সূর্য ডোবার আগেই সা’দকে দিল্লি ফেরত পাঠানোর দাবি হেফাজতের

১১ জানুয়ারি,২০১৮

সূর্য ডোবার আগেই সাদকে দিল্লি ফেরত পাঠাতে হবে : হেফাজত

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: তাবলিগ জামাতের মুরব্বী দিল্লির মাওলানা সা’দ কান্ধলভীকে সূর্য ডোবার আগেই দিল্লি ফেরত পাঠানোর জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে হেফাজতে ইসলাম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বায়তুল মোকাররম মসজিদ চত্বরে নিজেদের বৈঠক শেষে একথা জানান হেফাজতে ইসলামের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ফজলুল করিম কাশেমী।

মাওলানা ফজলুল করিম কাশেমী বলেন, বৃহস্পতিবার সূর্য ডোবার আগেই (সন্ধ্যার মধ্যে) মাওলানা সা’দকে দিল্লি ফেরত পাঠাতে হবে। পাঠানো না হলে দেশ অশান্ত হয়ে পড়বে। রাস্তায় গাড়ি চলবে না। সাদ নিজেকে দাওয়াতুল তাবলিগের স্বঘোষিত আমির হিসেবে দাবি করেন যা পুরোপুরি অবৈধ। তিনি কুরআন-হাদিসের অপব্যাখ্যা দিয়েছেন।

মাওলানা ফজলুল করিম কাশেমী বলেন, ‘সকালে আমরা কাকরাইল মসজিদে যেতে চাইলে পুলিশ ঢুকতে দেয়নি। তাই আমরা বায়তুল মোকাররমে সমবেত হয়েছি।’

কাকরাইল মসজিদের ওয়াসিফ, নাসিফসহ কয়েকজন মাওলানা সা’দের সঙ্গে মিলে বিশ্ব ইজতেমার শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নষ্ট করতে চাচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এদিকে সকাল থেকেই বায়তুল মোকারম মসজিদ এলাকায় বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন থাকতে দেখা গেছে। যদিও ডিএমপি জানিয়েছে বিশ্ব ইজতেমা সুশৃঙ্খল ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন হওয়ার প্রত্যাশায় মাওলানা সাদ ইজতেমায় অংশ নিচ্ছেন না। তারপরও অনাকাঙ্ক্ষিত পরিস্থিতি এড়াতে সতর্ক পুলিশ।

এদিকে, তাবলিগ জামাতের মুরব্বী দিল্লির মাওলানা মোহাম্মদ সা’দ কান্ধলভীকে নিয়ে সৃষ্ট দ্বন্দ্ব নিরসনে তাবলিগ জামাতের দুই পক্ষকে নিয়ে বৈঠকে বসেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল। বৃহস্পতিবার বিকালে মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে এই বৈঠক শুরু হয়।

তাবলিগ জামাতের বার্ষিক সম্মিলন বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে বুধবার দুপুরে ঢাকায় আসেন এই মুসলিম সংঘের কেন্দ্রীয় পর্ষদের শুরা সদস্য মাওলানা সা’দ।

সা’দবিরোধী বিক্ষোভের মধ্যে নতুন করে বিশৃঙ্খলা এড়াতে কাকরাইল মসজিদ এলাকায় বুধবার রাত থেকেই নেওয়া হয়েছে ব্যাপক নিরাপত্তা।

তার ইজতেমায় যাওয়া ঠেকাতে তাবলিগ জামাতের একটি অংশ বিমানবন্দর এলাকায় বিক্ষোভ শুরু করলে গুরুত্বপূর্ণ ওই সড়কে দিনভর যানজটে ভুগতে হয় মানুষকে।

ভারতীয় উপমহাদেশের সুন্নি মতাবলম্বী মুসলমানদের বৃহত্তম ধর্মীয় সংঘ তাবলিগ জামাতের মূল কেন্দ্র বা মারকাজ দিল্লিতে। কেন্দ্রীয় ওই পর্ষদকে বলা হয় নেজামউদ্দিন, যার ১৩ জন শুরা সদস্যের মাধ্যমেই উপমহাদেশে তাবলিগ জামাত পরিচালিত হয়।

এই পর্ষদের সদস্য মাওলানা মোহাম্মদ সা’দ কান্ধলভি সম্প্রতি নিজেকে তাবলিগের আমির দাবি করেন। ফলে তার বাংলাদেশে আসা নিয়ে বাংলাদেশে তাবলিগের মূল দায়িত্বশীল ব্যক্তিদের মধ্যে মতবিরোধ দেখা দেয়।

বিক্ষোভের মধ্যে বুধবার ঢাকায় পৌঁছানোর পর বিকালে কাকরাইল মসজিদে যান মাওলানা সা’দ। বাংলাদেশে ওই মসজিদই তাবলিগের কার্যক্রমের মূল কেন্দ্র।

সন্ধ্যায় সা’দবিরোধী একদল তাবলিগকর্মী কাকরাইল মসজিদের সামনে জড়ো হলে সেখান থেকে তাদের সরিয়ে দেয় পুলিশ। ওই মসজিদ ঘিরে অবস্থান নেয় পুলিশ, সকালে নিরাপত্তা আরো বাড়ানো হয়।

এর আগে দুপুর ১২টা থেকে সা’দ বিরোধীরা বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেটে জড়ো হতে শুরু করেন। সমাবেশে অংশ নেন কওমীপন্থী আলেম ও তাবলিগ জামাতের একাংশ।

সমাবেশে বাংলাদেশ খেলাফত মজসিলের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক বলেন, ‘মাওলানা সা’দ থাকলে কেউ ইজতেমায় অংশ নেবেন না। ইজতেমায় সা’দকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হচ্ছে। ইজতেমাকে নিয়ে কোনও ষড়যন্ত্র হতে দেওয়া হবে না।’

তাবলিগের জিম্মাদার মাওলানা লোকমান বলেন, ‘মাওলানা সা’দের উপস্থিতিতে কোনও ইজতেমা হবে না।’

তিনি আরো বলেন, ‘পুলিশ যদি আমাদের বাধা দেয়, তাহলে ঘরে ঘরে আগুন জ্বলবে। যদি কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটে তবে তার দায় সা’দকে নিতে হবে।’

মন্তব্য

মতামত দিন

জাতীয় পাতার আরো খবর

জনমত যাচাইয়ের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে সড়ক পরিবহন বিল সংসদে পাস

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ডের বিধান রেখে জাতীয় সংসদে সড়ক পরিবহন বিল-২০১৮ পাস হয়েছে। বুধবার . . . বিস্তারিত

সংসদে কওমি সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রি সমমানের বিল ২০১৮ পাস

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: কওমি মাদ্রাসাগুলোর দাওরায়ে হাদিসের (তাকমিল) সনদকে মাস্টার্স ডিগ্রির (ইসলামিক স্টাডিজ ও আরব . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com