আমার সব বাজেট নির্বাচনী বাজেট: অর্থমন্ত্রী

০৮ জুন,২০১৮

আমার সব বাজেট নির্বাচনী বাজেট: অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
আরটিএনএন
ঢাকা: অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, তার সব বাজেটই নির্বাচনী বাজেট। মানুষ পছন্দ করবে এমন বাজেটই তিনি দেন। অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, ‘আমরা নিজেদের পায়ে দাঁড়িয়েছি। এখন আর বিশ্বভিক্ষুক নই।’

শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী এ কথা বলেন।  গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য চার লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট উপস্থাপন করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন, ‘আগে আমি বিশ্বভিক্ষুক ছিলাম। দেশের জনগণ, সাংবাদিক এবং অন্য দেশের অর্থমন্ত্রীরা বিভিন্ন প্রোগামে আমাদের তিরষ্কার করতো বিশ্বভিক্ষুক বলে। আমরা সেটা থেকে বের হয়ে এসেছি। নিজেদের অর্থায়নে পদ্মা সেতু তৈরি করছি। দেশের যোগাযোগব্যবস্থা, শিক্ষা ব্যবস্থা সকল সেক্টরে উন্নয়ন হয়েছে।’

প্রস্তাবিত বাজেটে মোট রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে তিন লাখ ৩৯ হাজার ২৮০ কোটি টাকা। এর মধ্যে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড সূত্রে আয় ধরা হয়েছে দুই লাখ ৯৬ হাজার ২০১ কোটি টাকা। এ ছাড়া এনবিআরবহির্ভূত সূত্র থেকে কর রাজস্ব ধরা হয়েছে নয় হাজার ৭২৭ কোটি টাকা। করবহির্ভূত খাত থেকে রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে ৩৩ হাজার ৫৫২ কোটি টাকা।

সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, একটা সময় ছিলো বাজেটের বিশাল একটা অংক বাস্তবায়নের দিকে তাকিয়ে থাকতে হতো বিদেশি সাহায্যের আশায়। সাহায্য পাওয়া না গেলে বাজেট বাস্তবায়ন হতো না। এখন আমরা বাজেট বাস্তবায়নে বিদেশি সাহায্যের আশায় থাকতে হয় না।

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত গতকাল বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ’ স্লোগান সংবলিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য বাজেট উত্থাপন করেন। মোট চার লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকার বাজেট পেশ করা হয়েছে।

আজকের সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী বলেন, ‘আমার সব বাজেট নির্বাচনী বাজেট। তা তো হবেই। আমি একটি দলের সদস্য এবং একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। আমার বাজেট তো এমন হবেই যেটা মানুষ পছন্দ করবে। এবং পছন্দটা করবে একদিনের জন্য না, জাস্ট ইলেকশনের বছরের জন্য না, প্রত্যেক বছর ধরে পছন্দ করবে।’

‘এবারের বাজেটে আমি বলেছিলাম যে নতুন করটর দেওয়া হবে না। মোটামুটিভাবে সেই কথা রাখতে সক্ষম হয়েছি।’

অর্থমন্ত্রী আরো বলেন, ‘এবং আমার মনে হয় যেসব আলোচনা দেখেছি সংবাদ মাধ্যমে তাতে আমার তেমন কিছু বলার নেই। তবে কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমের বক্তব্যের ব্যাপারে আমার দারুণ আপত্তি আছে।’

মন্তব্য

মতামত দিন

অর্থনীতি পাতার আরো খবর

ব্যাংক ঋণ ও আমানতের সুদ কমালে কার লাভ?

নিউজ ডেস্কআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশে ব্যাংক ঋণ ও আমানতের সুদের হার এক অঙ্কে নামিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকারি ও বেসরকার . . . বিস্তারিত

ইসলামী বন্ড চালু করার ইঙ্গিত দিয়েছে সরকার

নিজস্ব প্রতিবেদকআরটিএনএনঢাকা: বাংলাদেশে শরিয়াভিত্তিক ইসলামী বন্ড চালুর বিষয়ে চিন্তা-ভাবনা করছে সরকার। প্রস্তাবিত বাজেটও . . . বিস্তারিত

 

 

 

 

 

 



ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক: ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান,
ফোন: +৮৮০-২-৮৩১২৮৫৭, +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, ফ্যাক্স: +৮৮০-২-৮৩১১৫৮৬, নিউজ রুম মোবাইল: +৮৮০-১৬৭৪৭৫৭৮০২; ই-মেইল: rtnnimage@gmail.com