সর্বশেষ সংবাদ: |
  • বিএনপি নেতা রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু ও ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকুর প্রার্থিতা বৈধ করবে বলে জানিয়েছেন আদালত, অ্যাটর্নি জেনারেলের মতামত নেওয়ার পর আদেশ
  • তিন আসনে বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মনোনয়নপত্র বাতিলের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে দায়ের করা রিটের শুনানি চলছে
  • সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সংবিধান, ভোটার ও রাজনৈতিক নেতাদের কাছে দায়বদ্ধ নির্বাচন কমিশন : সিইসি

বিমান বিধ্বস্তে সাংবাদিক আহমেদ ফয়সাল নিখোঁজ

১২ মার্চ,২০১৮

বিমান বিধ্বস্তে সাংবাদিক আহমেদ ফয়সাল নিখোঁজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: ইউএস বাংলা এয়ারলাইনসের সেই বিমানের যাত্রী ছিলেন সাংবাদিক আহমেদ ফয়সাল। এখন পর্যন্ত তাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানান তার সহকর্মীরা।

তিনি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল বৈশাখীর স্টাফ রিপোর্টার। এখনো তার কোনো খোঁজ পায়নি তার সহকর্মীরা।

সোমবার নেপালের কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিধ্বস্ত হয় বেসরকারি এয়ারলাইনস ইউএস বাংলার একটি বিমান। ঢাকা থেকে দুপুরে রওনা দেয় বিমানটি। বাংলাদেশ সময় দুপুর আড়াইটার দিকে বিধ্বস্ত হয় বিমানটি।

বৈশাখী টিভির হেড অব নিউজ অশোক চৌধুরী জানিয়েছেন, পাঁচদিনের ছুটি নিয়েছেন আহমেদ ফয়সাল। নেপালে বিমান বিধ্বস্ত হওয়ার খবর সংগ্রহের এক পর্যায়ে ওই বিমানের যাত্রীদের তালিকা আসে বৈশাখীর অফিসে। ওই তালিকায় ফয়সালের নাম পাওয়া যায়।

অশোক চৌধুরী জানান, ওই বিমানের যাত্রী তালিকায় থাকা নাম ও পাসপোর্টের নম্বরের সঙ্গে ফয়সালের নাম ও পাসপোর্টের নম্বরের মিল পাওয়া গেছে। পরে ইমিগ্রেশন পুলিশের সঙ্গেও যোগাযোগ করা হয়। ইমিগ্রেশন পুলিশের পাঠানো তথ্যের সঙ্গেও ফয়সালের তথ্যের মিল পাওয়া যায়।

অশোক চৌধুরী জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত কোনো খোঁজ পাওয়া যায়নি ফয়সালের।

ইউএস বাংলা কর্তৃপক্ষ জানায়, চারজন ক্রু এবং ৬৭ জন যাত্রীসহ সর্বমোট ৭১ জনকে নিয়ে নেপালে যাত্রা করেছিল বিমানটি। এর মধ্যে বাংলাদেশি যাত্রী ছিলেন ৩২ জন। ৩৩ জন নেপালের। চীনের ও মালদ্বীপের দুই নাগরিকও আছেন।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, এখন পর্যন্ত ৫০ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

জানা যায়, সোমবার দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে ৭১ জন যাত্রী নিয়ে নেপালের উদ্দেশ্যে ঢাকা ছাড়ে ইউএস বাংলার ড্যাশ এইট কিউ ফোর হানড্রেড মডেলের এই বিমানটি। দুপুর ২টা ২০ মিনিটে কাঠমান্ডুর ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণের সময় বিমানটিতে আগুন ধরে যায়। সঙ্গে সঙ্গে রানওয়ে থেকে ছিটকে বিমানটি পাশের খালি মাঠে গিয়ে পড়ে। দুই ইঞ্জিনের বিমানটি ভেঙ্গে কয়েক টুকরো হয়ে পড়ে। বিক্ষিপ্ত অংশগুলোতে লাগা আগুনের কালো ধোঁয়ায় ছেয়ে যায় গোটা বিমানবন্দর।

বিধ্বস্ত বিমান থেকে ১৬ যাত্রীকে জীবিত উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি: আসিফ
নেপালে ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় ১৬ যাত্রীকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বিমানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) ইমরান আসিফ।

সোমবার এক ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান তিনি।

বিমানটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এর আগে দুর্ঘটনায় ৮ জনের মৃত্যুর খবর জানিয়েছিলেন। তবে তাদের নাম-পরিচয় নিশ্চিত করতে পারেননি তিনি। দুর্ঘটনায় আহতদের নেপালের ৪টি হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে বলে জানান তিনি।

এদিকে নেপাল সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র বার্তাসংস্থা রয়টার্সকে বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় ৫০ জনের নিহতের তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তবে নেপালের পুলিশের মুখপাত্র মনোজ নুপেন প্রাথমিকভাবে ৪০ জনের প্রাণহানির তথ্য জানিয়েছেন। ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে ৩১ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এছাড়া হাসপাতালে নেয়ার পর আরও ৯ জন মারা গেছেন।

বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ বলছে, বিধ্বস্ত বিমানের আগুন নিভিয়ে ফেলা হয়েছে। উদ্ধার তৎপরতা অব্যাহত রয়েছে।

ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের মুখপাত্র প্রেম নাথ ঠাকুর বলেছেন, ‘দুই ইঞ্জিন বিশিষ্ট টার্বোপ্রোপ বিমানটি ৬৭ আরোহী ও চার ক্রু নিয়ে বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুর উদ্দেশে যাত্রা শুরু করেছিল।’

তিনি বলেন, ‘যাত্রীদের মধ্যে ৩৭ পুরুষ, ২৭ নারী ও দুই শিশু ছিল। এদের মধ্যে অন্তত ৩৩ জন নেপালের নাগরিক।’

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের বোম্বারডায়ার ড্যাশ-৮ বিমানটি দুপুর ২টা ২০ মিনিটে বিধ্বস্ত হয়। বিধ্বস্ত হওয়ার আগে এতে আগুন ধরে যায়।

নেপালের বেসামরিক বিমান পরিবহন কর্তৃপক্ষের মহাপরিচালক সানজিব গৌতম বলেন, বিমানটির পাইলটকে বিমানবন্দরের দক্ষিণ-প্রান্ত থেকে রানওয়েতে অবতরণের অনুমতি দেয়া হয়েছিল। কিন্তু বিমানবন্দরের উত্তর অংশ থেকে বিমানটি অবতরণের চেষ্টা করে পাইলট। এ সময় হঠাৎ বিমানটিতে আগুন ধরে যায়। পরে বিমানবন্দরের পাশের একটি ফুটবল মাঠে আছড়ে পড়ে বিমানটি।

বিমান বিধ্বস্তের পরপরই ঘটনাস্থলে উদ্ধাকারী দল, সেনাবাহিনী ও অ্যাম্বুলেন্স পৌঁছায়। বিমাবন্দরের অপর এক কর্মকর্তা বলেন, বিমানটি বিধ্বস্তের আগে আকাশে কাঁপতে শুরু করে।

মন্তব্য

মতামত দিন

জাতীয় পাতার আরো খবর

৫৮ নিউজপোর্টাল বন্ধের নির্দেশনা প্রত্যাহার করল সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: অবশেষে দেশীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে প্রতিবাদের মুখে কয়েকটি জনপ্রিয় নিউজপোর্টালসহ ৫৮টি ওয়েবসাইট . . . বিস্তারিত

৫৮টি অনলাইন নিউজ পোর্টাল যে কারণে বন্ধের নির্দেশ দিয়েছিল বিটিআরসি

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা- বিটিআরসি দেশের ৫৮টি অনলাইন পোর্টাল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com