কলেজছাত্রীকে হয়রানি উদ্ধারকারী কনস্টেবলকে খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

১১ মার্চ,২০১৮

কলেজছাত্রীকে হয়রানি উদ্ধারকারী কনস্টেবলকে খুঁজে পাচ্ছে না পুলিশ

নিজস্ব প্রতিনিধি
আরটিএনএন
ঢাকা: গত বুধবার দুপুরে রাজধানীর বাংলামোটরে বাসের জন্য দাঁড়িয়ে থাকার সময় নিপীড়নের শিকার হন রাজধানীর এক কলেজছাত্রী। সরকারি দলের মহাসমাবেশে যোগ দিতে যাওয়ার সময় মিছিল থেকে একদল যুবক তাকে নিপীড়ন করে বলে অভিযোগ করেছেন ছাত্রীটি। পরে ওই ছাত্রীর বাবা বাদী হয়ে রমনা থানায় তার মেয়ের শ্লীলতাহানির অভিযোগে মামলা করেন।

ছাত্রী শ্লীলতাহানির ঘটনায় করা মামলাটি তদন্ত করছে রমনা থানার পুলিশ। মামলার তদন্ত তদারক কর্মকর্তা পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার মো. মারুফ হোসেন সরদার গতকাল বলেন, এ ঘটনায় জড়িত কাউকে শনাক্ত করা যায়নি। নিপীড়নের শিকার ছাত্রীটিকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। তিনি বলেছেন, মামলায় শ্লীলতাহানির শিকার হওয়ার যে তথ্য দেওয়া হয়েছে, সেটিই তার বক্তব্য।

মামলার ছায়া তদন্ত করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) গোয়েন্দা বিভাগ (ডিবি)। ডিবি সূত্র বলেছে, ভিডিও ফুটেজ দেখে একজন কনস্টেবলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছিল। তিনি বলেছেন, তার সামনে এমন কোনো ঘটনা ঘটেনি।

পুলিশের ওই কর্মকর্তা বলেন, ঘটনাস্থল বাংলামোটরের কাছে ৮৯ নিউ ইস্কাটনের কথা বলা হচ্ছে, সেদিন কোনো পুলিশের দায়িত্ব ছিল না। হয়তো ওই পথ দিয়ে যাওয়ার সময় কোনো ট্রাফিক কনস্টেবল ছাত্রীটিকে সহায়তা করেছেন।

বখাটেদের কবল থেকে রক্ষাকারী সেই কনস্টেবলকে ছাত্রীটি চেনেন না কিংবা তার নামও বলতে পারছেন না। তাকে পাওয়া গেলে ঘটনার প্রকৃত চিত্র জানা যাবে এবং মিছিল থেকে ছাত্রীর ওপর হামলে পড়েছিল কি না, তা নিশ্চিত হওয়া যাবে।

ডিবির উপকমিশনার (দক্ষিণ) মো. জামিল হাসান শনিবার বলেন, যেখানে ঘটনার কথা বলা হচ্ছে, সেখানে কোনো সিসি ক্যামেরা নেই। আশপাশের দোকান থেকে ছয়-সাতটি সিসি ক্যামেরা জব্দ করা হয়েছে।

বাংলামোটরের দিকে হেঁটে যাওয়ার সময় ছাত্রীটির সামনের ও পেছনের দিকের ফুটেজ নেওয়া হয়েছে। এসব ফুটেজে সাধারণ মানুষের সঙ্গে পোশাকধারী কয়েকজন পুলিশকে হেঁটে যেতে দেখা যাচ্ছে। সেদিন যে পুলিশ সদস্য ছাত্রীটিকে সহায়তা করেছেন, ছাত্রীকে দিয়ে তাকে শনাক্ত করা হবে। ওই পুলিশ সদস্য শনাক্ত হলে বিস্তারিত জানা যাবে।

এদিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও বিতার্কিকেরা জাতীয় জাদুঘরের সামনে থেকে মানববন্ধন করেন। মানববন্ধন শেষে ছাত্রী নিপীড়নকারীদের বিচারের দাবিতে তারা মিছিল বের করেন। মিছিলটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসিতে গিয়ে শেষ হয়।

মন্তব্য

মতামত দিন

জাতীয় পাতার আরো খবর

শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট উদ্বোধন আগামী বুধবার

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে নামকরণকৃত বিশ্বের সর্ববৃহৎ বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউট . . . বিস্তারিত

উন্নয়নের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখতে শিক্ষকদের সমর্থন চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে উন্নয়নের বর্তমান ধারাবাহিকতা অব্যাহত রাখার স্বার্থে আগামী নির্বাচন . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com