মুক্তি পেলেন হাসনাত করিম

০৯ আগস্ট,২০১৮

মুক্তি পেলেন হাসনাত করিম

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: কারাগার থেকে মুক্তি পেয়েছেন রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজানে জঙ্গি হামলায় গ্রেপ্তার হওয়া নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক শিক্ষক হাসনাত রেজা করিম।

বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টায় কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি জেল থেকে হাসনাত রেজা মুক্তি পান বলে কারাগারের জেলার বিকাশ রায়হান জানিয়েছেন।

এর আগে গত ২৩ জুলাই হলি আর্টিজান হামলা মামলায় হাসনাত করিমকে অব্যাহতি দিয়ে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট। এ মামলায় দুই বছর এক মাস নয় দিন জেল খেটে অবশেষে মুক্তি পেলেন তিনি।

হলি আর্টিজানে হামলার দুই বছর পর গত ২৩ জুলাই হাসনাত করিমকে অব্যাহতি দিয়ে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিলের পর ২৬ জুলাই ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম নুরুন্নাহার ইয়াসমিন অভিযোগপত্রের নথিতে স্বাক্ষর করে সেটি মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) কাছে পাঠিয়ে দেন।

সেখান থেকে অভিযোগপত্র সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালে পাঠানো হয়। গতকাল বুধবার বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মজিবুর রহমান অভিযোগপত্র গ্রহণ করে হাসনাত করিমকে অব্যাহতির আদেশ এবং পলাতক দুই জঙ্গি মামুনুর রশিদ রিপন ও শরীফুল ইসলাম খালিদকে গ্রেপ্তারের জন্য পরোয়ানা জারি করেন।

এর আগে ২০১৬ সালের ৫ অক্টোবর পুলিশের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে হাসনাতকে ৫৪ ধারার অভিযোগ থেকে অব্যাহতি দেন আদালত।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১ জুলাই রাতে গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলা চালিয়ে বিদেশি নাগরিকসহ ২০ জনকে হত্যা করে জঙ্গিরা।

এ সময় তাদের গুলিতে দুই পুলিশ সদস্য নিহত হন। পরে অভিযানে পাঁচ জঙ্গি নিহত হয়। ওই ঘটনায় সন্ত্রাসবিরোধী আইনে গুলশান থানায় একটি মামলা করে পুলিশ। গত ২৩ জুলাই ৮ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক হুমায়ুন কবীর।

আসামিদের মধ্যে ছয়জন কারাগারে এবং দুজন পলাতক রয়েছেন। কারাগারে থাকা ছয় আসামি হলেন- জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগান, রাশেদুল ইসলাম ওরফে র‌্যাশ, সোহেল মাহফুজ, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান এবং হাদিসুর রহমান সাগর।

এ ছাড়া বিভিন্ন অভিযানে ১৩ জন নিহত হওয়ায় তাদের অব্যাহতি দানের সুপারিশ করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। যার মধ্যে ৮ জন বিভিন্ন অভিযানে ও পাঁচজন হলি আর্টিজানেই নিহত হন।

গুলশানের হলি আর্টিজানে সেনাবাহিনীর ‘অপারেশন থান্ডারবোল্টে’ নিহত পাঁচজন হলেন- রোহান ইবনে ইমতিয়াজ, মীর সামেহ মোবাশ্বের, নিবরাস ইসলাম, শফিকুল ইসলাম ওরফে উজ্জ্বল ও খায়রুল ইসলাম ওরফে পায়েল।

বিভিন্ন ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযানে নিহত ৮ জন হলেন- তামীম আহমেদ চৌধুরী, নুরুল ইসলাম মারজান, তানভীর কাদেরী, মেজর (অব.) জাহিদুল ইসলাম ওরফে মুরাদ, রায়হান কবির তারেক, সারোয়ান জাহান মানিক, বাশারুজ্জামান ওরফে চকলেট ও মিজানুর রহমান ওরফে ছোট মিজান।

মন্তব্য

মতামত দিন

জাতীয় পাতার আরো খবর

শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে বিতর্কিত আইন ব্যবহার করছে সরকার: সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতি

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: কোটা সংস্কার ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের বিরুদ্ধে সরকার বিতর্কিত তথ্য- . . . বিস্তারিত

মূলধারার গণমাধ্যমকে সামাজিক মাধ্যমে সক্রিয় হতে হবে: ইনু

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: ‘সঠিক তথ্য সরবরাহের জন্য মূলধারার গণমাধ্যমকে সামাজিক মাধ্যমে আরো সক্রিয় হতে হবে। ফেস . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com