রোহিঙ্গা সমস্যা কি আলোর মুখ দেখবে?

১২ জানুয়ারি,২০১৭

নিউজ ডেস্ক

আরটিএনএন

ঢাকা: মায়ানমারের বিশেষ দূত ও দেশটির উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী কিউ টিন তার দুদিনের ঢাকা সফর শেষে আজ দেশে ফিরে যাচ্ছেন। এই সফরে রোহিঙ্গা শরণার্থী সমস্যা ও আরো নানা দ্বিপাক্ষিক বিষয় নিয়ে তার সঙ্গে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলির বিশদ আলোচনা হয়েছে।

 

বিগত প্রায় পঁচিশ বছর ধরে বাংলাদেশকে মায়ানমার থেকে আসা রোহিঙ্গা শরণার্থীদের স্রোত সামলাতে হচ্ছে, এবং গত কয়েক মাসে সেই সঙ্কট আরো জটিল আকার নিয়েছে।

 

এই পটভূমিতে মায়ানমারের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক আলোচনার মাধ্যমে কূটনৈতিক পথে এই সঙ্কটের সমাধান কি সম্ভব? বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিক হুমায়ুন কবীর বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে চেষ্টা করা হয়েছে দ্বিপাক্ষিক ভাবে উদ্যোগটা বজায় রাখতে যাতে করে সমস্যাটা সমাধানের দিকে এগিয়ে যাওয়া যায়।


‘তবে এটাও আমরা সাম্প্রতিককালে দেখছি আসিয়ান, ওআইসির পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সভা হওয়ার কথা আছে কুয়ালালামপুরে। তার প্রেক্ষাপটে কিন্তু আমরা দেখতে পাচ্ছি মিয়ানমারের উপপররাষ্ট্রমন্ত্রী ঢাকায় এসেছেন।’


তিনি বলনে এটা মায়ানমারের ভেতরকার সমস্যা কাজেই সেটা মিয়ানমারকেই নিষ্পত্তি করতে হবে। বাংলাদেশের পক্ষ থেকে তাদের বক্তব্য সু-দৃঢ়ভাবে বলতে হবে। মি. কবীর বলছিলেন ‘যদি দ্বিপাক্ষিক ভাবে সমাধান হয়ে যায় সেটাই আমরা খুঁজবো, কারণ মায়ানমার আমাদের নিকটতম প্রতিবেশী,রোহিঙ্গা সমস্যা ছাড়াও অন্যান্য বিষয়েও লেনদেন রয়েছে এবং থাকবে। তবে মায়ানমারের সাথে বিগত দিনের অভিজ্ঞতার কারণে প্রয়োজনে আমাদের আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক পথ খুঁজে বের করতে হবে।’

 

এই আলোচনায় কতটা আশাবাদী হওয়া যায়? তিনি বলছিলেন’ মোটামুটি আশাবাদী, খুব বেশি আশাবাদী হওয়ার সুযোগ নেই। এর আগেও আলোচনা হয়েছে কিন্তু পুরনো সমস্যার কোন সমাধান হয়নি।’

 

যদি এটা নিষ্পত্তি না হয় তাহলে কোন দেশের জন্যই মঙ্গলজনক নয় এমনকি আন্তর্জাতিক নিরাপত্তার জন্য হুমকি হিসেবে থেকে যেতে পারে রোহিঙ্গা সমস্যা-মন্তব্য করেন সাবেক এই কূটনীতিক।


সূত্র: বিবিসি।

মন্তব্য

মতামত দিন

জাতীয় পাতার আরো খবর

মালয়েশিয়ায় উন্মোচন হলো জনশক্তি রপ্তানির দ্বার

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: নানা জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর উন্মোচিত হলো মালয়েশিয়ায় জনশক্তি রপ্তানির দ্ব . . . বিস্তারিত

বাংলাদেশ দখলে ভারতের সময় লাগবে দুসপ্তাহ

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: ভারত বাংলাদেশে সামরিক অভিযান চালালে পুরো বাংলাদেশ সরকার, প্রশাসন এবং সব শহরাঞ্চলে পূর্ণ নিয়ন্ত্ . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান, গোলাম রসুল প্লাজা (তৃতীয় তলা), ৪০৪ দিলু রোড, নিউ ইস্কাটন, ঢাকা-১০০০।
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com