ব্রেকিং সংবাদ: |
  • পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ারকে তারেক রহমানের লিগ্যাল নোটিশ
  • ‘তারেক বর্তমানে বাংলাদেশের নাগরিক নন’
  • কাবুলে ভোটার নিবন্ধনকেন্দ্রে হামলায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৬৩
  • ২৫ বছরের যুদ্ধে সোয়া কোটি মুসলিম নিহত, যা একটি বিশ্বযুদ্ধের সমান ক্ষয়ক্ষতি
  • খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সপ্তাহব্যাপী বিএনপির নতুন কর্মসূচি ঘোষণা
  • ত্রিভুবন বিমানবন্দরের গাফিলতিই দুর্ঘটনার জন্য দায়ী: ইউএস-বাংলা
  • যে শর্তে গাজীপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপিকে ছাড় দিল জামায়াত

লন্ডন ফিরে গেছেন কোকোর স্ত্রী-মেয়ে

১৫ এপ্রিল,২০১৮

লন্ডন ফিরে গেছেন কোকোর স্ত্রী-মেয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি এবং দুই মেয়ে জাফিয়া রহমন ও জাহিয়া রহমান লন্ডন ফিরে গেছেন।

রবিবার সকাল সাড়ে ৮টার ফ্লাইটে তারা বাংলাদেশ ছাড়েন। গেলো ২৯ মার্চ খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে লন্ডন থেকে বাংলাদেশে আসেন কোকোর স্ত্রী এবং দুই মেয়ে।

শনিবার পহেলা বৈশাখে কারাগারে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেন জিয়া কোকার স্ত্রী শর্মিলা রহমানসহ ৭ স্বজন। ওইদিন বিকেলে পুরান ঢাকার নাজিম উদ্দিন রোডের কারাগারে গিয়ে খালেদা জিয়ার সঙ্গে স্বাক্ষাৎ করেন স্বজনরা।

শর্মিলা ছাড়া অন্য স্বজনরা হলেন কোকোর দুই মেয়ে জাফিয়া ও জয়া রহমান, খালেদা জিয়ার ভাই সাঈদ ইস্কেন্দারের ছেলে অভি ইস্কেন্দার এবং মামুন, মো. আলী ও ওয়াহিদুর রহমান নামের তিন জন।

কারা সূত্রে জানা গেছে, শনিবার বিকাল ৪টা ৩৫ মিনিটে কারা কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে স্বজনরা কারাগারে প্রবেশ করেন। প্রায় দেড়ঘণ্টা পর তারা কারাগার থেকে বের হন।

এছাড়া তারা খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্য পরীক্ষার সময় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ)একবার এবং কারাগারে কয়েকবার সাক্ষাৎ করেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় গত ৮ জানুয়ারি খালেদা জিয়াকে পাঁচ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। ওইদিন থেকে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে আছেন তিনি। গত ৮ এপ্রিল স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাকে বিএসএমএমইউ-তে নেওয়া হয়েছিল।

আরো পড়ুন....

জাতীয় নির্বাচনে প্রার্থী হবেন না কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি

আগামি সংসদ নির্বাচনে প্রার্থি হচ্ছেন না। এমনকি খুব শিগগিরই রাজনীতির সঙ্গে জড়ানোর কোন ইচ্ছেও নেই- এমন সাফ জবাব দিয়েছেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কনিষ্ঠ পুত্রবধূ শর্মিলা রহমান সিঁথি।

গত কয়েকদিন ধরেই মাগুরা-১ আসন থেকে আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শর্মিলা রহমান সিঁথি’র প্রার্থি হওয়ার খবর পাওয়া যাচ্ছিল। জেলা বিএনপি’র বিভিন্ন পর্যায়েই এ নিয়ে চলছে ব্যাপক আলোচনা। রয়েছে অনেকের উৎসাহ। বিভিন্ন আলোচনার টেবিলে উৎসাহিরা তার নামটি টেনে আনছেন। এমনকি সামাজিক গণমাধ্যমেও চলছে তার প্রচারণা। ইতোমধ্যে স্থানীয় সাধারণ মানুষ, বিএনপি সমর্থকদের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে তার নামটি চলে আসায় জেলা পর্যায়ের নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের পাশাপাশি মনোনয়ন প্রত্যাশিরাও বেশ নড়েচড়ে বসেছেন।

জেলা বিএনপির নির্ভরযোগ্য একাধিক নেতা-কর্মীর আলাপ থেকে জিয়া পরিবারের পুত্রবধূ শর্মিলা রহমান সিথি’র মাগুরা থেকে সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়া বা না নেওয়া এবং তার রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে অনেক তথ্য পাওয়া যায়।

বেগম খালেদা জিয়া’র পুত্র আরাফাত রহমান কোকোর সহধর্মীনি শর্মিলা রহমান সিঁথি সাবেক প্রকৌশলী হাসান রাজার মেয়ে। মাগুরায় মামা বাড়িতে তার জন্ম হলেও রাজনীতির প্রতি কখনোই তার উৎসাহ দেখা যায়নি। তবে রাজনৈতিক পরিবারের সন্তান না হলেও বৈবাহিক সূত্রে চলে এসেছেন আলোচনাতে।

স্বামি আরাফাত রহমান কোকো মৃত্যুর পর এ বছরের মার্চ মাসেই বাবা প্রকৌশলী হাসান রাজার মৃত্যু শর্মিলাকে অনেকটাই একা করে দিয়েছে। নিজের দুটি সন্তানের লেখাপড়া নিয়েই লণ্ডনে বেশ ব্যস্ত সময় কাটান তিনি। তারপরও স্বজনদের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রেখে চলেন বলে তার নিকটাত্মিয়দের কাছ থেকে জানা গেছে। মাগুরায়, শহরের বেলনগর গ্রামে শর্মিলার মামা বাড়ি। বড় মামা সৈয়দ মোকাদ্দেস আলি মাগুরা জেলা বিএনপি’র সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক। বিএনপি’র রাজনীতির সঙ্গে তার সম্পৃক্ততা সেই শুরু থেকেই। জিয়া পরিবারের ঘনিষ্টজন হিসেবেও স্থানীয় রাজনীতিতে তার সুখ্যাতি রয়েছে। বোনের মেয়ে শর্মিলার খোজ খবরও তিনি ও তার পরিবার নিয়মিত রাখেন।

জেলা বিএনপি’র একাধিক সূত্রে জানা যায়, মাগুরা-১ আসনটি জেলা ও দেশের রাজনীতিতে অত্যান্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি আসন। এই আসন থেকে সর্বশেষ ১৯৯১ সনে বিএনপি প্রার্থি হিসেবে নির্বাচিত হন ও মন্ত্রীত্ব পান মেজর জেনারেল এম মজিদ উল হক। কিন্ত পরবর্তি চারটি নির্বাচনে ব্যাপক জনপ্রিয়তা নিয়ে নির্বাচিত হন প্রয়াত শিশুরোগ বিশেষজ্ঞ ডাক্তার প্রফেসর সিরাজুল আকবর।

রাজনীতি থেকে বিএনপি’র গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রী মজিদ উল হকের বিদায়ের পর মাগুরা-১ আসনে আরেক সাবেক মন্ত্রী এড. নিতাই রায় চৌধুরী থেকে শুরু করে মাগুরা পৌরসভার সাবেক মেয়র ইকবাল আকতার খান কাফুর পর্যন্ত কোন প্রার্থিকে দিয়েই বিএনপি আসনটি পুনরুদ্ধার করতে পারেনি। যে কারণে আসনটি নিজেদের দখলে নিতে স্থানীয় বিএনপি’র নীতি নির্ধারকরা নতুন হিসাব নিকাশে বসেছেন। ইতোমধ্যে মাগুরা শহরের বিভিন্ন প্রান্তে বিএনপি চেয়ারপারসনের ব্যক্তিগত উপদেষ্টা জিয়া পরিষদের চেয়ারম্যান কবির মুরাদ, জেলা বিএনপি’র যুগ্ম আহবায়ক আহসান হাবিব কিশোর, সাবেক ছাত্রনেতা মনোয়ার হোসেন খান, উপজেলা চেয়ারম্যান বদরুল আলম হিরোসহ বেশ ক’জন নিজেদের প্রার্থি হিসেবে ঘোষণা দিয়ে পোস্টার সেটেছেন। যাদের নামের পাশাপাশি এখন বেশ গুরুত্ব নিয়ে আলোচিত হচ্ছে কোকোর স্ত্রী শর্মিলার নামটিও।

এ বিষয়ে জেলা বিএনপি’র আহবায়ক প্রবীন রাজনীতিবিদ সৈয়দ আলি করিম, যুগ্ম আহবায়ক আহসান হাবিব কিশোর সহ অনেকের সঙ্গে আলাপ করলেও তারা শর্মিলার মনোনয়নের বিষয়ে সুনির্দিষ্ট করে কিছু জানাতে পারেন নি। তবে শর্মিলার মামা বিএনপি নেতা সৈয়দ মোকাদ্দেস আলি বলেন, স্থানীয় অনেকেই তাকে নিয়ে ভাবলেও সে নিজে রাজি নয়।

বিষয়টি নিয়ে শর্মিলা রহমান সিথির সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি এখনই রাজনীতিতে আসার বিষয়টি একেবারেই নাকোচ করে দিয়েছেন। রাজনীতি তার অনেক কিছুই কেড়ে নিয়েছে উল্লেখ করে দুটি মেয়ের শিক্ষা এবং মানুষ হিসেবে গড়ে তোলায় এখন মূল লক্ষ্য বলে তিনি জানান। তবে ভবিষ্যতে পরিস্থিতি বাধ্য করলে রাজনীতি নিয়ে ভাবতে পারেন বলেও তিনি উল্লেখ করেছেন।

মন্তব্য

মতামত দিন

জাতীয় পাতার আরো খবর

‘তারেক বর্তমানে বাংলাদেশের নাগরিক নন’

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম বলেছেন, ২০১৪ সালের ২ জুন তারেক রহমানের, তার স্ত্রীর এব . . . বিস্তারিত

দাফনের সময় নড়েচড়ে উঠল মৃত শিশু

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: সকাল ১০টার দিকে আজিমপুর কবরস্থানে এক নবজাতককে দাফনের জন্য আনা হয়। নবজাতকের স্বজনরা জানান, . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com