনা সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। প্রয়োজনে আরও সেনা সদস্য মোতায়েন করা হবে।

এসময় তিনি একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটারদের নির্ভয়ে কেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেওয়ার আহ্বান জানান।

প্রসঙ্গত, ৩০ ডিসেম্বর সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত একটানা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

মন্তব্য

মতামত দিন

জাতীয় পাতার আরো খবর

হজে বিমান ভাড়া কমিয়ে এক লাখ ২৮ হাজার টাকা নির্ধারণ

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: চলতি বছরে হজের বিমান ভাড়া গত বছরের চেয়ে ১০ হাজার টাকা কমিয়ে ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা নির্ধারণ ক . . . বিস্তারিত

এমপিদের শপথ নেয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জের রিট উত্থাপিত হয়নি মর্মে খারিজ

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: একাদশ জাতীয় সংসদে নির্বাচিত সংসদ সদস্যদের শপথ নেওয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে দায়ের করা রিট উত্ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com